৭ শ্রাবণ ১৪২৫, সোমবার ২৩ জুলাই ২০১৮ , ৬:২৬ পূর্বাহ্ণ

পিন্টুর সব কাজের সহায়ক ছিলেন বাপেন


স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৫৫ পিএম, ১১ জুলাই ২০১৮ বুধবার | আপডেট: ০২:৫৫ পিএম, ১১ জুলাই ২০১৮ বুধবার


পিন্টুর সব কাজের সহায়ক ছিলেন বাপেন

নারায়ণগঞ্জ শহরের কালীরবাজার এলাকার স্বর্ণ ব্যবসায়ী প্রবীর ঘোষকে হত্যার ঘটনার মাস্টারমাইন্ড খ্যাত পিন্টু দেবনাথের অনেক কাজের সহায়ক ছিলেন তারই বন্ধু বাপেন ভৌমিক বাবু। দুইজন প্রায়শই একসঙ্গে চলাফেরা করতেন। তবে তাদের সঙ্গে থাকতেন প্রবীরও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও।

তদন্ত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পিন্টুর পাশাপাশি পুরো হত্যাকান্ডের বড় একজন সাক্ষী হলেন বাবু। সে নিজেও কিলিং মিশনে জড়িত। তবে পুরো কাজটি করেছে পিন্টু। তাকে সহযোগিতা করেছে বাবু।

১০ জুলাই মঙ্গলবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, প্রাথমিক তদন্তে উঠে এসেছে যে প্রবীর ঘোষের এক ভাই সৌমিক ঘোষ ইতালী প্রবাসী। সেখান থেকে মোটা অংকের টাকা পাঠানো হয় প্রবীর ঘোষের কাছে। দীর্ঘদিন ধরে ওই টাকা লেনদেন হতো প্রবীর ও পিন্টুর মধ্যে। সম্প্রতি সৌমিক ঘোষ যখন দেশে আসে তখন থেকেই নিখোঁজ ছিল প্রবীর। সৌমিক দেশে আসার আগেই টাকার জন্য পিন্টুকে চাপ দিতে থাকে প্রবীর। এসব নিয়ে তাদের মধ্যে মনোমালিন্য দেখা দেয়। পরে পরিকল্পনা করেই প্রবীরকে ডেকে নিয়ে হত্যা করে পিন্টু ও তার দোকানের কর্মচারী বাপেন ভৌমিক বাবু। প্রাথমিকভাবে এও ধারণা করা হচ্ছে পিন্টু যে বাসাতে থাকে সে বাসার ফ্লাটেই প্রবীরকে হত্যার পর ওই বাসার নিচে সেপটিক ট্যাংকে লাশ ব্যাগে করে ফেলে দেওয়া হয়। পরে পালিয়ে বাপেন কুমিল্লা সীমান্তবর্তী এলাকাতে চলে যায়। সেখান থেকে প্রবীরের মোবাইলের সীম ব্যবহার করে নারায়ণগঞ্জে বিভিন্নজনের কাছে ম্যাসেজ পাঠায় বিষয়টি ভিন্ন দিকে নেওয়ার জন্য। প্রবীরের পরিবারের কাছে পাঠানো এসএমএসে লেখা ছিল ‘কালীরবাজারের রাঘাববোয়ালরা এর সঙ্গে জড়িত। উনাকে বিবি রোড থেকে তুলে নেয়া হয়েছে। ওকে পেতে মুক্তিপণ লাগবে ১ কোটি টাকা। চলে আসবে গুলিস্তান ফ্লাইওভারের নিচে।’

পরে প্রবীরের সেই মোবাইল নাম্বারটি বন্ধ করে ফেলে বাপেন। পরবর্তীতে বাপেন শহরের কালীরবাজার চলে আসে। সেখানে এসে মোবাইল সীম পরিবর্তনের পর ট্র্যাকিংয়ে বাপেন ধরা পড়ে। তখন বাপেন ও প্রবীরকে আটক করা হলে বেরিয়ে আসে মূল তথ্য।

নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার মঈনুল হক জানান, মূলত প্রযুক্তি ব্যবহার করেই বাপেন ও পিন্টুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কী কী কারণে প্রবীরকে হত্যা করা হয়েছে তার আরো আদ্যোপান্ত জানার চেষ্টা চলছে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ