rabbhaban

মামলার সঙ্গে জিইয়ে বিরোধ


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:১০ পিএম, ১৯ জুন ২০১৯, বুধবার
মামলার সঙ্গে জিইয়ে বিরোধ

নারায়ণগঞ্জের আলোচিত মেধাবী ছাত্র তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী হত্যাকান্ডের ঘটনায় চার্জশীট প্রদান না করার কারণে রাজনৈতিক বিরোধও এখন জিইয়ে আছে।

ওসমান পরিবারের লোকজন তাদের বিরুদ্ধে দেওয়া বক্তব্যের প্রেক্ষিতে কখনো প্রতিক্রিয়া, বিবৃতি এসেছে। আবার সেটার উত্তাপ ছড়িয়েছে রাজপথ পর্যন্তও। এবারও আবার সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন ত্বকী হত্যার চার্জশীট প্রদানে দীর্ঘসূত্রিতার কারণেই রাজনৈতিক বিরোধ এখনো জিইয়ে আছে। কারণ এর আগে গত মার্চে ত্বকী হত্যার বিচার দাবীতে দেওভোগ লেকে সমাবেশে সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর বক্তব্যের জের ধরে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়। তখন এটার জের আচড়ে পড়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দেওয়া স্মারকলিপিতেও।

চার্জশীট প্রদান করা হলে এর একটি সুরহা হতো। তখন স্পষ্ট হতো আসলে কারা জড়িত। কিন্তু সেটার সময়ের কারণেই স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুটি গ্রুপ কার্যত বিভক্ত হয়ে আছে। একটি পক্ষ ত্বকীর পরিবারের দেওয়া বক্তব্যে সুর মিলিয়ে ওসমান পরিবারকে তুলোধুনো করছে। আরেকটি গ্রুপ ওসমান পরিবারের পক্ষে বিরোধীতা করছে।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমানের ছেলে অয়ন ওসমানের দেওয়া একটি ফেসবুক স্ট্যাটাস নিয়ে রীতিমত তোলপাড় চলছে। ১০ জুন ওই স্ট্যাটাস আপলোড হয়।

এর আগে ত্বকী হত্যার জন্য প্রয়াত এমপি একেএম নাসিম ওসমানের ছেলে আজমীর ওসমান ও বর্তমান এমপি শামীম ওসমানের ছেলে অয়ন ওসমানকে ‘হত্যাকারী’ এবং এমপি শামীম ওসমানকে ‘হত্যার পরিকল্পনাকারী’ হিসেবে আখ্যায়িত করে গ্রেফতারের দাবি জানান সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের সদস্য সচিব কবি হালিম আজাদ।

৮ জুন রাতে শহরের ডিআইটি এলাকায় আলী আহাম্মদ চুনকা নগর পাঠাগার ও মিলনায়তন প্রাঙ্গনে ত্বকী হত্যার বিচার ও দ্রুত অভিযোগপত্র প্রদানের দাবিতে নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের মাসিক কর্মসূচি অংশ হিসেবে মোম শিখা প্রজ্জলন অনুষ্ঠানের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। হালিম আজাদ একই সঙ্গে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি। এর পরেই ছাত্রলীগের মহানগর কমিটির সভাপতি হাবিবুর রহমান রিয়াদ সহ অন্যরাও এর প্রতিবাদ জানান।

এ অবস্থায় অয়ন ওসমান ফেসবুকে লিখেন, ‘যদি আমি বাংলা সিনেমার ভিলেন হতাম তাহলে, ডাইলগ দিতাম যে, এই হালিম আমি ফু দিলে তুই আজাদ হইয়া যাবি। যদি একজন রাজনীতিবিদ হতাম তাহলে বলতাম যে, এই মিথ্যাচার এবং অপপ্রচারের রাজনৈতিক কৌশল ছেড়ে সাধারন জনগনের পাশে দাঁড়ান এবং নারায়ণগঞ্জ এর উন্নয়ন মূলক কার্যকলাপ বজায় রাখার সর্বোচ্চ সহযোগীতা করেন। যেহেতু আমি একটাও না আমাকে ফ্রি পাবলিসিটি দেওয়ার জন্য আমি আপনাদের আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাতে চাই। এটা জানা স্বত্বেও যে আমার সিভিল রাইটস্ লঙ্ঘন হয়েছে, যেহেতু আমি একজন আইন এর ছাত্র এবং আমার আইন শৃঙ্খলার উপর বিশ্বাস রয়েছে। আপাতত একটাই অনুরোধ থাকবে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আর উল্টা পাল্টা কোন স্ট্যাটমেন্ট দিয়েন না। উনার প্রতি আমাদের শ্রদ্ধা এবং ভালোবাসা আছে বলেই নারায়ণগঞ্জ এখনো কোন একশনে যায় নাই এবং আশা করি যাবেও না।’

ইতোপূর্বে বিভিন্ন সময়ে সভা সমাবেশে নিহত ত্বকীর বাবা রফিউর রাব্বি বলেন, কারা কিভাবে ত্বকীকে হত্যা করেছে সেটা সারা দেশের মানুষ জানে। আজমেরী ওসমানকে গ্রেপ্তার করে তার ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী নিলেই কার নির্দেশে ত্বকী হত্যা হয়েছে সেটা বেরিয়ে আসবে। ওসমান পরিবারই ত্বকীর ঘাতক। নির্দেশদাতা পেছনে থেকে যাবে সেটা হতে পারেনা। আমরা ৭ খুনের বেলায় দেখেছি অভিযোগপত্র (চার্জশীট) প্রদানের পরে নূর হোসেনকে দেশে ফিরিয়ে আনায় নির্দেশদাতার নাম জানা যায়নি। ৫ বছর আগেও র‌্যাব সংবাদ সম্মেলন করে বলেছিল অচিরে ত্বকী হত্যাকা-ের চার্জশিট দেওয়া হবে। ভ্রমরের ১৬৪ ধারায় দেওয়া জবানবন্দিতে আজমীর ওসমানের নাম বলা হয়েছে এটা বাংলাদেশের সবাই জানে। কিন্তু এখনও এই মামলার চার্জশীট দেওয়া হয়নি।

ত্বকী হত্যকান্ডের বিচারপ্রার্থীরা সবসময় শামীম ওসমানকে দায়ী করে আসছেন। তারা বলে আসছেন এ হত্যাকান্ডের সঙ্গে ওসমান পরিবার জড়িত। এ অবস্থায় ২৬ ফেব্রুয়ারী বিকেলে ইসদাইর বাংলা ভবনে ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে আলোচনা সভা ও প্রস্তুতি সভায় শামীম ওসমানও ত্বকী হত্যাকান্ড নিয়েও কথা বলেছেন।

সাংসদ শামীম ওসমান বলেন, আমাদের নারায়ণগঞ্জকে শুধু শুধু বদনাম করা হয়। অন্যান্য জায়গায় আইন শৃঙ্খলা অবস্থা অনেক বেশি খারাপ। নারায়ণগঞ্জে অনেক ভালো। বাইরে থেকে ঘটনা ঘটায়। সেভেন মার্ডার হয়, এই মার্ডার হয়, ওই মার্ডার হয়, ত্বকী মার্ডার হয়। মার্ডারের অংশ বের করলেই হয়, বের করুক না। আমি তো চাই বের হওয়া উচিত। বের হোক না। নারায়ণগঞ্জের মানুষ কিছু করে না। খেলা বাইরে থেকে এসে। ধান্দা করে কামাই করে চলে যায়। আর আমরা ভাইয়েরা ভাইয়েরা মারামারি করি। আমি এটাও চাই না বিএনপির কোন নিরপরাধ লোকের মামলা থাকুক। তাদেরকেও খালাশ দেয়া হোক। কারণ আমাদের সাথে কারও ব্যক্তিগত দুশমনি নেই।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর