নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের পরাজয়


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:২১ পিএম, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার
নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের পরাজয়

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্র্দেশনা অনুযায়ী সারাদেশের মতো নারায়ণগঞ্জেও বিভিন্ন উপজেলা, থানা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। নারায়ণগঞ্জের প্রায় সবকটি উপজেলাতেই আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুধুমাত্র একটি থানা ও একটি উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের বাকী রয়েছে। তবে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের এই নির্দেশ পালনে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগ। জেলা আওয়ামী লীগের অধীনে থাকা প্রায় সবকটি উপজেলা ও থানা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলেও মহানগর আওয়ামী লীগের অধীনে থাকা কোন ওয়ার্ডেই সম্মেলন করতে পারেনি মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

সূত্র বলছে, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক জেলা, মহানগর, উপজেলা, থানা, পৌর, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডের মেয়াদোত্তীর্ণ সব কমিটির সম্মেলন গত ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে সম্পন্ন করার জন্য নির্দেশ দিয়েছিলেন দলটির সাধারণ সম্পাদক সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

চিঠিতে দেশের সব জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের কাছে পাঠানো এই নির্দেশনায় বলা হয়, গত ১৪ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২০ ও ২১ ডিসেম্বর ২০১৯ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। জাতীয় কাউন্সিল অধিবেশনের আগেই সংগঠনের যে সব শাখা কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে, সেসব কমিটির সম্মেলন অনুষ্ঠানের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল ওই সভায়।

কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নির্দেশনা ও স্থানীয় নেতাদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত ১৬ জুলাই রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন, গত ২২ জুলাই আড়াইহাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন, গত ২৬ নভেম্বর বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন, ৫ ডিসেম্বর সদর থানা আওয়ামী লীগের সম্মেলন ও সবশেষ ৭ ডিসেম্বর ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগ একটি ওয়ার্ডেরও সম্মেলন করতে পারেনি।

জানা যায়, ২০১৩ সালের ১১ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে তৎকালীন শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহাকে মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক করে দুই সদস্যের কমিটি ঘোষণা করেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরবর্তীতে ২০১৫ সালের ২৬ ডিসেম্বর মহানগর আওয়ামীলীগের ৭১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী।

আর এই পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার পর নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের প্রতিটি ওয়ার্ড কমিটি ২০১৭ সালের মে মাসে গঠন করা হবে বলে ঘোষণা করা হলেও কমিটি গঠনের দৃশ্যমান কোন অগ্রগতি দেখা যায়নি বলে জানিয়েছেন আওয়ামীলীগের কয়েকটি ওয়ার্ডের পদপ্রার্থীরা। কমিটি গঠনের কোন উদ্যোগও তাদের চোখে পড়ছেনা বলে জানান তারা। ইতোমধ্যে বছর দুয়েক পেরিয়ে গেলেও কমিটির কোন লক্ষণ দেখছেন না নেতাকর্মীরা। সবশেষ কেন্দ্রীয় নির্দেশনাতেও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাদের কোনো উদোগ দেখা যায়নি।

নেতাকর্মীদের সূত্র বলছে, ২০১৭ সালের মে মাসজুড়ে প্রতিটি ওয়ার্ডের কমিটি গঠনের উদ্যোগ নেয়া হলেও কার্যত তা আর বাস্তবায়ন হয়নি। মহানগর আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে নিজেদের অন্তঃকোন্দলের কারণেই এখন পর্যন্ত কোন কমিটি গঠনের কাজে হাত দিতে পারেনি দলটি। এদিকে কোন্দলে অনেকটাই বিপর্যস্ত অবস্থায় রয়েছে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগ।

এর আগে ২০১৭ সালের ১৭ এপ্রিল জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা বলেছিলেন, জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে মে মাস জুড়ে মহানগরের ওয়ার্ড কমিটি গঠন করা শুরু হবে। সেটা হবে সম্মেলনের মাধ্যমে, যে যোগ্য তাকে নেতৃত্বে আনবে তৃণমূল। কিন্তু তার এই বক্তব্য বাস্তবে প্রয়োগ হয়নি। পরবর্তীতে কোন প্রদক্ষেপ আর লক্ষ্য করা যায়নি।

তবে ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে যুব মহিলা লীগের কমিটি গঠন নিয়ে শামীম ওসমানের সঙ্গে বিরোধে জড়িয়ে পড়েন আনোয়ার হোসেন, খোকন সাহা ও মাহামুদা মালা। মহানগর আওয়ামীলীগের একটি অংশ শামীম ওসমানের নিয়ন্ত্রনে রয়েছেন। কিন্তু সভাপতি ও সেক্রেটারি এক থাকায় প্রতিটি এলাকায় কর্মীসভা করতে সমর্থ হলেও কমিটি গঠনের উদ্যোগ নিতে পারেননি। এমনকি ওই বছরের মুছাপুর এলাকায় মহানগর আওয়ামীলীগের কর্মীসভা নিয়েও জেলা আওয়ামীলীগের সঙ্গে বিরোধ সৃষ্টি হয়। সীমানা সংক্রান্ত বিরোধ তাদের রাজনীতিতে জটিলতা সৃষ্টি করেছিল।

সেই সাথে এবার কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নির্দেশনাতেও মহানগর আওয়ামী লীগের কোন উদ্যোগ লক্ষ্য করা যায়নি। মাঝে মাঝে নেতাদের বক্তৃতায় সম্মেলনের কথা উঠে আসলেও সেটা ওই বক্তব্য পর্যন্তই সীমাবদ্ধ থেকে যায়।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
রাজনীতি এর সর্বশেষ খবর
আজকের সবখবর