এখনও ফাঁকা নারায়ণগঞ্জ শহর, প্রথম কর্মদিবস কেটেছে শুভেচ্ছা বিনিময়ে

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৫:১৬ পিএম, ১৪ আগস্ট ২০১৯ বুধবার

এখনও ফাঁকা নারায়ণগঞ্জ শহর, প্রথম কর্মদিবস কেটেছে শুভেচ্ছা বিনিময়ে

স্বজনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগ করে নিতে যারা গ্রামে গেছেন, তাদের অনেকেই এখনও নারায়ণগঞ্জে ফেরেননি। যারা অফিস করছেন তাদের দিনের প্রথম ভাগ কেটেছে ঈদের কোলাকুলি ও কুশল বিনিময়ে।

কোরবানির ঈদের ছুটির তিনদিন পর অফিস আদালত খুললেও ছুটির আমেজ কাটেনি। ছুটি শেষে বুধবার (১৪ আগস্ট) প্রথম কর্মদিবসে অফিস, আদালত ও ব্যাংকে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতি ছিল খুবই কম।

জেলার বিভিন্ন দফতর সকাল ৯টায় খুলেছে। দুপুরের দিকে বিভিন্ন অফিসের অধিকাংশ কক্ষই ফাঁকা দেখা গেছে। তবে যারাও এসেছেন তারাই ব্যস্ত ছিলেন ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় ও খোশ গল্পে। অনেকেই বুধবার ও বৃহস্পতিবার দুই দিনের ছুটি ম্যানেজ করে নিয়েছেন, ফলে তাদের অফিস শুরু হবে রোববার থেকে। মূলত এ কারণেই ছুটির পর প্রথম দিন উপস্থিতি কম বলে বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

প্রিমিয়াম ব্যাংকের কর্মকর্তা জাহিদ বলেন, প্রথম কর্মদিবসে উপস্থিতি কম। যারা ছুটি নিয়েছেন তারা রোববার থেকে কাজে যোগ দেবেন।

ঈদের পর তিনদিন হলেও এখনো ফাঁকাই দেখা গেছে চিরচেনা নারায়ণগঞ্জের ব্যস্ত শহর। তার উপর সকাল থেকেই বৃষ্টিতে মানুষ তেমন একটা প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকেই বের হচ্ছেন না।

তিনদিনের ঈদের ছুটি শেষে নগরে ফিরতে শুরু করেছেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। নগরের সকল বাস এবং রেলওয়ে স্টেশনে বাড়ি ফেরত মানুষের ফিরে আসতে দেখা গেছে। তবে এখনও ফাঁকা শহর। শহরের চিরচেনা রূপ পেতে আরও কয়েকদিন লেগে যেতে পারে। চাষাঢ়া, ২ নং রেলগেট, পঞ্চবটি মোড়, কলেজ রোড মোড়সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় যানবাহনের ভিড় নেই। শহরের রাজপথ, অলি-গলি অনেকটাই ফাঁকা। খুলেনি দোকান-পাট, রয়ে গেছে ঈদের রেশ।

চাষাঢ়া থেকে ২ নং রেলগেট যেতে যেখানে অন্য সময় আধ ঘন্টা লেগে যেত, সেখানে এখন সময় লাগছে ৫ মিনিট।

এদিকে শহর ফাঁকা হলেও বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে দেখা গেছে ভিড়। যদিও অন্যান্য ঈদের মত এবার তেমন ভীড় নেই। একদিকে ডেঙ্গু আতংক অন্যদিকে শহরজুড়ে বৃষ্টির হাতছানি মানুষকে ঘরে বসে এক অন্য বিনোদনের ব্যবস্থা করে দিয়েছে।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও