সাকির উদ্ধারের দাবীতে ডিসির মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৫৮ পিএম, ১৪ মে ২০১৯ মঙ্গলবার

সাকির উদ্ধারের দাবীতে ডিসির মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন

দীর্ঘ প্রায় ১৬ মাস ধরে নিখোঁজ রয়েছে দেড় বছরের শিশু সাদমান সাকি। এই সাদমান সাকির উদ্ধারের দাবীতে নারায়ণগঞ্জে কয়েকদিন পর পরই বিভিন্ন আন্দোলন কর্মসূচি পালিত হচ্ছে। কয়েকজনকে অভিযুক্ত করে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদের বরাবর আবেদনও করা হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় এবার সাদমান সাকি উদ্ধারে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়ার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর আবেদন জানানো হয়েছে।

১৪ মে মঙ্গলবার সকালে সাদমান সাকির বাবা সৈয়দ ওমর খালেদ এপন এই আবেদন জানিয়েছেন। ওই আবেদন পত্রে ওমর খালেদ এপন উল্লেখ করেছেন, আওয়ামীলীগের জন্মলগ্ন থেকেই তার পরিবার পরিজন আওয়ামী রাজনীতির সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। তার বাবা যুদ্ধকালীন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ছিলেন এবং দীর্ঘ ২৪ বছর নারায়ণগঞ্জ জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি নিজেও নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

২০১৭ সালের ১ ডিসেম্বর দুপর দেড়টায় তার বাড়ীর সামনে থেকে দেড় বছরের শিশু সাদমান সাকিকে কতিপয় লোকজন অপহরণপূর্বক গুম করে। এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক তিনি নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় অভিযোগ দিলে  কোন এক অদৃশ্য শক্তির প্রভাবে থানা কর্তৃপক্ষ বর্ণিত বিষয়ে কোন প্রকার আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ না করে প্রথমে তা শুধু জিডি হিসেবে গ্রহণ করে এবং পরবর্তীতে ১৩ দিন পর তথা ১৩ ডিসেম্বর মামলা হিসেবে গ্রহণ করে।

আবেদন পত্রে এপন দু:খের বিষয় হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, মামলা দায়েরের পর প্রায় ১৭ মাস অতিবাহিত হওয়া সত্ত্বেও আজ অবধি প্রশাসনের পক্ষ থেকে আশ্বাস ছাড়া আর কিছুই দিতে পারেন নি। শিশুসন্তানকে উদ্ধারের দাবিতে সর্বাত্মক চেষ্টার পাশাপাশি সম্ভাব্য সকল জায়গায় পাগলের মতো খোঁজাখুজি করেও আশানুরুপ ফল পাওয়া যায়নি। এমতাবস্থায় তিনি একজন অসহায় ও হতাশাগ্রস্থ পিতা হিসেবে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। সন্তানের শোকে আমার স্ত্রী শোকে কাতর হয়ে নির্বাক ও শয্যাশায়ী অবস্থায় দিন যাপন করছে।

তিনি প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে আবেদন পত্রে বলেন, স্বজন হারানোর যন্ত্রনা যে কতটা মর্মান্তিক ও দূর্বিসহ হতে পারে তা একমাত্র আপনিই জানেন। আর তাই আপনার কাছে আবেদন যথাযথ কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়ে আমার শিশু সন্তান সাদমান সাকিকে উদ্ধারের ব্যবস্থা করে দিবেন। নিজেকে একজন মুক্তিযোদ্ধা ও স্বাধীনতার স্বপক্ষের সন্তান হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর মহানুভবতা কামনা করেছেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ১ ডিসেম্বর শুক্রবার দুপুর দেড়টায় ঘরের বাইরে খেলার সময় দেওভোগ কাঠের দোতলা বড় জামে মসজিদ এলাকা থেকে শিশু সাদমান সাকি নিখোঁজ হয়। সাদমান সাকি নিখোঁজের ১৩ দিন পর নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় সাদমান সাকির বাবা সৈয়দ ওমর খালেদ এপন একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেছিলেন। একই সাথে সাদমান সাকির সন্ধানের দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনশন সহ নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে কয়েকবার মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত ২৭ মার্চ শিশু সাদমান সাকির বাবা সৈয়দ ওমর খালেদ এপন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নজমুল আলম সজল সহ ৬ জনকে অভিযুক্ত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জেলা পুলিশ সুপারের বরাবর আবেদন জানিয়েছিলেন। বাকী অভিযুক্তরা হলেন মর্গ্যান গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের গভর্নিং বডির সদস্য সুনয়ন মাহমুদ সুপন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সেলিম হাসান দিনার, দেওভোগ এলাকার এল. এন. রোডের বাসিন্দা মো: অরুণের ছেলে ফয়সাল ও জোনায়েত আহমেদ সবুজ এবং রহমান।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও