৭ শ্রাবণ ১৪২৫, সোমবার ২৩ জুলাই ২০১৮ , ৩:৪২ পূর্বাহ্ণ

শহরে নো পার্কিংয়ে ‘পার্কিং’


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:৩৫ পিএম, ২ এপ্রিল ২০১৮ সোমবার | আপডেট: ০৩:৩৫ পিএম, ২ এপ্রিল ২০১৮ সোমবার


শহরে নো পার্কিংয়ে ‘পার্কিং’

নগরীর ফুটপাতের অবমুক্ত হলেও বন্ধ হয়নি অবৈধ পার্কিং। বড় করে সাইনবোর্ড বা ফেস্টুনে ‘নো পার্কিং’ লেখা থাকলেও অন্ধের মতো সেইসব জায়গায় অহরহ গাড়ি রেখে রাস্তা দখল করা হচ্ছে। যার ফলে প্রতিনিয়তই সৃষ্টি হচ্ছে যানজট।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জে প্রধান ও অন্যতম বঙ্গবন্ধু সড়ক। তবে এ সড়কের ফুটপাত দখল, দিনের বেলায় ট্রাক প্রবেশ ও অবৈধ পার্কিংয়ের কারণে সৃষ্টি হত সার্বক্ষনিক যানজট। সম্প্রতি পুলিশ প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপে বঙ্গবন্ধু সড়কের ফুটপাতের অবৈধ দখল উচ্ছেদ করা হয়। এছাড়াও জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও সাংসদদের হস্তক্ষেপে বন্ধ হয় নগরীতের ট্রাক প্রবেশ। যার ফলে নগরীতের যানজটের মাত্র একেবারে কমে আসে। কিন্তু যানজট পূর্নাঙ্গ ভাবে শেষ হচ্ছে না। বঙ্গবন্ধু সড়কের চাষাঢ়া থেকে শুরু করে মন্ডলপাড়া ব্রীজ পর্যন্ত সব ছোট বড় ভবন ও মার্কেটের সামনে অবৈধভাবে পাকিং করে রাস্তার একটি অংশ দখল করে রায় সৃষ্টি হয় যানজট। যার মধ্যে উল্লেখ্য যোগ্য হলো নগরীর মার্ক টাওয়ার, হক প্লাজা, পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার, গ্র্যান্ডহল, বন্ধন কমিউনিটি সেন্টার, উকিলপাড়া থেকে মৃধা টাউন পর্যন্ত, সমবায় মার্কেট, লুৎফা টাওয়ার, সায়াম প্লাজা, সুগন্ধা প্লাস সহ ডিআইটি এলাকায় উভয় পাশে মার্কেটের সামনে গাড়ি পার্কিং করে রাখা হয়। তবে পুলিশ প্রশাসন এ পার্কিং উচ্ছেদের কোন পদক্ষেপ দেখা যায়নি।

২ এপ্রিল সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, বঙ্গবন্ধু সড়কের চাষাঢ়া থেকে ২নং রেল গেট পর্যন্ত উভয় পাশের রাস্তা দখল করেছে ব্যক্তি মালিকানাধীন গাড়িগুলো। তবে ওইসব গাড়ির সামনেই সাইনবোর্ডে লেখা রয়েছে ‘নো পার্কিং’। ওই লেখার তোয়াক্কা না করেই রাস্তা দখল করে গাড়ি পাকিং করা হচ্ছে। আর তাতে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে সমগ্র শহরে।

চাষাঢ়া এলাকার বাসিন্দা হুমায়ূন আহমেদ বলেন, ‘নগরীতে একের পর এক বহুতল ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। কিন্তু ওইসব ভবনের কোন পার্কিংয়ের ব্যবস্থা নেই। যার ফলে ব্যক্তি মালিকানাধীন গাড়ি গুলো নগরীর গুরুত্বপূর্ণ বঙ্গবন্ধু সড়কের পাশে রাখতে হচ্ছে। এতে সৃষ্টি হচ্ছে যানজট।’

তিনি আরো বলেন, ‘নগরীতের ভবন নির্মাণে রাজউক কিংবা সিটি করপোরেশনের নির্দেশনা না মানার কারণেই মূলত পাকিং হচ্ছে না। রাজউক ও সিটি করপোরেশন এ বিষয়ে তদারকি করলে অবশ্যই পার্কিংয়ের ব্যবস্থা হবে এবং নগরবাসী সুবিধা পাবে। তাছাড়া যেসকল আবাসিক পুরাতন ভবন ছিল সেগুলো ইদানিং বাণিজ্যিক ভবন হিসেবে করা হচ্ছে। যার মধ্যে অন্যতম হাসনাত স্কয়ার, সায়াম প্লাজা, লুৎফা টাওয়ার অন্যতম। এগুলো ছাড়াও মার্ক টাওয়ার, হক প্লাজার নিচে পার্কিংয়ের ব্যবস্থা থাকলেও মার্কেটের ক্রেতাদের ব্যবহার করার জন্য সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না। যার জন্য গাড়িগুলো রাস্তায় রাখা হচ্ছে। এসবের জন্য জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, সিটি করপোরেশন ও রাজউক যৌথ উদ্যোগ নিতে হবে। তবেই সমাধান আসবে।

গলাচিপা এলাকার বাসিন্দা সাঈদ আহমেদ বলেন, ‘ফুটপাত অবমুক্ত করায় পুলিশ প্রশাসনকে ধন্যবাদ। এখন এসব ব্যক্তি মালিকানা গাড়িগুলোর বিরুদ্ধে অভিযান করলে উপকৃত হবো। এ গাড়িগুলো শুধু জরিমানা নয় প্রয়োজনে শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। তাহলে নগরীতে যানজট থেকে উপকৃত হবে নগরবাসী।’

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ