৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০১৭ , ১১:২৬ পূর্বাহ্ণ

‘না.গঞ্জ রেলস্টেশন উচ্ছেদের প্রস্তাব জনবিচ্ছিন্ন এবং জননিন্দিত’


প্রেস বিজ্ঞপ্তি || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:০৩ পিএম, ১৫ জুলাই ২০১৭ শনিবার


‘না.গঞ্জ রেলস্টেশন উচ্ছেদের প্রস্তাব জনবিচ্ছিন্ন এবং জননিন্দিত’

নারায়ণগঞ্জ ঐতিহ্য রক্ষা সংগ্রাম কমিটির যুগ্ম সচিব মো. আসাদুল হক সরকার স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে জানান, ঢাকা -নারায়ণগঞ্জ  রেল লাইনের চাষাড়া থেকে নারায়ণগঞ্জ রেল স্টেশন পর্যন্ত অংশ তুলে ফেলার জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে প্রস্তাব পাঠিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া।

উক্ত প্রস্তাবের প্রতিবাদে ১৫ জুলাই শনিবার সকাল ১০টা হতে ১ঘণ্টাব্যাপী নারায়ণগঞ্জ রেল ষ্টেশনে মানব বন্ধন কর্মসূচী সংগঠনের আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট এ.বি. সিদ্দিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

প্রসঙ্গত এক সময় এ নারায়ণগঞ্জ ছিল বর্হিবিশ^ থেকে এই বঙ্গে প্রবেশের দ্বার। ১৮৬২ সালে নারায়ণগঞ্জের সাথে গোয়ালন্দের ষ্টিমার সার্ভিস চালু হলে এ অঞ্চলের গুরুত্ব স্ববিশেষ বৃদ্ধি পায়। ১৮৮২ সালে নারায়ণগঞ্জ মহকুমা ঘোষিত হয় এবং এ বৎসরই রেলওয়ের প্রয়োজনে রেল কর্তৃপক্ষ নারায়ণগঞ্জ বাসী ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নিকট থেকে ভূমি অধিগ্রহণ করে এবং অধিগ্রহণকৃত জায়গায় রেল লাইন বসায়। অনেক ভূমিই রয়েছে যা অধিগ্রহণের পর হতে আজও পর্যন্ত কোন কাজ না করার ফলে এখনও পতিত অবস্থায় রয়েছে। অথচ ১৩২ বৎসরের ঐতিহ্যবাহী নারায়ণগঞ্জ রেলষ্টেশন স্থানান্তরের প্রস্তাব সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক।

মানববন্ধনে সংগঠনের সদস্য সচিব মোঃ সানোয়ার তালুকদার বলেন, এটি একটি অবাস্তব প্রস্তাব। ট্রেন চলাচল এখনকার মতই রেখে এবং যানজট কমাতে জেলা প্রশাসকের বর্তমান কার্যালয়ের  ামনে থেকে নিতাইগঞ্জ পর্যন্ত ফ্লাইওভার নির্মাণ করা যেতে পারে। তাছাড়া যানজট নিরসনে চতুর্থ প্রজন্মের আধুনিক ব্যাটারি চালিত ভ্যার্চুয়াল ট্রাক বাস চালু করলে যানজট কমানো সম্ভব।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশেনের ১৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর অসিত বরণ বিশ^াস বলেন, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে ৩২টি ট্রেন প্রতিদিন আসা যাওয়া করে। প্রতিটি বগিতে ৯০ জনের সিট থাকলেও বসে ও দাঁড়িয়ে প্রতিটি বগিতে শতাধিক মানুষ চলাচল করে। সেই হিসাবে প্রতিটি ট্রেনে ২১০০ জন লোক এবং প্রতিদিন প্রায় ৬৭ হাজার লোক ট্রেনে যাতায়াত করে। এখান থেকে রেল স্টেশন স্থানান্তর হলে প্রতিদিন প্রায় ৫ শত এরও বেশি বাস প্রয়োজন হবে। যা আরো অধিক যানজটের কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা ন্যাপ এর সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আওলাদ হোসেন বলেন, অতি দ্রুত রেলষ্টেশন উচ্ছেদের নামে রেলের সম্পদ বিনষ্ট করার চিন্তা বাদ দিয়ে যানজট দূর করা বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করুন।

মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি রোকনউদ্দিন আহম্মেদ বলেন, নারায়ণগঞ্জে যানজট কমানোর জন্য কয়লা ঘাট থেকে বিভিন্ন রুটে ওয়াটার বাস চালু করা যেতে পারে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা যুব লীগের সভাপতি আব্দুল কাদির বলেন, যানজট কমানোর জন্য ঐতিহ্যবাহী নারায়ণগঞ্জ রেলষ্টেশন এখানে রেখেই আরো আধুনিক শহর গড়ে তুলতে হবে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন খান বলেনম নারায়ণগঞ্জ ঐতিহ্যবাহী রেলস্টেশন রক্ষা করার জন্য দলমত নির্বিশেষে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে এগিয়ে আসতে হবে।

আরো বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের যুগ্ম সচিব অ্যাডভোকেট জাহিদুর রহমান, বাপা জেলার সাধারণ সম্পাদক মোঃ তারিক বাবু, দৈনিক ইয়াদ এর সম্পাদক মোঃ তোফাজ্জল হোসেন, নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির কোষাধ্যক্ষ হাজী আঃ হাই প্রমুখ।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ