পুলিশের সংখ্যায় নস্যি বিএনপির নেতাকর্মীরা


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৪:৪৬ পিএম, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, রবিবার
পুলিশের সংখ্যায় নস্যি বিএনপির নেতাকর্মীরা

বিএনপির অসুস্থ কারাবন্দি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ও তার জামিন বাতিলের প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে বিক্ষোভ সমাবেশ পালন করতে গিয়ে উপস্থিত নেতাকর্মী, সাধারণ মানুষ পুলিশ ও সাংবাদিকদের হাসিয়ে নিজেরাও হেসেছেন দলটির নেতাকর্মীরা।

রোববার (১৫ ডিসেম্বর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবের পেছনের গলিতে দলীয় এ কর্মসূচী পালন করতে জেলা ও মহানগর বিএনপির গুটি কয়েক নেতাকর্মী উপস্থিত হয়েছিলেন। তবে তার কয়েকগুন বেশি পুলিশ সদস্য ছিলেন সেখানে উপস্থিত।

সরেজমিনে দেখা যায়, জেলা বিএনপি ও তাদের সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মিলিয়ে মাত্র ২০/২৫ জনের একটি বিচ্ছিন্ন গ্রুপ দলীয় কর্মসূচী পালন করতে আসেন বিকেলে। কর্মসূচীতে এসে শুধুমাত্র জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের৭ জন নেতাকর্মী কিছুক্ষণ দাঁড়ালেও পরে আর কয়েকজন আসতেই পুলিশ এসে তাদের সরিয়ে দেয়। বিশাল কমিটির ৮ ভাগের এক ভাগ নেতাকর্মীও উপস্থিত হয়নি দলীয় এ কর্মসূচীতে। রাজপথ থেকে বিচ্ছিন্ন হবার পেছনে তাদের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদককেই দায়ী করেন সকলে।

মহানগর বিএনপির বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন সাধারন সম্পাদক এটিএম কামাল, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু আল ইউসুফ খান টিপুসহ মাত্র ২৫ জন। তারা এসে ব্যানার নিয়ে দাড়ানোর পর সেখানে পুলিশ এসে তাদের ব্যানার কেড়ে নিয়ে যায় এবং তাদেরকে সরিয়ে দেয়। ১৫১ জনের কমিটির ৬ ভাগের এক ভাগ নেতাকর্মী দলের সর্বোচ্চ প্রধানের মুক্তির জন্য কেন্দ্রীয় কর্মসূচীতে উপস্থিত হয়েছিলেন তাও একটি গলিতে।

সেখানে উপস্থিত সাধারন মানুষ দলীয় নেতাকর্মীদের সামনেই মন্তব্য করেন, নিজেদের বিক্ষোভ মিছিল তো দূরের কথা সামান্য প্রতিবাদ সমাবেশও পালিতে হয়নি তাদের এখানে। দলের প্রধানের জন্যই রাজপথে তারা নামেনা সাধারন মানুষের জন্য আর কি নামবে।

সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-অপারেশন) আব্দুল হাই জানান, বিএনপির নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল করতে কয়েকজন এসেছিল কিন্তু নিজেরাই পরে নেতাকর্মী না পেয়ে লজ্জায় চলে গেছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর