ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়ের অভিযোগ স্ত্রীর (ভিডিও)

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:৫০ পিএম, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ বুধবার

ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়ের অভিযোগ স্ত্রীর (ভিডিও)

সিদ্ধিরগঞ্জে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে মিঠু নামের মাদক সহ ধৃত ব্যক্তির কাছ থেকে ৭ লাখ টাকা দাবী করে ২ লাখ ৭০ হাজার টাকা নগদ আদায়ের অভিযোগ উঠেছে পুলিশের একজন এসআইয়ের বিরুদ্ধে।

মামলা সূত্রে জানায়, মুন্সিগঞ্জ জেলার গজারিয়া থানার তেতৈইতলা গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা জাফর আলীর ছেলে মিঠু (২৫) বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সানারপাড় এলাকার সাত্তারের বাড়ীর ভাড়াটিয়া।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৭ সেপ্টেম্বর শনিবার সকাল সোয়া ১১টায় এনায়েত নগর তাঁতখানা বাজারের সামনে পাকা রাস্তার উপর থেকে জাফর আলীর ছেলে মিঠুকে ৫২পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট সহ সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এএসআই মোমেন আলম সঙ্গীয় ফোর্স সহ গ্রেফতার করে। ধৃত মিঠুকে একই দিন মাদক মামলা দায়ের পূর্বক সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এসআই মোঃ কামাল হোসেন আদালতে প্রেরণ করে।

এ ব্যাপারে মিঠুর স্ত্রী দিলারা জানায়, আমার স্বামী মিঠুকে মুন্সিগঞ্জ জেলার গজারিয়া থানার তেতৈইতলা এলাকা থেকে কালো রংয়ের হাইছ গাড়ীতে র‌্যাব পরিচয়ে জোর করে তুলে নিয়ে যায়। পরে আমার স্বামী মিঠু মোবাইল ফোনে আমাকে ফোন করে ৭লাখ টাকা আনতে বলে। আমি কারণ জানতে চাইলে প্রথমে র‌্যাব পরিচয়ে পরে নারায়ণগঞ্জ জেলা ডিবি পুলিশ পরিচয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এসআই কামাল হোসেন টাকা না দিলে আমার স্বামীকে ক্রসফায়ার দিবে বলে ভয় দেখায়।

পরে আমি ২লাখ ৭০হাজার টাকা জোগাড় করে আমার স্বামী মিঠুর নাম্বারে ফোন দেই। ফোনে আমাকে টাকার জোগাড় হয়েছে কিনা জানতে চাইলে আমি টাকা কোথায় আসবো জানতে চাই। তারা আমাকে চিটাগাং রোড আসতে বলে। আমি চিটাগাং রোড আসলে তারা আমাকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার দিকে আসতে বলে। আমি থানার সামনে গেলে কালো রংয়ের হাইছ গাড়ীটি গতি রোধ করে আমাকে গাড়ীতে উঠায়।

‘‘গাড়ীতে থাকা এসআই মোঃ কামাল হোসেন ও এএসআই মোমেন আলম টাকা আনছি কিনা জানতে চায়। এসময় আমি আমার স্বামীকে দেখতে চাইলে তারা আমাকে পিছনে ফিরতে বলে। পিছনে ফিরে দেখি হাইছ গাড়ীর কোনায় চোখ বাধা অবস্থায় আমাব স্বামী মিঠু বসে আছে। এসময় গাড়ীতে থাকা লোকজন আমার কাছে থাকা ব্যাগটি ছিনিয়ে নিয়ে ব্যগের ভিতরে থাকা ২লাখ ৭০হাজার টাকা নিয়ে নেয় এবং বলে মিঠুকে ক্রস ফায়ার থেকে বাচাতে হলে ভোর ৫’টার মধ্যে আরো ৩লাখ টাকা নিয়ে আসবি। এই বলে আমাকে গাড়ী থেকে নামিয়ে দেয়।’’

তিনি বলেন, ‘‘আমি সকালে নারায়ণগঞ্জ ডিবি অফিসে গেলে আমার স্বামীকে দেখতে না পেয়ে ক্রসফায়ার দিয়েছে মর্মে আতৎকে উঠি। পরে ডিবি পুলিশের এসআই আব্দুল জলিল আমাকে শান্তনা দিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সামনে আসলে আমি গাড়ীটি চিনতে পারি। এসময় আমার কাছে বাকি টাকা দাবি করে, আমি টাকা নিয়ে লোক আসতেছে বললে তারা আমাকে অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ করে আমার স্বামীকে থানা হাজতে নিয়ে যায়। আমার স্বামীকে মিথ্যা মাদক মামলায় ফাঁসিয়ে আদালতে পাঠায়।’’

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এসআই কামাল হোসেন জানান, ঘটনাটি সত্য না।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও