সড়কের নৈরাজ্যে নারায়ণগঞ্জে ৩ লাশ

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:১৪ পিএম, ১৮ আগস্ট ২০১৯ রবিবার

সড়কের নৈরাজ্যে নারায়ণগঞ্জে ৩ লাশ

নারায়ণগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনা থেমে নেই। একের পর এক সড়কের ঝরছে তাজা প্রাণ। সড়কের নৈরাজ্যে এসব দুর্ঘটনা কিছুতেই থামছেনা। তাছাড়া লাশের মিছিল ক্রমশ দীর্ঘ হচ্ছে।

৭ আগস্ট থেকে ১৭ আগস্ট পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন স্থানে ঘটে যাওয়া সড়ক দুর্ঘটনার সচিত্র তুলে ধরা হল। এ সপ্তাহে সড়কের নৈরাজ্যে ৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। এছাড়াও আরো কয়েকজন আহত অবস্থায় রয়েছে।

১৭ আগস্ট রূপগঞ্জে মোটরসাইকেল ও প্রাইভেটকার মুখোমুখি সংঘর্ষে ইব্রাহীম সরকার (৪২) নামে কাপড় ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। এসময় আহত হয়েছে ৬ জন। বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার কাঞ্চন-কুড়িলবিশ্বরোড (তিনশফিট)সড়কের ভোলানাথপুর এলাকায় ঘটে এ ঘটনা।

রূপগঞ্জ থানার এসআই শাহজান খান জানান, বিকেল সাড়ে ৩টায় কাঞ্চন-কুড়িলবিশ্বরোড (তিনশফিট) সড়কের ভোলানাথপুর এলাকায় মোটরসাইকেলের সাথে প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলে মোটরসাইকেল চালক রাজধানীন খিলক্ষেত থানাধীন কাওলা মধ্যেপাড়া এলাকার সুধন মিয়ার ছেলে কাপড় ব্যবসায়ী ইব্রাহীম সরকার নিহত হয়। আহত হয় মোটরসাইকেল আরোহী আরিফ, প্রাইভেটকারের যাত্রী বাড্ডা থানা আওয়ামীলীগ নেতা মিজানুর রহমান, চালক জালাল, আশরাফসহ  ৬ জন।

৯ আগস্ট নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার সাইনবোর্ডে সড়ক দুর্ঘটনায় তসলিম হোসেন (৩৫) নামের ব্যাংক কর্মকর্তা মারা গেছেন। বিকেল ৩টায় দুর্ঘটনার পর ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকেল ৪টায় মারা যান।

নিহত তসলিম হোসেন নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার আব্দুর রবের ছেলে। তিনি রাজধানীর কদমতলীর সাদ্দাম মার্কেট এলাকায় থাকতেন। পেশায় তিনি ব্যাংক কর্মকর্তা ছিলেন।

নিহত তাসলিমের বোন পারভীন আক্তার জানান, দুপুরে বাসা থেকে মোটরসাইকেলে শিমরাইল যাচ্ছিলেন তসলিম। পথিমধ্যে সে দুর্ঘটনার শিকার হন। কিভাবে তসলিম দুর্ঘটনার শিকার হন সেটা জানা যায়নি।

৭ আগস্ট রূপগঞ্জে বেপরোয়া মটরসাইকেলের ধাক্কায় মনিরুদ্দিন মনির (৫৮) নামে একজন নিহত হয়েছে। বুধবার বেলা সাড়ে ১২টায় চনপাড়া-ইছাখালী সড়কের উপজেলার কায়েতপাড়া ইউনিয়নের বড়ালু পাড়াগাও এলাকায় ঘটে এ ঘটনা। নিহত মনিরুদ্দিন বড়ালু পাড়াগাও এলাকার মৃত আব্দুল বারেকের ছেলে।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা বলেন, মনির বড়ালু বাজার থেকে পায়ে হেঁটে নিজ বাড়িতে যাচ্ছিলেন। খানকা শরীফের পাশে আসামাত্র বিপরীত দিক থেকে বেপরোয়া গতিতে আসা একটি মোটরসাইকেল তাকে চাপা দেয়। পরে স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। ঢাকা মেডিকেলে যাওয়ার পথেই সাড়ে ৩টায় তার মৃত্যু হয়।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে গত ১ বছর আগে সাধারণ শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করে পুরো দেশ অচল করে দিয়েছিল। সেই সাথে দেশের পুলিশ প্রশাসনকে তাদের ভুলগুলো চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছিল। তবে সময়ের ব্যবধানে সেই ছাত্র আন্দোলন থেমে গেলেও সড়কে লাশের মিছিল উল্টো বেড়ে চলেছে।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও