এখনো শুকায়নি মাহির ক্ষতচিহ্ন, বর্বর স্বামী স্ত্রীর রিমান্ড আবেদন

৫ ভাদ্র ১৪২৫, সোমবার ২০ আগস্ট ২০১৮ , ৮:২৬ অপরাহ্ণ

এখনো শুকায়নি মাহির ক্ষতচিহ্ন, বর্বর স্বামী স্ত্রীর রিমান্ড আবেদন


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৫২ পিএম, ২২ জুলাই ২০১৮ রবিবার | আপডেট: ০২:৫২ পিএম, ২২ জুলাই ২০১৮ রবিবার


এখনো শুকায়নি মাহির ক্ষতচিহ্ন, বর্বর স্বামী স্ত্রীর রিমান্ড আবেদন

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার ইসদাইরে শিশু গৃহপরিচারিকা পিতৃ ও মাতৃহীন অনাথ মাহি (৮) আদালতে বর্বর নির্যাতনের ক্ষত চিহ্ন দেখিয়ে জবানবন্দি দিয়েছে।

২২ জুলাই রোববার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আবতাবুজ্জামানের আদালত মাহির জবানবন্দি গ্রহণ করেছেন। আদালত জবানবন্দী গ্রহণ শেষে অভিভাবক না পাওয়ায় মাহিকে গাজিপুরে শিশু কিশোর উন্নয়ন সংশোধনাগারে নিরাপদ হেফাজতে পাঠিয়েছে।

অপরদিকে নির্যাতনকারী পাষন্ড দম্পতি আতাউল্লাহ খোকন ও উর্মি আক্তারের বিরুদ্ধে ৭দিনের রিমান্ড আবেদন করেছে পুলিশ। সোমবার আদালতে রিমান্ড শুনানী অনুষ্ঠিত হবে।

কোর্ট পুলিশের এসআই হানিফ বলেন, অনাথ এই শিশুটির উপর অমানুষিক নির্যাতন করা হয়েছে। এখনো ডান হাতে গরম খুন্তির ছ্যাকার ঘা শুকায়নি। শরীরের বিভিন্ন স্থানে রয়েছে আঘাতের চিহ্ন। জবানবন্দি দেয়ার সময় মাহি সবই আদালতকে দেখিয়েছে। আদালত মাহিকে কারো হেফাজতে দেয়ার মত অভিভাবক না পাওয়ায় নিরাপদ হেফাজতে থাকার জন্য গাজিপুর শিশু কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রে পাঠিয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার এসআই ইলিয়াস জানান, ফতুল্লার পূর্ব ইসদাইর আনন্দনগর এলাকার শহীদুল্লাহর বাড়ির ভাড়াটিয়া আতাউল্লাহ খোকন ও উর্মি আক্তারের বাসায় ৩ মাস ধরে পিতৃ মাতৃহীন শিশু মাহিকে গৃহপরিচারিকা হিসেবে কাজে নেয়। এরপর থেকে শিশুটিকে প্রায় সময় বাসায় মারধর করত। শুক্রবার রাতে বাঁচাও বাঁচাও চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজনকে নিয়ে ওই দম্পতির বাসায় গিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে শিশুটিকে মুমর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। এঘটনায় জাকির হোসেন নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি দম্পতির বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ