৫ শ্রাবণ ১৪২৫, শুক্রবার ২০ জুলাই ২০১৮ , ২:৩৫ অপরাহ্ণ

দুই জঙ্গী আটক : নারায়ণগঞ্জে রয়েছে সন্ত্রাস বিরোধী মামলা


সিদ্ধিরগঞ্জ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৪:৫২ পিএম, ১৫ জুন ২০১৮ শুক্রবার | আপডেট: ১০:৫২ এএম, ১৫ জুন ২০১৮ শুক্রবার


দুই জঙ্গী আটক : নারায়ণগঞ্জে রয়েছে সন্ত্রাস বিরোধী মামলা

নারায়ণগঞ্জের আদমজীতে অবস্থিত র‌্যাব-১১ এর একটি টিম বৃহস্পতিবার ১৪ জুন রাত ৯টায় রাজধানীর উত্তরা রাজলক্ষী মার্কেটে অভিযান পরিচালনা করে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন জেএমবির সহোদর ২ জন সক্রিয় সদস্য আলম মোঃ আনোয়ার আজিজ অনু (৩৯) ও মোঃ আফছার আজিজ ওরফে অভিকে (৩৪) আটক করেছে। তাদের বাবার নাম দিদারুল আলম।

এ দুইজনের মধ্যে আনোয়ার আজিজ অনুর বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ ও বন্দর থানায় সন্ত্রাস বিরোধী আইনে দুটি মামলা রয়েছে।

র‌্যাব জানায়, আনোয়ার আজিজ অনু ১৯৯৪ সালে নিউ মডেল বহুমুখি উচ্চ বিদ্যালয়, শুক্রাবাদ, ঢাকা হতে এসএসসি (বিজ্ঞান বিভাগ), ১৯৯৬ সালে ঢাকা সিটি কলেজ হতে এইচএসসি, ২০০০ সালে ঢাকার তেজগাঁও কলেজ হতে ডিগ্রী পাশ করে এবং ২০০৫ সালে সিআইআইটি অধীনে জিগাতলা, ঢাকা হতে এমবিএ (হিউম্যান রির্সোচ ম্যানেজমেন্ট) সম্পন্ন করে। সে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন আইটি ফার্ম, গার্মেন্টস এর চাকুরীসহ বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত ছিল। সর্বশেষ একটি মিষ্টির দোকানের ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিল।

মোঃ আফছার আজিজ অভি (৩৪), ২০০২ সালে নিউ মডেল বহুমুখি উচ্চ বিদ্যালয় শুক্রাবাদ হতে এসএসসি পাশ করে। এরপর সে লেখাপড়া অসমাপ্ত রেখে এমব্রয়ডারীর ব্যবসা শুরু করে। সর্বশেষ সে ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রাইভেট কার চালাত।

আনোয়ার আজিজ অনু, র‌্যাব-১১ কর্তৃক গ্রেফতাকৃত মোঃ মাসুদ আলমের মাধ্যমে ২০১২ সালে উগ্রবাদীতার প্রতি উদ্বুদ্ধ হয়। এসময় সে হানাফি থেকে সালাফি মতাদর্শে দীক্ষিত হয়। এরপর জসিমউদ্দিন রাহমানীসহ বিভিন্ন উগ্রবাদী আলেমদের সংস্পর্শে আসে। ২০১৩ সালে গ্রেফতারকৃত জেএমবি সদস্য মাসুদ তাকে অপর গ্রেফতারকৃত জেএমবি সদস্য আবু ইমন এর সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়। আবু ইউশার মাধ্যমে সে জেএমবিতে আনুষ্ঠানিকভাবে বায়াতের মাধ্যমে যোগদান করে। এরপর থেকে সে জেএমবির দাওয়াতী কাজের সাথে জড়িত হয়। তার মাধ্যমে ১০/১২ জন জেএমবি সদস্য সংগঠনে যোগদান করে। সে তার ভাই মোঃ আফছার আজিজ অভিকে জেএমবির দাওয়াত দিলে অভি জেএমবির দাওয়াত গ্রহণ করে এবং তার বাসায় আবু ইউশা ইমন জেএমবির বায়াত দেয়। এরপর থেকে দুই ভাই একত্রে সক্রিয়ভাবে জেএমবির দাওয়াতী কাজ শুরু করে। দাওয়াতী কাজের পাশাপাশি ইমনের নির্দেশে সামরিক প্রশিক্ষণ গ্রহন করার জন্য নিজেরা রাজধানীর বিভিন্ন জিমনেশিয়ামে ব্যায়াম করা শুরু করে। ২০১৫ সালে অনু-অভির নিজ বাসায় স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র একে-৪৭ দিয়ে সামরিক প্রশিক্ষণ নেয়। ইমন তাদেরকে এই অস্ত্র প্রশিক্ষণ দেয়। ২০১৫ সালের শেষ দিকে আব্ ুইউশা ইমন অপর জেএমবি সদস্য মোঃ আনোয়ারের মেয়েকে বিয়ে করে।

এই বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা অনু-অভির বাসায় সম্পন্ন হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে তৎকালীন জেএমবির প্রধান সারোয়ার জাহানসহ শুরা সদস্য তাসলিম, রিপনসহ আরোও অনেকে উপস্থিত ছিল। এরপর থেকে সংগঠনে অনু-অভির গুরুত্ব বেড়ে যায়। বিভিন্ন সময়ে জেএমবির গুরুত্বপূর্ণ মিটিং ও আলোচনা অনু-অভির বাসায় সম্পন্ন হত। অনু-অভি ইতিপূর্বে গ্রেফতারকৃত নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন জেএমবির বিভিন্ন স্তরের সক্রিয় সদস্য আবু ইউশা মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ ওরফে ইমন, আনোয়ার হোসেন, সাইফুল গনি চৌধুরী, ইমরান আহমেদ, মোঃ নবীন হোসেন রাববী, মোঃ ওয়ালীউল্লাহ চিশতি ওরফে জনিমোহাম্মদ, আল-আমীন ওরফে রাজিব ও মোঃ মাসুদ আলম এর সাথে তারা দেশের বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন সময়ে যাতায়াত করেছে এবং দাওয়াতী কাজ পরিচালনা ও অর্থ দিয়ে সাহায্য করেছে বলেও স্বীকার করে। অনু-অভির বাবা-মা জেএমবি থেকে ফেরানোর জন্য অনেক চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। অনু বর্তমানে উত্তরা এলাকার জেএমবির দাওয়াতী শাখার প্রধান সমন্বয়কারী হিসেবে কাজ করত।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ