rabbhaban

আওয়ামী লীগ জাপার সমাবেশে যায় নেতাদের পদ দেওয়া হয়েছে : তৈমূর


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৯:০১ পিএম, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রবিবার
আওয়ামী লীগ জাপার সমাবেশে যায় নেতাদের পদ দেওয়া হয়েছে : তৈমূর

বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার বলেছেন, নারায়ণগঞ্জ হচ্ছে বিএনপির আন্দোলনের সুতিকাগার। কিন্তু সঠিক নেতৃত্ব দিতে হবে। সঠিকভাবে নেতৃত্ব দিতে পারলে কর্মীর অভাব নাই। নেতাকর্মীদের কথা বলার অধিকার দিতে হবে। এমন সব নেতাদেরকে পদ দেয়া হয় যাদেরকে আওয়ামী লীগের সভা সমাবেশে পাওয়া যায় আবার জাতীয় পার্টির সভা সমাবেশেও পাওয়া যায়। আমরা এত কষ্ট করে যাকে উপজেলা চেয়ারম্যান বানালাম। অথচ তিনি উপজেলা চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির নেতাদের সাথে চলা ফেরা করেন।

জাতীয়তবাদী কৃষক দল নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগরের সম্মেলন উপলক্ষে প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ১৫ সেপ্টেম্বর রোববার বিকেলে মাসদাইর মজলুম মিলনায়তনে এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ধন্যবাদ জানাই যে তিনি বিএনপির গুনগত পরিবর্তন আনার চেষ্টা করছেন। ছাত্রদলের সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি তদবির করে পদে আসার সিস্টেম তুলে দিচ্ছেন। যারা তদবির করে পদ পদবী দখল করে তাদেরকে দলীয় আন্দোলন সংগ্রামে পাওয় যায় না। দলের প্রতি তাদের মায়া থাকে না। আমি বিএনপিতে আছি আজীবন বিএনপিতেই থেকে যাবো।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুকে উদ্দেশ্য করে করে তিনি বলেন, আপনাকে ধন্যবাদ জানাই। আপনার কারনে নেতাকর্মীদের মধ্যে একটি জোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। আপনি কৃষক দলের কমিটি করার উদ্যোগ নিয়েছে এতে করে দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে জাগরণ সৃষ্টি হয়েছে।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের আহবায়ক শামসুজ্জামান দুদু এবং উদ্বোধক হিসেবে জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের কেন্দ্রীয় সংসদের সদস্য সচিব কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন।

নারায়ণগঞ্জ জেলা কৃষক দলের সভাপতি শরিফুল ইসলাম মোল্লার সভাপতিত্বে এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের কেন্দ্রীয় সংসদের যুগ্ম আহবায়ক তকদির হোসেন মোহাম্মদ জসিম, সদস্য এস কে সাদেক, নাসির উদ্দিন হাজারী, রফিকুল ইসলাম রিপন, জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহবায়ক আনোয়ার হোসেন খান, বিএনপি নেতা জামাল উদ্দিন কালু, ফতুল্লা থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি খন্দকার মনিরুল ইসলাম, জেলা ওলামাদলের সভাপতি শামসুর রহমান খান বেনু, মহানগর যুবদলের সভাপতি মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ, মহানগর কৃষক দলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, মহানগর শ্রমিক দলের সাবেক সভাপতি ফারুক হোসেন ও জেলা কৃষক দলের সহ সভাপতি আবু তাহের মোল্লা সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর