জৈনপুরী পীরের খাল দখলের কারণে ফের জলাবদ্ধতার কবলে ৪ গ্রামবাসী

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৫১ পিএম, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ বুধবার

জৈনপুরী পীরের খাল দখলের কারণে ফের জলাবদ্ধতার কবলে ৪ গ্রামবাসী

নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সিদ্ধিরগঞ্জের পাঠানটুলী এলাকায় হেলিকপ্টার হুজুর খ্যাত এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী ওরফে জৈনপুরী পীর কর্তৃক রেলওয়ের খাল অবৈধ ভাবে বালু দিয়ে ভরাট করায় হাজীগঞ্জ, পানিরকল, এম সার্কেস ও পাঠানটুলী এই ৪টি গ্রামের বাসিন্দারা দীর্ঘদিন ধরেই জলাবদ্ধতার কবলে ভুগছেন।

সম্প্রতি রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী ওরফে জৈনপুরী পীর ও তার সহোদরদের বিরুদ্ধে রেলওয়ের খাল ভরাট ও দখলের অভিযোগ সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করার পরে ৪টি গ্রামের বাসিন্দারা সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন। এরপর সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসির নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম সরেজমিনে পরিদর্শন করে জৈনপুরীকে ভরাটকৃত জমি উন্মুক্ত করে ৪ গ্রামের জলাবদ্ধতা নিরসনের নির্দেশ দেন। তবে এক সপ্তাহেও ভরাটকৃত অংশ অবমুক্ত না হওয়ায় এখনো জলাবদ্ধতার কবলে ৪টি গ্রামের বাসিন্দারা।

জানা গেছে, গত ২৭ জুলাই হেলিকপ্টার হুজুর হিসাবে খ্যাত নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের পাঠানটুলী এলাকার এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী ওরফে জৈনপুরী পীরের বিরুদ্ধে বাদি হয়ে রেলওয়ের জমি দখলের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন বাংলাদেশ রেলওয়ের ঢাকা বিভাগীয় এস্টেট অফিসের কানুনগো মোঃ ইকবাল মাহমুদ। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, সিদ্ধিরগঞ্জের পাঠানটুলী এলাকার মৃত নাছির উল্লাহ আব্বাসীর ছেলে অভিযুক্ত এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী (জৈনপুরী পীর), ওবায়েদ উল্লাহ আব্বাসী ও নেয়ামত উল্লাহ আব্বাসী অবৈধ ও বেআইনী ভাবে নারায়ণগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন হাজিগঞ্জ লেভেল ক্রসিং সংলগ্ন রেললাইনের পূর্ব পাশের্^ গোদনাইল মৌজার সি.এস ও এস.এ দাগ ১৭৯০, ১৭৯১, ১৭৯২, ১৮২২, ১৮২৪, ১৮২৫, ১৮২৬, ১৮২৮, ১৮২৯ ও ১৮৩০ নং দাগের রেলওয়ের ভূমিতে অবৈধভাবে মাটি ভরাট করে সেমিপাকা কাঠামো নির্মাণ করছেন। তাদের এই অবৈধভাবে কাঠামো নির্মাণ কাজে স্থানীয়ভাবে বাধা প্রদান করা হলেও তারা বাধা উপেক্ষা করে অবৈধভাবে নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। এছাড়াও এক বছর পূর্বে তারা রেলওয়ের ভূমিতে অবৈধভাবে টিনশেড মার্কেট নির্মাণ করেছেন। সরকারী রেলওয়ে সম্পত্তি দখল ও আতœসাৎ এর অপরাধে দন্ডবিধি অনুযায়ী ফৌজদারি মামলা দায়ের করার অনুরোধ করা হয়।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী ওরফে জৈনপুরী পীর, তার ভাই নেয়ামত উল্লাহ আব্বাসী ও ওবায়দুল্লাহ আব্বাসীর বিরুদ্ধে রেলওয়ের মালিকানাধীন খাল অবৈধ ভাবে বালু ভরাট করার ফলে হাজীগঞ্জ, পানিরকল, এম সার্কেস ও পাঠানটুলী গ্রামের প্রায় ১০ হাজার বাসিন্দারা দীর্ঘদিন ধরে সামান্য বৃষ্টিতেও জলাবদ্ধতার মধ্যে বসবাস করে আসছেন।

এ ব্যাপারে গত ২৫ আগষ্ট নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক বরাবর চার গ্রামের বাসিন্দারা একটি অভিযোগ দাখিল করেন। অভিযোগের অনুলিপি নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার, র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক, সিদ্ধিরগঞ্জ, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ সদরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও রেলওয়ের বিভাগীয় এস্টেট অফিসারকে দেয়া হয়। গত ২ সেপ্টেম্বর সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ফারুক বরাবর পৃথক একটি অভিযোগ দাখিল করেন পাঠানটুলী পঞ্চায়েত কমিটির আহবায়ক ও পাঠানটুলী জামে মসজিদের সাধারণ সম্পাদক হাজী আব্দুর রউফ ভূঁইয়ার নেতৃত্বে প্রায় অর্ধশত গ্রামবাসী। এতে জৈনপুরী পীর ও সহোদরদের নানা অপকর্মের খতিয়ান তুলে ধরেন এলাকাবাসী। পরে ৫ সেপ্টেম্বর এলাকাবাসীর দাবীর মুখে জৈনপুরীকে ভরাটকৃত অংশ উন্মুক্ত করে ৪ গ্রামের জলাবদ্ধতা নিরসনের নির্দেশ দেন ওসি কামরুল ফারুক।

এদিকে ওসি নির্দেশ দিলেও ভরাটকৃত অংশ অবমুক্ত করতে কোন পদক্ষেপই নেয়নি জৈনপুরী পীর। বরং সোমবার ও মঙ্গলবারের বৃষ্টিতে আবারো জলাবদ্ধতার কবলে পড়েছেন হাজীগঞ্জ, পানিরকল, এম সার্কেস ও পাঠানটুলী এই গ্রামের বাসিন্দারা।

পানিরকল এলাকার বাসিন্দা সরকারী আই.ই.টি স্কুলের প্রাক্তন শিক্ষক মহসিন মিয়া জানান, রেললাইনের পূর্ব দিকে যে সরকারি খালটি ছিলো তা পাঠানটুলী এলাকার জৈনপুরী পীর ভরাট করার কারনে আমাদের এলাকাসহ আশেপাশের এলাকার পানি নিষ্কাশনে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয়েছে। সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি গত ৫ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে এলাকা পরিদর্শন করে জৈনপুরী পীর এনায়েত উল্লাহ আব্বাসীকে দ্রুত খালটি দখলমুক্ত করে জলাবদ্ধতা নিরসনের নির্দেশনা দিয়েছিলেন। কিন্তু গত ছয় দিনেও এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী ওসির নির্দেশনা বাস্তবায়ন করেনি। যার ফলে বিভিন্ন দপ্তরে আমরা আবেদন করেও কোনো প্রতিকার পাচ্ছিনা। দ্রুত সময়ের মধ্যে জলাবদ্ধতা নিরসনে ব্যবস্থা গ্রহণ না করা হলে কঠোর আন্দোলনে নামা ছাড়া আমাদের আর কোনো উপায় থাকবেনা।

এ বিষয়ে জানতে জৈনপুরী পীর এনায়েত উল্লাহ আব্বাসীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও