গরমে জামদানি মেলায় ক্রেতা উপস্থিতি কম, প্রত্যাশায় ব্যবসায়ীরা

সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:০৭ পিএম, ২৭ মে ২০১৮ রবিবার

গরমে জামদানি মেলায় ক্রেতা উপস্থিতি কম, প্রত্যাশায় ব্যবসায়ীরা

নারায়ণগঞ্জে ঈদকে কেন্দ্র করে শহরের প্রাণকেন্দ্র চাষাঢ়া জিয়া হলে অস্থায়ী মেলা বসানো হয়েছে। জামদানি ও তাঁতবস্ত্র শিল্প মেলা নামে এই মেলায় বিভিন্ন প্রসাধনী, অলংকার, শাড়ি, সেলোয়ার কামিজ, শার্ট, প্যান্ট, পাঞ্জাবি, জুতাসহ নানা ধরনের সামগ্রীর সমাহার বসেছে। প্রতিদিন সকাল থেকে রাত অবধি এই মেলা খোলা থাকে।

রবিবার (২৭ মে) সরেজমিনে মেলায় ঘুরে দেখা গেছে ক্রেতাদের তেমন উপস্থিতি নেই। আর তীব্র গরমে বিক্রেতারা ঠাঁই  দাঁড়িয়ে বসে অস্থির হয়েও অপেক্ষা করছেন ক্রেতাদের। তবে ক্রেতার চেয়ে দর্শনার্থীর সংখ্যাই বেশি দেখা গেছে। তবে প্রায় প্রতিটি দোকানের পণ্যের উপর বিশেষ মূল্যছাড় দিচ্ছে।

মেলায় বিক্রেতা সাব্বির জানান, সকাল থেকে ঠাঁয় বসে আছি এখনো বেচাবিক্রি শুরুই করতে পারিনি। যেই তীব্র গরম মানুষ কিভাবে আসবে, তবে বিকেলের পর থেকেই প্রতিদিন ক্রেতা পাওয়া যায় আশা করছি বিকেলের পরেই ক্রেতারা আস্তে শুরু করবে।

আরেক বিক্রেসা সামসুদ্দিন জানান, আশা করছি ১৫ রোজার পর থেকেই বেচাকেনা পুরোদমে শুরু হবে। এখন তাই একটু মন্দা যাচ্ছে। আমাদের এখানে প্রতিটি দোকানেই বিশেষ মূল্যছাড়ের ব্যবস্থা রয়েছে। জামদানি ও তাতবস্ত্রের বিশেষ সমাহারও রয়েছে।

ক্রেতা ফাহমিদা বেগম জানান, কিনতে এসেছিলাম, বের হয়ে এত গরমে অস্থির হয়ে গেছি। রোজার দিন তো, আবার বিকেলের পর বের হবো। দেখি তখন কেনাকাটা করবো। আপাতত টুকটাক কিছু কিনেই ফিরে যাবো।

তবে ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি ক্রেতারাও বলছেন ১৫ রোজার পর থেকেই মার্কেটে প্রধান ভীড় হতে শুরু করবে। তাই ১৫ রোজাকে টার্গেট করে ব্যবসায়ীরা প্রত্যাশায় রয়েছেন।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও