সপ্তাহে ২ খুন ৩ লাশে আতঙ্কিত নারায়ণগঞ্জবাসী

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৪১ পিএম, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ বৃহস্পতিবার

সপ্তাহে ২ খুন ৩ লাশে আতঙ্কিত নারায়ণগঞ্জবাসী

নারায়ণগঞ্জে একের পর এক লাশ হয়ে মায়ের কোল খালি হয়ে যাচ্ছে। খুন গুমের ঘটনা যেন মহামারি আকার ধারণ করেছে। আর লাশ উদ্ধারের অধিকাংশ ঘটনার তদন্তের খুনের রহস্য বেরিয়ে আসছে। এতে করে লাশের মিছিল দীর্ঘ হচ্ছে। সপ্তাহের ব্যবধানে এ জেলাতে ২ খুন ও তিনটি লাশ উদ্ধারের ঘটনা ঘটেছে।

১ ফেব্রুয়ারী থেকে ৭ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন স্থানে ঘটে যাওয়া খুন ও লাশ উদ্ধারের ঘটনার সচিত্র তুলে ধরা হল।

৭ ফেব্রুয়ারী নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে হাত-পা ও মুখ বাঁধা অবস্থায় এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় তাঁর স্বামীকে আটক করা হয়েছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলাম জানান, সিদ্ধিরগঞ্জের নতুন বাজার এলাকায় ছোট ভাই আমিনুল ইসলামের বাসায় স্ত্রীকে নিয়ে শহিদুল ইসলাম বসবাস করছিল। বৃহস্পতিবার সকালে খাবারের জন্য আমিনুল ইসলামের স্ত্রী খাদিজা বেগম ডাক দিতে গেলে হাত-পা ও মুখ বাঁধা অবস্থায় ঘরের আড়ার সঙ্গে নাঈমা আক্তারের ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায়। পরে পুলিশকে জানালে পুলিশ গিয়ে নাঈমা আক্তারের লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় তার স্বামী শহিদুল ইসলামকে আটক করা হয়।

তিনি আরো জানান, ধারণা করা যাচ্ছে পারিবারিক কলহের জের ধরে তার স্বামী তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রেখেছে। তবে ময়নাতদন্তের পর মৃত্যু সঠিক কারণ বলা যাবে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

৩ ফেব্রুয়ারী নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে যৌতুকের দাবিতে নববধূ রুমা আক্তারকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগে উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। ঘটনায় পর থেকে স্বামী কাউছার পলাতক রয়েছে।

নিহতের স্বজনদের বরাত দিয়ে আড়াইহাজার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হুমায়ূন জানান, গত দুই মাস আগে মতিনের ছেলে কাউসার সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয় রুমার। বিয়ের পর থেকে কাউছার ব্যবসার কথা বলে রুমার পরিবারের কাছে যৌতুক দাবি করে আসছিল। এ নিয়ে প্রায় সময় দুইজনের মধ্যে বাকবিতন্ডা হত। রোববার বিকেলে কোন এক সময় তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর পালিয়ে যায় সে। সন্ধ্যায় আশেপাশের লোকজন তাকে ডাকলে তার সাড়া না পেয়ে ঘরে জানালা দিয়ে তাকিয়ে ঘরের বিছানায় লাশ পরে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়।

৫ ফেব্রুয়ারী নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার মেঘনা নদী থেকে অজ্ঞাত পরিচয়ে (৩৫) ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। উপজেলার চরহোগলা বালুর ঘাট এলাকার নদীর তীর থেকে ওই লাশ উদ্ধার করা হয়। সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন, নিহতের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই। ধারণা করা হচ্ছে ৪ থেকে ৫দিন আগে কোন এক সময় ওই ব্যক্তি দুর্ঘটনা জনিত বা হত্যার কারণে মৃত্যু হতে পারে। কিংবা নদীর জোয়ারের পানিতে ভেসে এখানে আসতে পারে। তবে ময়নাতদন্তের পরই মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা যাবে। নিহতের পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

৫ ফেব্রুয়ারী নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে বিল্লাল হোসেন (১৮) এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সকালে উপজেলার কাঞ্চন এলাকার বালুরমাঠ থেকে ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়। রূপগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাদশাহ আলম জানান, কাঞ্চন এলাকার বালুরমাঠ এলাকায় লাশটি উদ্ধার করা হলে লাশের পাশেই একটি চিরকুট পাওয়া যায়। সেখানে লেখা ছিলে আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়।

৪ ফেব্রুয়ারি নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে রাশিদা বেগম (২৮) নামের প্রবাসীর স্ত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। দুপুরে উপজেলার বিশনন্দী ইউনিয়নের মানিকপুর গ্রামের তার বাবার বাড়ী থেকে এই লাশটি উদ্ধার করা হয়। আড়াইহাজার থানার ওসি আক্তার হোসেন জানান, প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যা ধারণা করলেও ময়না তদন্ত পর বিস্তারিত বলা যাবে। এর আগে সঠিক করে কিছু বলা যাবে না। লাশ ময়না তদন্ত করার জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ‘নারায়ণগঞ্জে একের পর এক খুন গুমের ঘটনায় আতঙ্ক চারদিকে ছড়িয়ে পড়ছে। কখনো খুন কখনো গুম আবার কখনো লাশ উদ্ধারের ঘটনার মধ্য দিয়ে লাশের মিছিলে নতুন নতুন সংখ্যা যুক্ত হচ্ছে। এতে স্বজনহারাদের আহাজারিতে পরিবেশ ক্রমশ উত্তপ্ত হয়ে উঠছে। অন্যদিকে আইনশৃঙ্খলাদের উপর থেকে জনগণের আস্থা দিন দিন কমে যাচ্ছে।’


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও