গুলি করে হত্যার হুমকি, এটিএম কামালকে গালাগাল ডেভিড ভাগ্নের


স্পেশাল করেসপনডেন্ট | প্রকাশিত: ১০:১৪ পিএম, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার
গুলি করে হত্যার হুমকি, এটিএম কামালকে গালাগাল ডেভিড ভাগ্নের

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সেক্রেটারী এটিএম কামালের সঙ্গে চরম অশোভণ ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের অভিযোগ উঠেছে ক্রসফায়ারে নিহত দুর্ধর্ষ সেই সন্ত্রাসী মমিনউল্লাহ ডেভিডের ভাগ্নে সাখাওয়াত হোসেন রানার বিরুদ্ধে। একই সঙ্গে তিনি মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের মহানগর কমিটির সেক্রেটারী। ওই আচরণের সময়ে কামালকে মারতে তেড়ে যান রানা। অকথ্য ভাষায় গালাগালও করেন। এ ঘটনায় সেখানে থাকা লোকজন হতবিহবল হয়ে পড়েন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গালাগাল ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের সময়ে রানা অস্বাভাবিক আচরণ করেছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মিশনপাড়া এলাকাতে সড়ক নিয়ে কয়েক বছর ধরেই সাত্তার ও জব্বার মিয়া প্রয়াত মিলু চেয়ারম্যানের সঙ্গে ছেলে রাতুল সহ অন্যদের সঙ্গে বিবাদে জড়ানোর চেষ্টা করেন। মিলু চেয়ারম্যান হলেন এটিএম কামালের চাচা। ৩ ফেব্রুয়ারী সোমবার রাতে সাত্তার ও জব্বারের পক্ষে এসে ঘটনাস্থলে হৈ চৈ করেন ক্রসফায়ারে নিহত যুবদল নেতা মমিনউল্লাহ ডেভিডের ছোট ভাই মাহাবুবউল্লাহ তপন। খবর পেয়ে রাত ১১টার পরে ভাগ্নে রানা ১০-১২ জন সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোকজন এনে মিশনপাড়ায় এটিএম কামালের সোনারগাঁও ভবনের সামনে অবস্থান করে। সেখানে থেকেই তিনি দলবল নিয়ে এটিএম কামালকে উদ্দেশ্য করে অশালীন ভাষায় গালাগাল করতে থাকে। এটিএম কামালকে দিতে থাকে একের পর এক হুমকি। তখন কামাল সংযত হয়ে কথা বলার অনুরোধ জানালে তাকে মারতে তেড়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে আশেপাশের লোকজন এসে নিবৃত্ত করে।

তবে এ ব্যাপারে এটিএম কামালের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন কথা বলতে রাজী হয়নি। বরং এও জানান, এটা নিউজ করার মত কোন বিষয় না। কারো বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ আমার নাই।

অপরদিকে সাখাওয়াত হোসেন রানার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি। এগুলো মিথ্যাচার। ছোট একটা বিষয় নিয়ে ঝামেলা হয়েছিল অন্যদের মধ্যে। আমি সেখানে গিয়ে সেটা মিটমাট করে দিয়েছি। এখানে আমার ও এটিএম কামালের মধ্যে কিছু না।’

এদিকে নারায়ণগঞ্জ মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সেক্রেটারী সাখাওয়াত হোসেন রানার বিরুদ্ধে সদর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ইশতিয়াক জামান নামের একজন প্রকৌশলী। এতে রানার বিরুদ্ধে গুলি করে হত্যার হুমকির অভিযোগ তোলা হয়।

৪ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার দুপুরে শহরের মিশনপাড়া এলাকার মনিরুজ্জামান মিলু ওরফে মিলু চেয়ারম্যানের ছেলে ওই অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগে ইশতিয়াক জামান লিখেন, আমি পেশায় একজন ইঞ্জিনিয়ার। শহরের মিশনপাড়ায় আমার বাসার বাউন্ডারী ওয়াল নির্মাণের সময়ে ২৩ জানুয়ারী বিকাল ৪টায় শীর্ষ সন্ত্রাসী ক্রসফায়ারে নিহত মমিনউল্লাহ ভেভিডের ভাগিনা শাখাওয়াত ইসলাম রানা ৪/৫ জন সহ আমাদের বাসার সামনে এসে। তখন তারা আমাদের কাজে বাধা দেয়। ওই সময়ে বড় ভাই শাহরিয়ার আমান তুষারকে কাজ বন্ধ করতে বলে। কাজ করতে হলে রানা ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। চাঁদা না দিলে জামান ও তুষারকে প্রাণে হত্যার হুমকি দেয়। ১০ দিনের মধ্যে ৫ লাখ টাকা চাঁদা না দিলে আমাদের বাউন্ডারী ওয়াল ভেঙ্গে ফেলবে এবং আমাদের দুই ভাইকে গুলি করে মারিবা ফেলিবে।

অভিযোগে আরো বলা হয়, ‘আমার বড় ভাই আমাকে এই ঘটনা জানালে, আমি আমার বড় ভাইকে কাজ চালিয়ে যেতে বলি। ইতোমধ্যে বাউন্ডারী দেয়ালের কাজ শেষ করে রং দেওয়ার সময়ে ৩ ফেব্রুয়ারী রাত অনুমান ৯টায় আসামী শাখাওয়াত ইসলাম (রানা) সহ তার দলবল আমার বাসার সামনে আসে। তখন কার পার্কিং হতে ইন্টারকমের মাধ্যমে আমাকে ও আমার বড় ভাই তুষারকে পূর্বের দাবীকৃত ৫ লাখ টাকা চাঁদা নিয়ে নিচে নামতে বলে। আমি ও আমার বড় ভাই, পাশের বাসার আমার চাচাতো ভাই কামাল, জামাল, রাকিব, ভাগিনাকে টেলিফোনে আমাদের বাড়ীতে আসার অনুরোধ করি। তখন আসামী শাখাওয়াত ইসলাম (রানা) ও তার অজ্ঞাতনামা সঙ্গীয় ৪ থেকে ৫ জন আমাকে ও আমার ভাইকে গেইটের বাহিরে আসার জন্য অকথ্য ভাষায় গালাগালা করতে থাকে ও ৫ লাখ টাকা চাদা দিতে বলে। আমি ও আমার ভাই ৫ লাখ টাকা চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে আসামীরা তালাবন্ধ গেটের ভিতর ঢুকার চেষ্টা করে এবং গেইটের তালা ভাঙ্গার চেষ্টা ও গেটের বাহিরে লোহার রড দিয়ে বাইরাইতে থাকে। এমতাবস্থায় আমার চাচাতো ভাই কামাল, জামাল, রাকিব, ভাগিনা ঘটনাস্থল এসে আসামীদের বাধা দিলে আসামীরা তাদেরকেও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং মারধর করিতে উদ্যত্ত হয়।

এক পর্যায়ে চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় আসামী রানা, আমাকে ও আমার ভাইকে গুলি করে হত্যা করার হুমকি প্রদান করে এবং রাস্তা ঘাটে পেলে খুন, জখমাদি করে ফেলবে হুমকি নিয়ে চলে যায়। ফলে আমরা পরিবারের লোকজন বিশেষ করে আমরা দুই ভাই চরম আতংকের মাঝে আছি।

এ ব্যাপারে সাখাওয়াত হোসেন রানা নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘আমি কোন ধরনের হুমকি দেইনি। রাস্তার একটি বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে। এর বাইরে কিছু না। হুমকির বিষয়টা সঠিক না।’

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর