৭ আশ্বিন ১৪২৫, শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ৫:৫৪ অপরাহ্ণ

নবীগঞ্জ ঘাটে ফেরী নিয়ে যাত্রী আক্ষেপ


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:২৭ পিএম, ২৪ জুন ২০১৮ রবিবার


ফাইল

ফাইল

ঈদ-উল-ফিতরের মাত্র কয়েকদিন আগে হাজীগঞ্জ-নবীগঞ্জ খেয়াঘাটে শীতলক্ষ্যা নদীতে চালু হওয়া ফেরী সার্ভিস নিয়ে যাত্রীদের মাঝে আক্ষেপ দেখা দিয়েছে। সকাল ১০টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত চলাচলকারী এই সার্ভিসের ফলে বাকি সময়টুকুতে যাত্রীদের বিড়ম্বনা পোহাতে হচ্ছে জানিয়েছেন যাত্রীরা। এছাড়া অসুস্থতা সহ ইমাজেন্সি কাজের জন্য গভীর রাতে এই সার্ভিটি ব্যবহার করতে না পারায় যাত্রীরা সবচেয়ে বেশি আক্ষেপ করেছেন। এদিকে ফেরী সার্ভিস চালু করায় এমপি সেলিম ওসমানকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

জানা গেছে,  ১৪জুন সকাল ১১টায় দোয়া অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে হাজীগঞ্জ-নবীগঞ্জ খেয়াঘাটে ফেরী সার্ভিসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। হাজীগঞ্জ-নবীগঞ্জ খেয়াঘাট দিয়ে ফেরী সার্ভিস চালু হলে সোনারগাঁও, আড়াইহাজার উপজেলার সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা আরো সহজতর হয়ে উঠবে বলে মনে করছেন উক্ত রুটে যাতায়াতকারীরা।

এর আগে ২০১৭ সালের ২৩ নভেম্বর বন্দরে সাংসদ সেলিম ওসমানের ব্যক্তিগত অর্থায়নে নির্মিত শামসুজ্জোহা এমবি ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়, নাগিনা জোহা উচ্চ বিদ্যালয় এবং শেখ জামাল উচ্চ বিদ্যালয় তিনটির আনুষ্ঠিক উদ্বোধন করতে আসেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সে সময় স্থানীয়দের দাবীর পরিপ্রেক্ষিতে ওবায়দুল কাদের ১৫ দিনের মধ্যে ফেরী সার্ভিস চালুর ঘোষণা দিয়ে ছিলেন। কিন্তু আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক ঘোষিত ১৫ দিন অতিবাহিত হওয়ার পর স্থানীয় সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে ৬মাসের মাথায় এসে চালু হচ্ছে।

শীতলক্ষ্যা সেতু নির্মাণের আগে বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে ফেরী সার্ভিস চালু করা হলেও তাতেও বিপত্তি দেখা দিচ্ছে। কারণ দিন ও রাতের একটা বড় অংশ এই সার্ভিসটি চলাচল করেনা। বিশেষ করে রাতের বেলা এই সার্ভিসটি বন্ধ থাকে। রাত ৮ টার পর এই সার্ভিসটি বন্ধ করে দেয়া হয়। এ জন্য রাতের বেলা সবচেয়ে বেশি বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে যাত্রীদের।

যাত্রী মতিউর মিয়া বলছেন, ‘সকাল ১০ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত ফেরী চলাচল করে। কিন্তু বাকি সময়টুকুতে আমাদের ভীষণ সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। কারণ রাতের বেলাতে অনেক সময় অসুস্থ রোগীদের রাজধানী ও শহরের ভাল হাসপাতালে ভর্তি করতে হলে এই ফেরী চলাচলের গুরুত্ব অপরিহার্য। কিন্তু এই সার্ভিসটি চালু করার ফলে আমাদের অনেক সুবিধা হয়েছে। কিন্তু নির্দিষ্ট সময়ে চলাচল করার কারণে অনেক সময় ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। তাই ফেরী চলাচলের সময়সীমা বাড়িয়ে দিলে যাত্রীদের ভোগান্তি অনেকটা কমে আসবে।

যাত্রীরা অভিযোগ করে বলছেন, ‘শীতলক্ষ্যা নদীতে সেতুর বিকল্প হিসেবে ফেরী সার্ভিস চালু করলেও নির্দিষ্ট সময়ে চলাচল করায় যাত্রীদের ভোগান্তি থেকেই গেল। আর রাতের বেলা খুব কম সময়ে ফেরী সার্ভিস চলাচল করায় যাত্রীরা এ থেকে খুব একটা সুফল পাচ্ছেনা। তাই এসব বিষয়কে মাথায় রেখে ফেরীর সময়সীমা বাড়ানো ছাড়া কোন উপায় নেই। তবে ফেরী সার্ভিস চালু করায় এমপি সেলিম ওসমানকে ধন্যবাদ।’

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ