৩ মাঘ ১৪২৪, মঙ্গলবার ১৬ জানুয়ারি ২০১৮ , ১:৫৬ অপরাহ্ণ

ছুটির দিনেও গ্যাস সংকটে দুর্ভোগ জনজীবনে


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:১৯ পিএম, ১২ জানুয়ারি ২০১৮ শুক্রবার | আপডেট: ০৩:১৯ পিএম, ১২ জানুয়ারি ২০১৮ শুক্রবার


ছুটির দিনেও গ্যাস সংকটে দুর্ভোগ জনজীবনে

নারায়ণগঞ্জের গ্যাস সংকটের বিড়ম্বনা অনেক আগে থেকেই নগরবাসী দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। তবে শীত মৌসুমের সেই গ্যাস সংকটের তীব্রতা আরো কয়েকগুণ বেড়ে যায় বলে নগরবাসী অভিযোগ করেছে। এদিকে অবৈধ গ্যাস সংযোগের রমরমা বাণিজ্যের কারণে এই সংকট আরো তীব্র হচ্ছে।

শহরের বিভিন্ন স্থানে শীতের মৌসুমে গ্যাস সংকট আরো তীব্র হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার সরকারী ছুটির দিনেও শহরের বিভিন্ন স্থানে তীব্র গ্যাস সংকটের নানা তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। তবে এই গ্যাস সংকটে কোন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি পদক্ষেপ নিচ্ছেনা বলে জনসাধারণ ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

শহর ও শহরতলীর কোন কোন এলাকায় সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত গ্যাস থাকেনা। এরপর সন্ধ্যার পর থেকে গ্যাস থাকলেও এর পরিমাণ খুবই কম থাকে। আবারো রাতে গ্যাসের পরিমাণ অনেকটা কমে আসে। তবে অধিকাংশ এলাকায় দুপুর ব্যতিত সকাল-বিকেল দুই বেলা গ্যাস থাকেনা। এরপর সন্ধ্যা থেকে গ্যাস আবার ফিরে এলেও তার পরিমাণ অনেক কম থাকে। আবার রাত হতেই গ্যাস চলে যায়। এভাবে গ্যাস নিয়ে তীব্র বিড়ম্বনার শিকার হতে হয় জনসাধারণকে। তবে রাতের বেলা গ্যাস থাকে বলে অনেক গৃহিনী রাত জেগে রান্না করে থাকে। এতে জনসাধারণকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

এদিকে শীতের মৌসুমে গ্যাস সংকট অদৃশ্য কারণে আরো কয়েকগুণ বৃদ্ধি পায় বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা। বছরের প্রতিটি মাসে গ্যাস সংকট থাকলে তা এই সময়ে এসে আরো কয়েকগুণ তীব্র আকার ধারণ করে। শুধুমাত্র এই বছরই নয়, প্রতি বছরের শীত মৌসুমে গ্যাস সংকট আরো তীবতর হয় বলে জানিয়েছেন নগরবাসী। তবে এসব সমস্যা মোকাবেলায় কোন জনপ্রতিনিধি এগিয়ে আসছেনা বলে জানিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, ‘শীত আসলেও গ্যাস সংকট আরো তীব্র হয়। সারা বছর গ্যাস সংকট থাকলেও এই সময়ে তা আরো কয়েকগুণ বেড়ে যায়। এই বিড়ম্বনার মধ্য দিয়ে আমাদেরকে কোন রকমে জীবন যাপন করতে হচ্ছে।’

জেলার বিভিন্ন থানা, উপজেলা ও শহরের বিভিন্ন স্থানে গ্যাস সংকটের নানা অভিযোগ উঠেছে। তবে শহরে গ্যাস সংকট খুবই চরম আকার ধারণ করেছে। দেওভোগ বিগত ১৫ বছর ধরে গ্যাস সংকটের গুরুতর অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী। এছাড়া বাবুরাইল, নতুন পালপাড়া, কাশীপুর, ভুইঘর, জামতলা ধোপাপট্টি, আমলাপাড়া, ফতুল্লার বিভিন্ন স্থান, পাগলা এলাকা, সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি সহ বিভিন্ন স্থানে এসব গ্যাস সংকটের অভিযোগ উঠেছে।

দেওভোগ এলাকার ভুক্তভোগী জানায়, ‘প্রায় ১৫ বছরের অধিক সময় হলেও দেওভোগ এলাকার গ্যাস সংকট নিরসন হচ্ছেনা। এ জেলায় এমপি, মেয়র সবই আছে তবুও এই গ্যাস সংকট কিছুতেই নিরসন হচেছনা। এই সমস্যা থেকে এলাকাবাসী কবে উদ্ধার হবে।’

নগরবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘আমাদের দেশের মত এমন আজগুবি নিয়ম কোন দেশে দেখিনি। গ্যাস না থাকলেও গ্যাস বিল কিন্তু মাসে মাসে ঠিকই নিচ্ছে। আবার প্রতি বছর বছর গ্যাস বিল বাড়িয়ে যাচ্ছে। কিন্তু গ্যাস কই ? গ্যাস নেই অথচ গ্যাস বিল ঠিকই আদায় করছে। এসব দেখে মনে হচ্ছে আমরা মগের মুল্লুকে বসবাস করছি।

১ নং বাবুরাইল এলাকার তাসলিমা আক্তার বলেন, ‘সকাল ৫ টা থেকে দুপুর ৩ টা পর্যন্ত থাকেনা। আবার সন্ধ্যা ৬ টা থেকে রাত ১২ টা পর্যন্ত গ্যাস থাকেনা। তাই অনেক সময় মাঝ রাতে জেগে জেগে রান্না করতে হয়। আর দিনের বেলায় ঘুমতে হয়।’

এভাবে বিভিন্ন এলাকাতে গ্যাস সংকটের কারণে অনেকে ভীষণ দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। আর উপায় না পেয়ে অনেকে বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে মাটির চুলো কিংবা স্টোভ দিয়ে রান্নার কাজ করছে। অন্যদিকে গ্যাসের বৈধ সংযোগ দেয়া হয়না বলে জেলার বিভিন্ন এলকাতে অবৈধ সংযোগ দেয়া হচ্ছে। এতে করে গ্যাস সংকট ধীরে ধীরে আরো তীব্র হচ্ছে।

ভুক্তভোগী রফিক ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘বিগত অনেক বছর ধরেই গ্যাস সংকটে আমরা ভুগছি। এমপি-মেয়র সবাই আছে তবুও এই সংকট থেকে মুক্তি পাচ্ছিনা। এ নিয়ে কারো মাথা ব্যাথা নেই। সবাই যার যার মত রয়েছে। ডিজিটাল বাংলাদেশের কথা বলে শুধু গ্যাস বিল বাড়ায় কিন্তু কেউ আমাদের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করেনা। গ্যাস নাই তবু গ্যাস বিল নিচ্ছে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ