২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, শনিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৮ , ১১:১৮ পূর্বাহ্ণ

rabbhaban

এবার সিরাজউদ্দৌলা সড়কে ডিভাইডার, বাড়বে যানজট


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:২৯ পিএম, ১৮ আগস্ট ২০১৮ শনিবার


এবার সিরাজউদ্দৌলা সড়কে ডিভাইডার, বাড়বে যানজট

নারায়ণগঞ্জ শহরের এক নং রেল গেট থেকে কালীরবাজার পর্যন্ত সিরাজউদ্দৌলা সড়কের মাঝে রোড ডিভাইডার স্থাপন কাজ চলছে। শহরের প্রধান সড়ক হওয়ার সুবাদে এ সড়ক দিয়ে ঢাকাগামী বাস চলাচল করে থাকে। তবে এই অপ্রশস্ত সড়কটিতে ডিভাইডার স্থাপনের ফলে বাস চলাকালীন অবস্থায় পথচারীরা চলাচল করতে পারেনা। তার উপরে সড়কের দুই পাশ দিয়ে হকার বসার ফলে অপ্রশস্ত সড়কটি আরো সরু হয়ে গেছে। এতে করে পথচারীদের চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

১৮ আগস্ট দুপুরে শহরের সিরাজউদ্দৌলা সড়কের ডিভাইডার স্থাপনের চিত্র সরেজমিনে দেখা গেছে।

এর আগে শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কে রিকশার জন্য আলাদা ডিভাইডার তৈরি করা হয়। কিন্তু রিকশা চালকেরা সেই আইন কখনোই মানে না। ফলে শহরে দেখা দেয় যানজট। এমনিতে সড়ক আরো সরু হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় সিরাজউদ্দৌলা সড়কে আবার ডিভাইডার তৈরি করা হচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, ‘ফলপট্টি থেকে নারায়ণগঞ্জ কলেজ হয়ে সিরাজউদ্দৌলা সড়কটি গিয়ে কালীর বাজার মোড়ে গিয়ে ঠেকেছে। সেই সড়কের মাঝে নতুন করে ডিভাইডার স্থাপনের কাজ শুরু হয়েছে গত কদিন ধরে। শহরের এই প্রধান সড়কটি এমনিতে অনেক অপ্রশস্ত যেকারণে প্রায় সময় যানজটের মত চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে যাত্রীদের। ডিভাইডার স্থাপনের কাজ অনেকাংশে এগুলেও পুরো কাজ সম্পন্ন হয়নি। এরই মধ্যে ঢাকাগামী বড় বাসগুলো চলাচলের সময় সড়কে আর বাকি জায়গা থাকেনা। এতে করে পথচারীদের বেশ বিড়ম্বনার শিকার হতে হচ্ছে। তার উপরে সড়কের দুই পাশ দিয়ে বসেছে হকার। হকাদের এই দখলদারিত্বের কারণে এই অপ্রশস্ত সড়কটি আরো সরু হয়ে গেছে। এমনকি সড়কের পশ্চিমপাশে দুই লাইনে হকাররা ফুটপাত ও সড়ক দখল করে বসেছে। এতে করে পথচারীতো দূরের কথা ছোট ছোট যানবাহনগুলো চলাচলে চরম বিড়ম্বনার শিকার হতে হচ্ছে।

তানিয়া নামের নারায়ণগঞ্জ কলেজের এক ছাত্রী জানায়, ‘এই সড়কটি এমনিতে বেশ সরু তার উপরে দুপাশ দিয়ে হকার বসছে। এই অবস্থায় ডিভাইডার স্থাপন করলে পথচারীদের চলাচলে আর কোন জায়গা বাকি থাকেনা। যেকারণে পথাচারীদের বিড়ম্বনার শিকার হতে হচ্ছে। এছাড়া একটি বাস কিংবা ট্রাক প্রবেশ করলে সেখান দিয়ে আর কোন যানবাহন প্রবেশ করতে পারেনা। যেকারণে প্রায় সময় দীর্ঘ যানজটের শিকার হতে চচ্ছে।’


 
লিন্ডা নামের এক পথচারী জানায়, ‘সড়কটিতে ডিভাইডার স্থাপনের আগে সড়কটি আরো প্রশস্ত করার দরকার ছিল। আর সড়কের দুপাশ ও ফুটপাত থেকে হকার উচ্ছেদ করার দরকার। তাহলে কিছুটা হলেও সড়কটি আরো প্রশস্ত হবে। এখন এই অবস্থায় ডিভাইডার স্থাপন করলে সড়কটি আরো সরু হয়ে যাবে। এতে করে সমস্যা আরো বাড়বে।
 
ফলপট্টি এলাকার সড়কের পাশের এক দোকানি জানায়, ‘সড়কে ডিভাইডার জনগণের উপকারের জন্য দেয়া হলেও সড়কটি বেশ সরু। যেকারণে ডিভাইডার স্থাপনের আগে সড়কের প্রশস্থতা বাড়াতে হবে। নতুবা সড়কে উল্টো যানজট বাড়বে।’

এদিকে গত বছরের ১৭ আগস্ট অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জের শহর থেকে যানজট নিরসনে নারায়ণগঞ্জ ৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান সড়কের মাঝের ডিভাইডারগুলো সরিয়ে দিতে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের কাছে প্রস্তাব করেছেন। অনুষ্ঠানে তিনি সড়কের মাঝে এসব ডিভাইডারের অপসারিত হলে যানজট অনেকাংশে কমে আসবে বলে তিনি বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

মহানগর -এর সর্বশেষ