মসজিদগুলোতে কমে আসছে সচেতনতা


সিটি করেসপন্ডেন্ট | প্রকাশিত: ১০:০০ পিএম, ১৭ জুলাই ২০২০, শুক্রবার
মসজিদগুলোতে কমে আসছে সচেতনতা

প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের প্রথম দিকে নারায়ণগঞ্জের দিকে তার ভয়াল থাবা বিস্তার করা থাকলেও বর্তমানে সেটা সংকীর্ণ হয়ে আসছে। এখন আর পূর্বের মতো সংক্রমণ হচ্ছে না। তবে এখনও একেবারেই কমে যায়নি সংক্রমণ। মাঝে মাঝেই যেন লাফ দিয়ে বেড়ে যায় সংক্রমণের সংখ্যা। ফলে এখনও সংক্রমণের আশংকা থেকেই যাচ্ছে।

আর এমতাবস্থার মধ্যেই নারায়ণগঞ্জে জনসচেতনতা একেবারেই কমে আসছে। মাঠে ঘাটে হাটে অফিস আদালতে কোথাও সচেতনতার বালাই দেখা যাচ্ছে না। আগে মসজিদগুলোতে সচেতনতা পরিলক্ষিত হলেও এখন মসজিদগুলোতেও পূর্বের সচেতনতা দেখা যাচ্ছে না। জীবানু নাশক স্প্রে, মাস্ক ব্যবহার কিংবা সামাজিক দূরত্ব কোনোটাই রক্ষা হচ্ছে না।

১৭ জুলাই শুক্রবার নারায়ণগঞ্জ শহেরর বিভিন্ন মসজিদে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, নামাজ পড়তে আসা মুসল্লিদের মাঝে সচেতনতার কোনো বালাই রক্ষা যাচ্ছে না। সেই সাথে মসজিদ কর্তৃপক্ষ প্রথমদিকে স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে জোড়ালো অবস্থানে থাকলেও এখন তারাও অনেকটা নমনীয় হয়ে আসছে। মসজিদে প্রবেশে কিংবা বাহিরে জীবানুনাশ স্প্রে করা, মুসল্লিদের মাস্ক পড়া অথবা নামাজের কাতার করতে গিয়ে সামাজিক দূরত্ব রক্ষা করা হচ্ছে না।

জানা যায়, প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে গত ৬ এপ্রিল ঘরেই সব নামাজ আদায় করার নির্দেশনা দিয়েছিল ধর্ম মন্ত্রণালয়। ফলশ্রুতিতে নারায়ণগঞ্জের প্রায় সকল মসজিদগুলোতেই সরকারি নির্দেশনা অনুসরণ করে জামায়াতে নামাজ আদায় বন্ধ হওয়ার সাথে সাথে মসজিদে জুমআর নামাজ আদায়ও বন্ধ ছিল।

তবে গত ৬ মে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলন, ৭ মে জোহরের নামাজের পর থেকে সারাদেশের মসজিদে মুসল্লিরা নামাজ পড়ার সুযোগ পাবেন। তবে মসজিদে নামাজ পড়ার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য অধিদফতর নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাসহ ধর্ম মন্ত্রণালয় থেকে ১২ দফা শর্তাবলী জুড়ে দেয়া হয়।

এসব শর্তাবলীর মধ্যে অন্যতম শর্ত হলো- পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের আগে সম্পূর্ণ মসজিদ জীবানুণাশক দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। মুসল্লিরা প্রত্যেকে নিজ নিজ দায়িত্বে জায়নামাজ নিয়ে আসবেন। মসজিদের প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ সবান-পানি রাখতে হবে এবং আগত মুসল্লিকে অবশ্যই মাস্ক পরে মসজিদে আসতে হবে। প্রত্যেককে নিজ নিজ বাসা থেকে ওজু করে সুন্নত নামাজ ঘরে আদায় করে মসজিদে আসতে হবে এবং ওজু করার সময় কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে। কাতারে নামাজে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব অর্থাৎ তিন ফুট পর পর দাঁড়াতে হবে। শিশু, বয়োবৃদ্ধ, যে কোনো অসুস্থ ব্যক্তি এবং অসুস্থদের সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তি জামাতে অংশ নিতে পারবেন না।

কিন্তু বর্তমানে এসকল শর্তাবলীর কোনোটিই রক্ষা হচ্ছে না নারায়ণগঞ্জ শহরের মসজিদগুলোতে। স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে সকলের ক্ষেত্রেই হেয়ালীপনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
newsnarayanganj-video
আজকের সবখবর