স্কুল কলেজের পোশাক পরিহিতদের চাষাঢ়া শহীদ মিনারে প্রবেশ নিষেধ

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৪৬ পিএম, ১০ জুলাই ২০১৯ বুধবার

স্কুল কলেজের পোশাক পরিহিতদের চাষাঢ়া শহীদ মিনারে প্রবেশ নিষেধ

কলেজ শিক্ষার্থীদের প্রেমের নামে আপত্তিকর অবস্থানের কারণে কলেজ সময়ে শিক্ষার্থীদের জন্য চাষাঢ়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রবেশ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

১০ জুলাই বুধবার বেলা ১১ থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশের নির্দেশনায় এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। এর আগে গত কয়েকদিন ধরেই কলেজ সময়ে শহীদ মিনারের চারপাশে শিক্ষার্থীদের আপত্তিকর অবস্থানের চিত্র দেখা দেয়।

জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রাণকেন্দ্র চাষাঢ়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার। এটার সাথে নারায়ণগঞ্জবাসীর অনেক আবেগ জড়িত রয়েছে। প্রতিদিন সকাল থেকে শুরু করে গভীর রাত পর্যন্ত নানা শ্রেণী পেশা ও নানা বয়সী লোকজন এই শহীদ মিনারে এসে আড্ডা দিয়ে থাকেন। কিন্তু কিছু মানুষ শহীদ মিনারের আশেপাশে প্রকাশ্য ধূমপান, বেদীতে জুতা নিয়ে উঠা সহ ময়লা আবর্জনা দিয়ে পবিত্র শহীদ মিনারের অপমান করে।

সেই সাথে সাম্প্রতিক উঠতি কলেজ শিক্ষার্থীদের প্রেমের নামে প্রকাশ্যে আপত্তিকর অবস্থান বেশি পরিলক্ষিত হয়। স্থানীয় গণমাধ্যমে একের পর এক সংবাদ প্রকাশিত হয়। সবশেষ মঙ্গলবার ৯ জুলাই সকালে দেখা মেলে কলেজের কিশোর কিশোরীর আপত্তিকর অবস্থান। প্রকাশ্যে জড়িয়ে রেখে প্রেমালাপ চালিয়ে যাচ্ছে আনমনে আর আশেপাশের লোকজন একনজর দেখে চোখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন অন্যত্র।

শুধু মিনারের অভ্যন্তরের লোকজন নয়, ভাষা সৈনিক সড়ক ধরে চলাচলরত মানুষদের নজরে আটকে এই দৃশ্য। অভিভাবকরা স্কুল ফেরত বাচ্চাদের নিয়ে ফেরার পথে এমন দৃশ্য দেখে বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হন। আর এ বিষয়টি স্থানীয় গণমাধ্যমে বেশ গুরুত্ব সহকারে উঠে আসে। সেই সাথে নাগরিক সমাজেও ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

আর সেই সূত্র ধরে ১০ জুলাই বুধবার বেলা ১১ টায় কলেজ শিক্ষার্থীদের শহীদ মিনারে প্রবেশ বন্ধ করে দেয়া হয়। আটকিয়ে দেয়া হয়েছিল প্রত্যেকটি প্রবেশ পথের গেইট। তবে এই সময়ে কলেজ শিক্ষার্থী অন্য সকলের জন্যই প্রবেশ উন্মুক্ত ছিল। পরবর্তীতে বিকেলে শহীদ মিনারে প্রবেশের সকল গেইট খুলে দেয়া হয়।

এ বিষয়ে চাষাঢ়া শহীদ মিনারে দায়িত্ব পালনরত এস আই মকবুল জানান, প্রতিদিনই কলেজ সময়ে শিক্ষার্থীরা কলেজ ফাঁকি দিয়ে আড্ডা দিয়ে থাকেন। অনেক সময় তারা আপত্তিকর ও অশালীন অবস্থায়ই বসে থাকেন। আর এটা নিয়ে অনেক সমালোচনা সৃষ্টি হয়। কিছুক্ষণ আগেও দুইজনকে আপত্তিকরভাবে বসার কারণে আটক করা হয়েছে। আর এ বিষয়টি সদর মডেল থানা পুলিশকে জানালে সদর থানা ওসি কামরুল ইসলাম সকল শিক্ষার্থীদের বের করে গেইট আটকিয়ে দেয়ার কথা বলেন। তবে গেইট আটকানো থাকলেও জনসাধারণ প্রবেশ করতে পারবে।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও