১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, সোমবার ২৮ মে ২০১৮ , ৩:৫৭ অপরাহ্ণ

অবশেষে শীতলক্ষ্যায় বহুল প্রতিক্ষিত দু’টি ফেরিঘাটের অনুমোদন


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:০২ পিএম, ২৭ এপ্রিল ২০১৮ শুক্রবার | আপডেট: ০২:০২ পিএম, ২৭ এপ্রিল ২০১৮ শুক্রবার


অবশেষে শীতলক্ষ্যায় বহুল প্রতিক্ষিত দু’টি ফেরিঘাটের অনুমোদন

অবশেষে মিলেছে শীতলক্ষ্যায় বহুল প্রতিক্ষিত দু’টি ফেরীর প্রশাসনিক অনুমোদন। সম্প্রতি সড়ক ও সেতু মন্ত্রনালয় ওই দু’টি ফেরীঘাট স্থাপনের বিষয়ে প্রশাসনিক অনুমোদন দিয়েছে। এতে করে শীতলক্ষ্যার দু’টি পয়েন্টে ফেরীঘাট স্থাপনের কার্যক্রম দ্রুতগতিতে এগুবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তবে মন্ত্রনালয় কর্তৃক প্রশাসনিক অনুমোদন পাওয়ার বেশ কিছুদিন পূর্বেই হাজীগঞ্জ ও নবীগঞ্জ খেয়াঘাটে ফেরীতে যানবাহন উঠা নামার এপ্রোচ রোড তৈরি করেছে সড়ক ও জনপথ নারায়ণগঞ্জ বিভাগ।

জানা গেছে, গত বছরের ২৩ নভেম্বর বন্দরে সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে নির্মিত, শামসুজ্জোহা এমবি ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়, নাগিনা জোহা উচ্চ বিদ্যালয় এবং শেখ জামাল উচ্চ বিদ্যালয় নামের ৩টি স্কুলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে ছিলেন সড়ক ও সেতুমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। দলের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পর নারায়ণগঞ্জে সেটির ছিল তাঁর প্রথম আগমন। ওই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শীতলক্ষ্যা নদীতে নবীগঞ্জ-হাজীগঞ্জ খেয়াঘাট দিয়ে চতুর্থ শীতলক্ষ্যা সেতু নির্মানের জন্য জোরালো দাবী তুলে বন্দরবাসী। জনগণের দাবীকে আমলে নিয়ে ১৫ দিনের মধ্যে নবীগঞ্জ খেয়াঘাট দিয়ে ফেরী সার্ভিস চালু করার ঘোষণা দিয়ে ছিলেন ওবায়দুল কাদের। নবীগঞ্জ দিয়ে সেতু নির্মাণ না হওয়া পর্যন্ত সেখানে ফেরী চলাচল অব্যাহত থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।

মন্ত্রীর ওই আশ্বাসের বেশ কিছুদিন পরে হাজীগঞ্জ ও নবীগঞ্জ খেয়াঘাটে ফেরীতে যানবাহন উঠা নামার এপ্রোচ রোড (র‌্যাম) নির্মাণের কাজ শুরু করে সড়ক ও জনপথ নারায়ণগঞ্জ বিভাগ। চলতি বছরের ১১ জানুয়ারী নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের ক্যাফেটেরিয়ায় সড়ক ও জনপথ, বিআইডব্লিউটিএ, উপজেলা প্রশাসনের সঙ্গে ফেরীঘাট নির্মাণ কাজের অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। ওই সভা থেকে জানানো হয়, চলতি মাসের মধ্যেই হাজীগঞ্জ টু নবীগঞ্জ এবং ৫নং খোট টু সেন্ট্রালঘাটে পৃথক ভাবে দুটি ফেরী সার্ভিস চালু হতে যাচ্ছে। ইতোমধ্যেই হাজীগঞ্জ ও নবীগঞ্জ খেয়াঘাটে ফেরীতে যানবাহন উঠা নামার র‌্যাম তৈরির কাজ প্রায় শেষ পর্যায় রয়েছে। দু’একদিনের মধ্যে ৫নং খেয়াঘাট এবং সেন্ট্রাল খেয়াঘাটের ময়মনসিংহ পট্টি দিয়ে ফেরী সার্ভিসের র‌্যাম তৈরি কাজ শুরু হবে। গত ফেব্রুয়ারী মাসের শেষ দিকে হাজীগঞ্জ ও নবীগঞ্জ খেয়াঘাটে ফেরীতে যানবাহন উঠা নামার এপ্রোচ রোড (র‌্যাম) নির্মাণের কাজ শেষ হয়। তবে  ৫নং খেয়াঘাট এবং সেন্ট্রাল খেয়াঘাটের ময়মনসিংহ পট্টি দিয়ে ফেরী সার্ভিসের এপ্রোচ রোড (র‌্যাম) নির্মাণের কাজ অদ্যাবধি শুরুই হয়নি। জানা গেছে, একটি পয়েন্টে এপ্রোচ রোড নির্মাণ করা হলেও প্রশাসনিক অনুমোদনের অভাবে এতদিন ফেরী চলাচলের প্রক্রিয়া শুরু করতে পারেনি সড়ক ও জনপথ অধিদফতর।

এদিকে চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারী সড়ক ও জনপথ বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী হাজীগঞ্জ ও নবীগঞ্জ খেয়াঘাটে ১টি ফেরী এবং বিআইডব্লিউটিএ খেয়াঘাট এবং বন্দর সেন্ট্রাল খেয়াঘাটে ১টি ফেরীঘাট স্থাপনের বিষয়ে মন্ত্রনালয়কে পত্র দেন। সেই পত্রের আলোকে গত গত ২২ এপ্রিল সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব মোঃ হুমায়ন কবীর খোন্দকার দু’টি ফেরীঘাট স্থাপনের প্রশাসনিক অনুমোদন দেন।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ