১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, সোমবার ২৮ মে ২০১৮ , ১১:২৬ পূর্বাহ্ণ

ফের বঙ্গবন্ধু সড়কের ফুটপাত দখলে হকার


স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:৫৮ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৩:৫৮ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার


ফের বঙ্গবন্ধু সড়কের ফুটপাত দখলে হকার

প্রায় এক মাসেরও বেশী সময় পর নারায়ণগঞ্জ শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কের ফুটপাতে আবারও হকার বসতে শুরু করেছে। বৃহস্পতিবার ১৮ জানুয়ারী বিকেল থেকেই হকারদের অনেকে ফুটপাতে বসতে থাকে। ওই সময়ে পুলিশ একাধিকবার উচ্ছেদ অভিযান চালালেও ফাঁকে ফাঁকে ফের বসতে থাকে হকাররা। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র আইভী অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে এমন সংবাদে হকাররা ফুটপাতে জানা গেছে।

জানা গেছে, গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর থেকে নারায়ণগঞ্জ শহরে হকার উচ্ছেদ শুরু করে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও সিটি করপোরেশন। এরপর থেকে শহরে সভা সমাবেশ বিক্ষোভ মিছিল স্মারকলিপি ও সড়ক অবরোধের কর্মসূচী পালন করে আসতে থাকে হকাররা। ১৪ জানুয়ারী সকালে এমপি সেলিম ওসমানের একটি চিঠি নগর ভবনে মেয়রের কাছে পৌছে দেয়া হয়। এতে সেলিম ওসমান ৩ টি বিকল্প স্থানের প্রস্তাবনা করেন। ওইদিনই সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে প্রেরিত চিঠিতে ৪টি বিকল্প স্থানের প্রস্তাবনা করা হয়। পরদিন ১৫ জানুয়ারী বিকেলে শহরের চাষাঢ়ায় সলিমুল্লাহ সড়কে হকারদের সমাবেশ থেকে এমপি শামীম ওসমান ঘোষণা দেন, আমি শামীম ওসমান নির্দেশ দিলাম আগামীকাল (১৬ জানুয়ারী) বিকেল ৫টা থেকে শহরে হকার বসবে। আর আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রতিদিন বিকেল ৫টা হতে রাত ১০টা পর্যন্ত হকার বসবে একটি নিয়ম শৃঙ্খলার মধ্য দিয়ে। এর মধ্যে তাদের বিকল্প ব্যবস্থা করতে হবে। প্রয়োজনে আমাকেও ডাকতে পারেন। আমি পুলিশ প্রশাসনকে বলতে চাই কোন পুলিশ লাথি তো দূরের কথা গালিও দিতে পারবে না। আর হকারদের বলবো যদি আমাদের কেউ মারধর করে মার খাবেন তারপর দেখবেন শামীম ওসমান এর পাল্টা জবাব কী নেয়। এটা আমার কোন হুকুম বা আদেশ না এটা আমার নির্দেশ। হকারদের বিকল্প ব্যবস্থা না করে যদি উঠানোর চেষ্টা করেন তাহলে সেটা হবে শামীম ওসমানের মৃত্যুর পর মৃত্যুর আগে না।

এদিকে শামীম ওসমানের ওই ঘোষণার পরদিন ১৬ জানুয়ারী বিকেলে ফুটপাতে ফের হকার বসানো নিয়ে চাষাঢ়া এলাকায় এমপি শামীম ওসমান সমর্থক ও হকারদের সঙ্গে সিটি মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর সমর্থকদের মধ্যকার সৃষ্ট সংঘর্ষে রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। ব্যাপক সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে সিটি মেয়র আইভী, নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সেক্রেটারী শরীফউদ্দিন সবুজ, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন, জেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল কাদির, স্বেচ্ছাসেবক লীগের শহরের সভাপতি জুয়েল হোসেন, নিয়াজুল, হকার্স শ্রমিকলীগের নেতা পলাশ, রাশেদুল, সবুজসহ উভয়পক্ষের অন্তত অর্ধশতাধিক ব্যাক্তি আহত হন।
এদিকে বুধবার বিকেলে হকার সংগ্রাম পরিষদের নেতাদের সঙ্গে এক বৈঠকে শহরের বিবি রোড (বঙ্গবন্ধু সড়ক) ছাড়া শহরের অন্যান্য সড়কগুলোতে হকারদের বসার জন্য মৌখিকভাবে অনুমতি দিয়েছিল নারায়ণগঞ্জের প্রশাসনের উর্ধ্বতনরা। তবে ওইদিনই বিক্ষোভে ফুঁসে উঠে হকাররা। এসময় হকারেরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, ‘হকারেরা গুলি খেয়েছে, মার খেয়েছে, দরকার পড়লে আরো খাবে কিন্তু বিবি রোড সহ সকল সড়কে হকার বসতে দিতে হবে। আর হকার বসলে সকল সড়কে বসবে আর না বসলে কোন সড়কেই বসবেনা।’

বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারী) শহরের চাষাঢ়া বঙ্গবন্ধু সড়ক হতে ২নং রেলগেইটসহ ডিআইটি এলাকায় হকাররা বিকেল হতে দোকানপাট খুলতে দেখা গেছে। এর আগে বুধবার জেলা প্রশাসক ও জেলা পুলিশ সুপার হকারদের সাথে বৈঠক করে মেট্রো সিনেমা হলের সামনে হকারদের বসার জন্য অনুমতি দিয়েছিলেন। কিন্তু সাধারণ হকাররা প্রশাসনের সেই প্রস্তাবকে প্রত্যাখ্যান করে দেয়। 

নারায়ণগঞ্জ হকার আন্দোলন সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক আসাদুল ইসলাম আসাদ জানান, আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। প্রশাসন আমাদেরকে বঙ্গবন্ধু সড়ক ছাড়া অন্য সড়কে বসার অনুমতি দিয়েছে। কিন্তু আমাদের সাধারন হকাররা তা মেনে নিতে পারছে না। পেটের দায়ে কিছু হকার বসলেও হকার সমিতির পক্ষ হতে কোন ধরনের নির্দেশনা নাই। তবে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি সেলিম ওসমান চিকিৎসা শেষে দেশে আসলে ওনার সাথে এবং প্রশাসনের সাথে আলোচনার পর পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

দীর্ঘদিন হকার আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়া জেলা সিপিবি ও ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি হাফিজুল ইসলাম জানান, আমরা প্রশাসনের সিদ্ধান্ত হকারদের জানিয়ে দিয়েছি। কিন্তু বেশীরভাগ হকারই হচ্ছে বঙ্গবন্ধু সড়কের। এজন্য তারা এ সিদ্ধান্তকে মেনে নেয়নি। তবে এর আগেও তাদেরকে নিয়ন্ত্রন করাও যায়নি। তারা সুযোগ পেলেই বঙ্গবন্ধু সড়কে বসে পড়ছে।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুর রাজ্জাক জানান, হকারদের বঙ্গবন্ধু সড়ক ছাড়া মেট্রো সিনেমা হলের সামনে বসার জন্য প্রশাসনের পক্ষ হতে হকারদের অনুমতি দেয়া হয়েছে। তারা সেখানেই বসতে পারে। অন্য সড়কে বসতে পারবে না। বঙ্গবন্ধু সড়কে ফুটপাতে কিছু হকার দোকান পাট খুলে বসলেও রাত সাড়ে ৭টার দিকে পুলিশ তা ইচ্ছেদ করে দেয়া হয়।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ