১০ আষাঢ় ১৪২৫, রবিবার ২৪ জুন ২০১৮ , ১০:৪৫ অপরাহ্ণ

১৩ নং ওয়ার্ডে দুর্ভোগ : কারাগারে খোরশেদ, নির্বাচনী ছবিতে বিন্নী


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৫১ পিএম, ২৫ মে ২০১৮ শুক্রবার | আপডেট: ০৯:১৮ পিএম, ২৫ মে ২০১৮ শুক্রবার


১৩ নং ওয়ার্ডে দুর্ভোগ : কারাগারে খোরশেদ, নির্বাচনী ছবিতে বিন্নী

কয়েকদিনের বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতার ভোগান্তিতে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৩ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দারা। বৃষ্টির পানির সঙ্গে ড্রেনের ময়লা মিশে একাকার হয়ে যায়। দুর্গন্ধ বের হওয়া পানিতে চলাচল করতে গিয়ে চুলকানি সহ বিভিন্ন পানি বাহিত রোগ হচ্ছে। তবে বিগত কয়েক বছর ধরে বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হলেও এর কোন স্থায়ী সমাধান করা হচ্ছে। বর্তমান সমস্যা সমাধানে ওয়ার্ডে জনপ্রতিনিধিদের পাচ্ছেনা সেখানকার বাসিন্দারা।

গত বুধবার সকালে সরেজমিনে দেখা গেছে, গলাচিপা থেকে মাসদাইর বাজার পর্যন্ত রাস্তায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। বিশেষ করে গলাচিপা মোড় থেকে কুড়িপাড়া পর্যন্ত হাটু সমান পানি। রাস্তার পানি বিভিন্ন ভবনের নিচ তলার রুমে ঢুকে গেছে। একই সঙ্গে আশে পাশের দোকানগুলোতেও পানি ঢুকে গেছে। অস্থায়ী ইট দিয়ে দোকানের সামনে বাঁধ দেওয়া হয়েছে। আর বৃষ্টির কয়েকদিন আগে ড্রেনের ময়লা পরিস্কার করে রাস্তার পাশে জমিয়ে রাখায় সেই ময়লার সঙ্গে বৃষ্টির পানিতে মিছিলে দুর্গন্ধ ছাড়াচ্ছে। ওই পানিতে চলাচল করলেই চুলকানি হচ্ছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ১৩ নংওয়ার্ডের পানি নিষ্কাশনের ড্রেনগুলো দিয়ে দ্রুত পানি সরে যায় না। যার ফলে দুইদিন থেকে ৩ তিন পানি জমে থাকে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। আর একদিন পর টানা কয়েকদিন বৃষ্টি হলে সেখানে হাঁটু পানি হয়ে যায়। মূলত ওই এলাকা সব থেকে নিচু। ফলে পানি নিস্কাশন হয় বুড়িগঙ্গা নদীর দিকে। আর এসব এলাকার পানি নিষ্কাশনের একমাত্র পথ ছিল বোয়ালিয়া খাল। বর্তমানে সেই খাল বালু দিয়ে ভরাট কর রাস্তা করা হয়েছে। এবং খালের পরিবর্তে ড্রেন নির্মাণ করা হয়েছে। ওইসব ড্রেন দিয়েও ভালো ভাবে পানি নিষ্কাশন হচ্ছে না।’

গলাচিপা এলাকার বাসিন্দা নাছিরউদ্দিন বলেন, ‘বৃষ্টি হলেই গলাচিপা এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। শহরের আরো এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয় কিন্তু বৃষ্টি শেষ হওয়ার কয়েক ঘন্টার মধ্যে পানি সরে যায়। এভাবে জমে থাকে না। এক মাত্র গলাচিপা এলাকা থেকে মাসদাইর বাজার পর্যন্ত এ রাস্তায় পানি জমে থাকে। এ পানি থেকে দুর্গন্ধ বের হয় ও মানুষের বিভিন্ন পানিবাহিত রোগ সৃষ্টি হয়। 

কুড়িপাড়া এলাকার বাসিন্দা তাবিদ হোসেন বলেন, বোয়ালিয়া খাল বন্ধ করে ড্রেন দিয়ে পানি নিষ্কাশনের চেষ্টা করলে কি পানি দ্রুত কমবে। এর জন্য সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে বিশেষ উদ্যোগ নিতে হবে।’

ওই এলাকার একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা জেসমিন বেগম বলেন, ‘ড্রেন থেকে রাস্তার পাশে ময়লা জমিয়ে রাখায় এবং দ্রুত ময়লা নিষ্কাশনের জন্য কাউন্সিলর খোরশেদকে ফোন দিয়ে জানতে পারি সে কারাগারে আর মহিলা কাউন্সিলর শুধু ভোটের সময় ছবি দেখি বাস্তবে দেখা যায় না। কয়েক দিন ধরে আমরা জলাবদ্ধতা একটু খোঁজও নেয়নি নারী কাউন্সিলর। এ বিষয়ে মেয়রকে উদ্যোগ নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি।’

১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয়ের সদস্য সচিব আলী সাবাব টিপু বলেন, গত দুই মাস ধরে কাউন্সিলকে কারাগারে। এ বিষয়ে নারী কাউন্সিলর শারমীন হাবিব বিন্নীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।’

কাউন্সিলর শারমীন হাবিব বিন্নীর সঙ্গে একাধিকবার ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ