আমি হাই লেভেল খেলোয়াড়,ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন কমে গেছে : তৈমূর


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ০৮:২৩ পিএম, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার
আমি হাই লেভেল খেলোয়াড়,ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন কমে গেছে : তৈমূর

কারাবন্দি নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামালেরর পরিবার সদস্যদের সাথে সাক্ষাৎ করেছেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার।

২৪ ডিসেম্বর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শহরের মিশনপাড়ায় সোনারগাঁও ভবনে এটিএম কামালের বাড়িতে তার পরিবারের সদস্যদের সাথে সাক্ষাৎ করেন তৈমূর আলম খন্দকার। এসময় মামলার ব্যাপারে এটিএম কামালের স্ত্রী সালমা সুলতানার সাথে আলোচনা করেন।

এসময় তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, বিএনপির নেতাকর্মীরা যখনই গ্রেফতার হয়েছে সব সময় আমি তাদের বাড়িতে যাই। গ্রেফতার হওয়ার সংবাদ পেলে সর্বপ্রথমে গ্রেফতারকৃতের স্ত্রী কিংবা তার মায়ের সাথে আমি তাৎক্ষণিকভাবে ফোনে কথা বলে শান্তনা দেই। পরে তাদের বাড়িতে যাই খোঁজখবর নিতে। এবং তাদের মামলার দায় দায়িত্ব গ্রহণ করি। আর গরীব নেতাকর্মীরা গ্রেফতার হলে তাদের জন্য নগদ অর্থ দিয়ে সহায়তা করে থাকি। হাইকোর্টে যত মামলা গিয়েছে সবগুলোর আমি দায়িত্ব নিয়েছি। তবে লোয়ার কোর্টে গেলে আমরা মামলার হিয়ারিং করবো।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি লোয়ার কোর্টে ওকালতি করিনা। আমি এপিলেট ডিভিশনের ল’ইয়ার। আমি হায়ার (উপরের) লেভেলের খেলোয়াড়। কেউ গ্রেফতার হলে আমি সাথে সাথে তার পরিবারকে শান্তনা দিতে তার কাছে যাই। এখানে কোন পক্ষ বিপক্ষ নেই।

তিনি আরো বলেন, প্রকৃত রাজনীতি করতে হলে পদ পদবির প্রয়োজন হয়না। আমি সমাজ নিয়ে ভাবি, দেশ নিয়ে ভাবি। নারায়ণগঞ্জে দুই শ্রেনির বিএনপির রাজনীতিবিদ আছে। এটা শ্রেণি হল সুবিধাভোগী; আরেকটা শ্রেণি হল যারা ঝড় বৃষ্টি উপেক্ষা করে সব সময় রাজনীতিক মাঠে থাকে। দুর্ভাগ্যজনক হলেও এটা সত্য যে রাজনীতিটা এখন অরাজনৈতিক ব্যক্তিরা দখল করে ফেলছে। ফলে তৃণমূল পর্যায়ের ও মাঠের ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন কমে গেছে। কিন্তু তারাই মূলত রাজনীতি করে। আর দল অনেক সময় আপন পর চিনেনা। অনেক সময় দলটা তদবির ভিত্তিক দলবাজির দল হয়ে যায়। তৃণমূলের নেতাকর্মীরা কখনো তদবিরে যায়না। তারা সব সময় মাঠের রাজনীতিতে থাকে। রাজনীতির একটা নিজস্ব ব্যাকারণ আছে সেই ব্যাকারণের ভেতরে তারা রাজনীতি করে থাকে। সবসময় কর্মীদের পাশে থাকে।

এসময় আরো উপস্থিত ছিল মহানগর যুবদলের ভাইস প্রেসিডেন্ট আক্তার হোসেন খোকন শাহ্ ও মহানগর পরিবহন শ্রমিকদল নেতা মো. জামাল হোসেন।

উল্লেখ্য, বিজয় দিবসে পুলিশ পেটানো মামলায় নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মামুন মাহমুদকে সদর থানায় রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মহানগর বিএনপি ও জেলা বিএনপির এই সেক্রেটারিদ্বয় এটিএম কামাল ও মামুন মাহমুদকে ১৭ তারখি দিবাগত রাতে তাদের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ। পরবর্তিতে তাদের বিজয় দিবসে পুলিশ লাঞ্ছিত করার মামলায় আসামি করা হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
রাজনীতি এর সর্বশেষ খবর
আজকের সবখবর