৬ কার্তিক ১৪২৫, সোমবার ২২ অক্টোবর ২০১৮ , ৬:১৮ পূর্বাহ্ণ

UMo

ফেসবুকে প্রচারণায় জড়ো হয় সাধারণ শিক্ষার্থীরা, নোটপ্যাডে স্লোগান


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৫৯ পিএম, ১ আগস্ট ২০১৮ বুধবার


ফেসবুকে প্রচারণায় জড়ো হয় সাধারণ শিক্ষার্থীরা, নোটপ্যাডে স্লোগান

রাজধানীতের সড়ক দুর্ঘটনার দুই শিক্ষার্থী মৃত্যুর ঘটনায় নারায়ণগঞ্জে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র জনতা। সামাজিক যোগাযোগে মাধ্যম ফেসবুকে জেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের কর্মসূচি পালনের আহবান জানানো হয়। 

১ আগস্ট বুধবার সকাল ১০টা থেকে চাষাঢ়া গোল চত্বরে জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাধারণ শিক্ষার্থীরা দল বেধে কর্মসূচি পালন করতে জড় হয়। পূর্ব প্রস্তুতি না থাকায় শিক্ষার্থীরা তাদের নোট প্যাডের পেজ ছিড়ে তাতে বিভিন্ন রকমের শ্লোগান লিখে আন্দোলন কর্মসূচি পালন করে।

জানা গেছে, কোন রকম পূর্ব প্রস্তুতি ছাড়াই রাতারাতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সকল শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে অংশগ্রহণ করার আহবান জানানো হয়। ছাত্র জনতাদের আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী কয়েকজন শিক্ষার্থী রাতারাতি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে জড়ো করতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কয়েকটি পোস্ট করে শিক্ষার্থীদের এ আন্দোলন কর্মসূচির ব্যাপারে জানিয়ে সবাইকে অংশগ্রহণ করার আহবান জানানো হয়। রাতের মধ্যে ছড়িয়ে পড়া সেসব পোস্টের বদৌলতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাধারণ শিক্ষার্থীরা দলে দলে একত্রিত হয়ে জেলার প্রধান প্রধান সড়কের প্রায় সবগুলো অবরোধ করে ফেলে। এই আন্দোলন বিগত দিনের অনেক আন্দোলন কর্মসূচিকে ছাপিয়ে গেছে।

পূর্ব প্রস্তুতি ছাড়া শিক্ষার্থীরা আন্দোলন কর্মসূচি পালন করতে তাদের সাথে থাকা নোট প্যাডের পেজ ছিড়ে তাতে বিভিন্ন রকমের শ্লোগান লিখে কর্মসূচি পালন করে। এসময় তাদের নোট প্যাডের পেজগুলোতে দেখা গেছে, ‘আমার ভাই কবরে, খুনি কেন বাইরে। উই  ওয়ান্ট জাস্টিস। নৌ মন্ত্রীর পদত্যাগ চাই, করতে হবে। ইত্যাদি সব শ্লোগন তাদের নোট প্যাডের পেজে লেখা ছিল।’

এর মধ্যে শিক্ষার্থীরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ড্রেন পরিধান করেই আন্দোলন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন। আবার অনেকে বিদ্যাপাঠের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যাগ কাধে বহন করেই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন। আবার অনেকে শরীরে কাফনের কাপড় পরিধান করে মুখে রক্তবর্ণ লাল রঙ মেখে দুর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তির প্রতীকি হয়ে সড়কের শুয়ে থেকে কর্মসূচি পালন করেন।

রিনা নামের এক শিক্ষার্থী জানান, মঙ্গলবার রাতে ফেসবুকে একটি পোস্ট দেখতে পান। সেখানে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুই শিক্ষার্থীদের ন্যায় বিচারের দাবিতে আন্দোলন কমর্সূচির দাবি জানানো হয়। এছাড়া নৌ মন্ত্রী কথাতো আমরা বিভিন্ন গণমাধ্যমে দেখেছি। তাই এই ন্যায় সঙ্গত আন্দোলনে কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করতে আমি ভীষণ আগ্রহী ছিলাম। আমার সাথে আমার দুজন বান্ধবীও এসেছে।

রহমান আহম্মেদ নামের এক শিক্ষার্থী জানায়, ‘আমার এক বন্ধু আমাকে একটি পোস্ট মেসেঞ্জারে পাঠায়। সেই পোস্টে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন কর্মসূচিতে যোগ দেয়ার আহবান জানানো হয়। ন্যায় সঙ্গত আন্দোলন হওয়ার প্রেক্ষিতে আমি এই আন্দোলনে এসছি। আর আমার বন্ধুরাােত এসেছে। তাছাড়া আমরাও শিক্ষার্থী তাই শিক্ষার্থীদের অকালে ঝরে পড়ার বিষয়টি কতটা দুঃখজনক তা অনুধাবন করতে পারছি।

জানা গেছে, রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে দুই বাসের রেষারেষিতে শহীদ রমিজ উদ্দিন কলেজের দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পর মঙ্গলবার প্রথম দফায় নারায়ণগঞ্জে বিক্ষোভ দেখায় শিক্ষার্থীরা। সেদিন শুধু চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে শতাধিক শিক্ষার্থী মানববন্ধন করে নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খানের পদত্যাগ দাবী করেন। তবে সেদিনই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বুধবার সকাল থেকে ফের চাষাঢ়ায় অবস্থানের ঘোষণা দেন বিভিন্ন কলেজের শিক্ষার্থীরা।

সাধারণ ছাত্র জনতাদের এই আন্দোলন কর্মসূচিতে নেতৃত্বদানকারী কয়েকজনের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাহফুজুর রহমান, মাহাদির মোহাম্মদ অর্ক, আদনান রহমান আরমান, প্রীতি দে সহ প্রমুখ। তারা জানায়, তাদের দাবি না মানা পর্যন্ত আন্দোলন কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

rabbhaban

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ