আওয়ামী লীগে বিভক্তির চার খলনায়ক


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:৩১ পিএম, ০৩ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার
আওয়ামী লীগে বিভক্তির চার খলনায়ক

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের মধ্যে একে অপরের শত্রুতা বহুদিনের। কিছু দিন থেমে থেমেই সেই শত্রুতা নতুন করে শুরু হয়। তারই ধারাবাহিকতায় আড়াইহাজার আওয়ামী লীগে ফের একে অপরের বিরুদ্ধে শত্রুতা শুরু হয়েছে। তবে অন্যবারের চেয়ে এবার তাদের শত্রুতা চরম আকার ধারণ করেছে। প্রায় প্রতিনিয়তই আড়াইহাজার আওয়ামী লীগের নেতারা একে অপরের বিরুদ্ধে বিরুদ্ধচারণ করে যাচ্ছেন। আর তাদের এই বিরুদ্ধচারণে এলোমেলো হয়ে যাচ্ছে আড়াইহাজার আওয়ামী লীগ। দিকহারা হয়ে যাচ্ছেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। দল উপদলে বিভক্ত হয়ে পড়েছেন তারা।

জানা যায়, গত ২৬ নভেম্বর নারায়াণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মিজানুর রহমান বাচ্চু ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল পারভেজকে ‘দলের ভাবমূর্তি নষ্টকারী ও অনুপ্রবেশকারী দুর্নীতিবাজ’ আখ্যা দিয়ে দলীয় পদ থেকে বহিস্কারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন আড়াইহাজার উপজেলা আওয়ামীলীগের একাংশের নেতাকর্মীরা। আড়াইহাজার বাজার এলাকার দুবাই প্লাজার আড়াইহাজার ক্লাব লিমিটেডে আড়াইহাজারে উপজেলা পরিষদ, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের সকল জনপ্রতিনিধিগণ এবং দলীয় নেতাকর্মীবৃন্দের ব্যানারে সংবাদ সম্মেলনে নেতাকর্মীদের পক্ষে তাদের বক্তব্য তুলে ধরে বক্তব্য দেন আড়াইহাজার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুজাহিদুর রহমান হেলো সরকার।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মিজানুর রহমান বাচ্চু ও যুগ্ম সম্পাদক ইকবাল পারভেজকে আওয়ামী লীগের দলীয় পদ থেকে বহিস্কারের দাবী তোলা হয়। তাদের বিরুদ্ধে স্থানীয় সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে তাদের অনুগত নেতাকর্মীদের দিয়ে ফেসবুকে ফেক আইডি খুলে অপপ্রচার করে দলীয় ভাবমূর্তি নষ্টের অভিযোগ আনার পাশাপাশি এ দুজনকে দলে অনুপ্রবেশকারী হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়। অথচ এই মুজাহিদুর রহমান হেলো সরকার একসময় ইকবার পারভেজের লোক হয়েই কাজ করে আসছিলেন।

তবে সেখানে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের কোন নেতা উপস্থিত ছিলেন না। সেই সাথে জেলা আওয়ামী লীগের অন্যান্য নেতাদের মধ্যে দুই একজন ছাড়া আর কেউ উপস্থিত ছিলেন না। যারা ওই সংবাদ সম্মেলনে হাজির হয়েছিলেন তারা প্রায় সবাই নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুর অনুসারী হিসেবে পরিচিত। যার সূত্র ধরে আড়াইহাজার আওয়ামী লীগের তৃণমূলে এই সংবাদ সম্মেলন ও তাদের দাবী নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

এদিকে এই সংবাদ সম্মেলনের একদিন পরেই নিজের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ইকবাল পারভেজ জড়িত দাবী করেছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের (আড়াইহাজার) সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু। গত ২৭ নভেম্বর রাজধানী ঢাকার রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে বাবু এ দাবী করেন।

জাতীয় নির্বাচন ও দলীয় সম্মেলনের আগেই এসব ষড়যন্ত্রকারীরা তার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমার সাংগঠনিক কার্যক্রমে ঈর্ষান্বিত হয়ে আওয়ামী রাজনীতিতে অনুপ্রবেশকারীরা ঘোলাপানিতে মাছ শিকার করার আশায় আমার উন্নয়ন ও সাংগঠনিক কার্যক্রম সহ্য করতে না পেরে আমার বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় অসত্য সংবাদ প্রকাশ করানোর পাশাপাশি সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সংস্থায় নামে-বেনামে অসত্য অভিযোগ দায়ের করে দেশ ও জাতির কাছে আমাকে ছোট করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে।

অন্যদিকে আড়াইহাজার আওয়ামী লীগের চলমান এই কোন্দোলনের সমাধান না করেই বিবৃতি দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ। নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের প্যাডে দপ্তর সম্পাদক এম এ রাসেল স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মিজানুর রহমান বাচ্চু ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল পারভেজের বিভিন্ন অবদানের কথা তুলে ধরেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই ও সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ বাদল।

সাংবাদিক সম্মেলনে দেয়া হেলো সরকারের বক্তব্যকে অসত্য দাবী করে প্রতিবাদ জানান। সেই সাথে এরকম অসত্য, বানোয়াট, কু-রুচিপূর্ণ, ভিত্তিহীন উল্লেখ করে হেলো সরকারকে বিরত থাকার জন্য সতর্র্ক করা হয়েছে।

স্থানীয় সূূত্রে জানা যায়, আড়াইহাজার আওয়ামী লীগের এসকল বিষয়কে কেন্দ্র করে দ্বিধা বিভক্ত হয়ে পড়েছেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। ক্ষমতায় থাকাবস্থায়ও সঠিক কোন দিক নির্র্দেশনা পাচ্ছে না তারা। ফলে দলে উপ দলে বিভক্ত হয়ে পড়েছেন আড়াইহাজার আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মীরা।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর