আলোচিত স্বপন হত্যা মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণ

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:১৮ পিএম, ১৮ জুন ২০১৯ মঙ্গলবার

আলোচিত স্বপন হত্যা মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণ

নারায়ণগঞ্জের আলোচিত কাপড় ব্যবসায়ী স্বপন কুমার সাহা হত্যা মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ জুন ) জেলা ও দায়রা জজ আদালতে ওই মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ হয়েছে। এসময় আদালতে পিন্টু দেবনাথ ও রত্মা চক্রবর্তী উপস্থিত ছিলেন।

১৮ জুন মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১টা হতে আদালতে আসামীদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেন এসআই সেলিম রেজা ও এসআই এজাজুল হক।

রাষ্ট্রপক্ষের কৌসুলি ওয়াজেদ আলী খোকন বলেন, মামলাগুলো ধারাবাহিকভাবে সাক্ষ্য গ্রহণের মাধ্যমে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। আজকে এই মামলার ২ সাক্ষী আসামীদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিয়েছেন। যার মাধ্যমে এই হত্যাকা-ের সময় আসামীদের কার্যকলাপ উন্মোচিত হয়।

২০১৬ সালের ২৭ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জ শহরের মাসদাইর বাজার কাজী বাড়ির প্রবাসী আজহারুল ইসলামের ৪ তলা ভবনের ২য় তলায় যৌন মিলনের প্রলোভন দেখিয়ে পিন্টু তার প্রেমিকা রত্মা রানীকে দিয়ে স্বপনকে ডেকে নেয় মাসদাইরের ওই ফ্ল্যাটে ডেকে নেয়। এরপর বিছানায় বসিয়ে যৌন উত্তেজনা সৃষ্টি করে পূর্বে থেকে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে রাখা ফ্রুটিকা জুস স্বপনকে পান করায় রত্মা রানী। এতে ঘুমিয়ে পড়ে স্বপন। এরপর শীল পাটা দিয়ে স্বপনের মাথায় আঘাত করে পিন্টু। পরে বাথরুমে নিয়ে বটি দিয়ে লাশ গুমের জন্য ৭ টুকরো করা হয়।

পরে রাতে ৫টি বাজারের ব্যাগে করে ওই লাশ তিন দফায় শীতলক্ষ্যা নদীতে নিয়ে ফেলে দেয় পিন্টু। সহায়তা করে রত্না। সে ও পিন্টু মিলেই বাড়ির নিচে ব্যাগগুলো নামায়। মাসদাইর থেকে তিন দফায় ঘাটে ব্যাগগুলো আনা হয়। প্রথম দফায় একটি, দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফায় দুটি করে ব্যাগ কেন্দ্রীয় লঞ্চ টার্মিনালের পাশে সেন্ট্রাল খেয়া ঘাটে আনে। মাসদাইর থেকে রিকশায় করে লাশবোঝাই ব্যাগগুলো যাতে কেউ বুঝতে না পারে সেজন্য উপরে দেওয়া হয় সবজি। প্রত্যেকবার সে বৈঠা চালানো নৌকা রিজার্ভ করে বন্দর ঘাটে যাওয়ার জন্য। পরে মাঝির অগোচরে ব্যাগগুলো ফেলে দেওয়া হয় শীতলক্ষ্যায়। 


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও