স্বরুপে ফিরছে চিরচেনা ব্যস্ত নারায়ণগঞ্জ

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৪৮ পিএম, ১১ জুন ২০১৯ মঙ্গলবার

ফাইল ফটো
ফাইল ফটো

ঈদুল ফিতরের টানা ছুটি শেষে অনেকটা ঢিমেতালে কর্মব্যস্ততা শুরু হয়েছে নারায়ণগঞ্জে। তবে ঈদের সপ্তম দিন সকাল থেকেই সড়ক ও নৌ পথে ছুটিতে থাকা নগরবাসী নিজ নিজ কর্মস্থলে ফিরতে শুরু করেছে। এছাড়া নাড়ির টানে গ্রামের বাড়িতে ঈদের ছুটি কাটানো মানুষজনও ছুটি শেষে নারায়ণগঞ্জে ফিরতে শুরু করেছে। এতে করে বাস, ট্রেন ও লঞ্চে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। এদিকে শহর তার চিরচেনা ব্যস্ততার রুপ ফিরে পেয়েছে। ফাঁকা শহর ফের ব্যস্ত নগরীতে পরিণত হয়েছে।

জানাগেছে, ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে নাড়ির টানে শহর ছেড়ে গ্রামের বাড়িতে পাড়ি জমায় নারায়ণগঞ্জবাসী। ঈদের পঞ্চম ও ষষ্ঠ দিন থেকে অনেকে শহরের উদ্দেশ্যে পাড়ি জমালেও সপ্তম দিন ১১ জুন মঙ্গলবার থেকে গ্রামের বাড়িতে ঈদের ছুটি কাটানো নারায়ণগঞ্জবাসী তাদের চিরচেনা শহরে ফিরতে শুরু করেছে। কেউ কর্মক্ষেত্রে যোগদানের জন্য আবার কেউ শহরের জীবন যাপনের তাগিদে নারায়ণগঞ্জে ফিরে আসছে।

১১ জুন মঙ্গলবার থেকে শহরের বিপনী বিতাণ থেকে শুরু করে ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানগুলো পূর্ণ উদ্যোমে শুরু হয়েছে। যেকারণে ঈদে ছুটি কাটানো মানুষজন এ দিন সকাল থেকেই যার যার নিজ নিজ কর্মস্থালে যোগদান করেন। এছাড়া ফুটপাতে হকারের সেই স্বাভাবিক সংখ্যাও দৃশ্যমান হচ্ছে। সব মিলিয়ে ব্যস্ততার কারণে সড়কে যানজট না থাকলেও ব্যস্ততার প্রভাবে সরবতা লক্ষ্য করা গেছে।

এদিন সকাল থেকেই বাস স্টেশন, ট্রেন স্টেশন, লঞ্চ টার্মিনালে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। যদিও ২-১ দিন আগে থেকেই ঈদের ছুটিতে গ্রামের বাড়িতে যাওয়া যাত্রীরা শহরে ফিরতে শুরু করেছে। তবে অন্যদিনের তুলনায় এ দিন শহরে ফেরা যাত্রীদের সংখ্যা অনেক বেশি ছিল। কারণ এ দিনটিতে কর্মক্ষেত্রে যোগদান করতেই হবে। তাই অনেকে ভোর সকালে বিভিন্ন যান যোগে শহরে প্রবেশ করে কর্মস্থলে যোগদান করেছেন।

বাস স্টেশনের স্টাফরা বলছেন, ঈদের ছুটির কারণে যাত্রী সংখ্যা এতদিন কম ছিল। তবে গত দুদিন যাবত যাত্রী সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে। আজকে যাত্রী সংখ্যা অনেক বেশি। কারণ কর্মস্থলের ছুটি শেষ হয়ে গেছে। তাই স্বাভাবিক যাত্রী সংখ্যা পরিলক্ষিত হচ্ছে।

ছুটি শেষে ফিরতি পথে রাজ্জাক মিয়া জানান, ঈদের ছুটি শনিবার পর্যন্ত ছিল। কিন্তু অফিসের ঊর্ধ্বতনদের সাথে কথা বলে আরো একদিন ছুটি বাড়িয়ে নিয়েছে। তাই আজকে অফিসে যোগদান করতেই হবে। তবে পরিবার স্বজনদের সঙ্গ ত্যাগ করতে খুবই কষ্ট হয়। তাই ঈদের ছুটিতে আনন্দ করলেও ফেরার সময় খুবই খারাপ লাগে।

উল্লেখ্য, এবার রোজার ঈদের ছুটি ছিল ৪ থেকে ৬ জুন। তার আগে ২ জুন ছিল শব-ই-কদরের ছুটি। মাঝখানে ৩ তারিখ যারা ছুটি নিতে পেরেছেন তারা সাপ্তাহিক শুক্র শনিবার মিলিয়ে ৯ দিনের ছুটি উপভোগ করতে পেরেছেন। সব মিলিয়ে লম্বা ছুটি কাটাতে পেরেছেন নারায়ণগঞ্জবাসী।

এদিকে ঈদের ছুটিতে নারায়ণগঞ্জে অবস্থানকারী বাসিন্দারা বলছেন, যেখানে ৫ মিনিটের পথ পাড়ি দিতে ঘন্টা খানেক সময় লেগে যেত। সেখানে ঈদের ছুটিতে পুরো শহর ফাঁকা হয়ে যাওয়ার কারণে সড়কগুলো একেবারে ফাঁকা মাঠে পরিণত হয়েছে। জনবসতিহীন ভুতুরে নগরীতে পরিণত হয়েছিল। এর ফলে একেবারে অচেনা নগরীতে পরিণত হয় নারায়ণগঞ্জ। তবে ছুটি শেষে ফের পুরো শহর স্বরুপে ফিরে এসেছে।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও