বঙ্গবন্ধু সড়ক : ভরে না গর্ত সরে না ভোগান্তি

সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৪৩ পিএম, ৯ অক্টোবর ২০১৮ মঙ্গলবার



বঙ্গবন্ধু সড়ক : ভরে না গর্ত সরে না ভোগান্তি

নারায়ণগঞ্জ শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কের বিভিন্ন অংশে যেসব গর্ত হয়েছে তা এখনও পর্যন্ত মেরামতের কোন উদ্যোগ নেয়নি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ। বর্ষা শেষে মেরামতের কথা বললেও এখন শরতের শেষ ও শীতের আগমনের বার্তাও দিতে শুরু করেছে কিন্তু এ নিয়ে কোন কার্যক্রমের দেখা মিলছেন। এতে করে নগরবাসীর ভোগান্তি বেড়েই চলেছেন।

৯ অক্টোবর মঙ্গলবার দুপুরে সরেজমিনে শহর ঘুরে দেখা গেছে, বাস টার্মিনাল থেকে ২নং রেল গেট গোল চত্ত্বর পর্যন্ত রাস্তার প্রায় সবটুকুই ভাঙা। গাড়ি চলে ধীর গাতিতে সৃষ্টি হয় যানজট। আর মাঝে মধ্যে গর্তে পরে দুর্ঘটনার শিকার হন সাধারণ মানুষ। এমন ভাঙা ও ভোগান্তির চিত্র দেখা মিলে রেল স্টেশন যেতে ক্রসিংয়ের সাথে ও ২ নং রেল লাইনের সাথে। এছাড়াও রয়েছে, উকিলপাড়া মোড়ে, গ্রীন্ডলেজ ব্যাংকের মোড়ে গলাচিপা মোড়, চাষাঢ়া গোল চত্ত্বর, সিটি করপোরেশনের মার্কেটের সামনে থেকে নিউ মেট্রোহল মোড়ের উভয় পাশের রাস্তায়, কালীবাজার মোড় সহ নগরীর অভ্যন্তরে সড়রেক বিভিন্ন অংশে। এতে করে যেমন যানজট বেড়ে চলেছে তেমনি বেড়েছে দুর্ভোগও।

২নং রেল গেট এলাকার ফল ব্যবসায়ী বাদশা মিয়া বলেন, প্রতিদিনই কেউ না কেউ রিকশা বা মোটরসাইকেলের যাত্রী আহত হচ্ছে। চাকা গর্তে পরতেই কাত হয়ে পরে যায় চালক ও যাত্রীরা। অনেকেই রক্তাক্ত জখম হয় আবার কেউ হাতে পায়ে ব্যথা পেয়ে ডাক্তারের কাছে যান। কিন্তু এ নিয়ে গত এক বছরেরও কোন উদ্যোগ নিতে দেখা যায়নি।

নিজে দিগুবাবুর বাজারের সামনে ভাঙা রাস্তায় রিকশা থেকে পরে আহত দাবি করে হোসেন মিয়া বলেন, একবার রাবিশ ফেলে ঠিক করে আবার গর্ত হয়ে যায়। কিন্তু কোনবারই ভালো ভাবে ঠিক করে না। এভাবে সরকারের টাকাগুলো নষ্ট করছে। আর আমরা এসব কারণে আহত হচ্ছি।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত বাজেট অধিবশনে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী জনগণের মুখোমুখি হয়ে দাবি করেন বর্ষা মৌসুমের কারণেই মেরামত করা হচ্ছে না। কারণ বারবার বৃষ্টি হলে রাস্তা নষ্ট হয়ে যায়। সংস্কার করলেও জনগনের কোন কাজে আসে না। তাই বর্ষা মৌসুমের পর ভালো ভাবে মেরামত করা হবে। এ ঘোষণার ৩মাস পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত সংস্কারের কোন ব্যবস্থা নেওযা হয়নি।

নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক ট্রাফিক পুলিশের কর্মকর্তা বলেন, রাস্তা ভাঙা থাকলে যানজট বেশি হয়। মূলত গাড়িগুলো স্বাভাবিক গতিতে চলতে পারে না আর তাতে একটার পিছনে আরেকটা গাড়ি জমে যানজট সৃষ্টি হয়। নগরীর সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ চাষাঢ়া গোলচত্ত্বর থেকে সিরাজদৌল্লাহ সড়ক হয়ে বাস টার্মিনাল ও টার্মিনাল থেকে ২নং রেল গেট হয়ে চাষাঢ়া। এর মধ্যে রাস্তা ভাঙা থাকলে চারদিকের রাস্তায় যানজট সৃষ্টি হয়ে যায়।

তিনি আরো বলেন, আর কয়েকদিন পরে পূজা শুরু। এতে দূরদূরান্ত থেকে মানুষ নারায়ণগঞ্জে আসবে। এতে করে গাড়ির চাপ বাড়বে রাস্তায় যানজট বাড়বে। তারউপর রাস্তা খারাপ থাকলে ভোগান্তি বাড়বে। এস রাস্তার দ্রুত মেরামত করা প্রয়োজন।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও