ইসদাইরবাসীর স্বপ্নের রাস্তা করে দিলেন আইভী

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৪৬ পিএম, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার

ইসদাইরবাসীর স্বপ্নের রাস্তা করে দিলেন আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ইসদাইর এলাকার বাসিন্দাদের যেকোন প্রয়োজনে চাষাঢ়া কিংবা এর আশে পাশে কোথাও যেতে হলে দুটি রাস্তা ব্যবহার করতে হতো। একটি ইসদাইর বাজার থেকে ওসমানী পৌর স্টেডিয়াম, বাংলা ভবন হয়ে ঘুরে চাষাঢ়া।

আর অন্যটি চাঁদমারী বস্তি, আর্মি মার্কেট ঘুরে চাষাঢ়া। আর একটু বৃষ্টি হলেই চাঁদমারীর রাস্তায় জমে থাকতো নোংরা পানি। তাই সহজ ও কম সময়ে যাওয়া যাবে এমন কোন রাস্তা ছিল না। এজন্য প্রতিদিনই গুনতে হতো অতিরিক্ত টাকা। আর তাই দীর্ঘদিন ধরে এমপি মেয়র সহ জনপ্রতিনিধিদের কাছে দাবি জানিয়ে আসছিলেন বাসিন্দারা। অবশেষে সেই স্বপ্নে রাস্তা করে দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। এজন্য মেয়র আইভীকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে দোয়া ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন এলাকাবাসী।

১২ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের ইসদাইর বাজার এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, চাষাঢ়া ডাক বাংলোর মোড় থেকে রেল স্টেশন যাওয়ার রাস্তা ধরে বাম দিক থেকে শুরু হয়েছে রাস্তাটি। যার অর্ধেক কাজ আগেই শেষ করেছিল সিটি করপোরেশন। কিন্তু ডোবা, ময়লা আবর্জনা ও বস্তি থাকায় বাকি কাজ করা সম্ভব হয়নি। সম্প্রতি বস্তির অবৈধ দখল উচ্ছেদ করে রাস্তার বাকি অংশ শেষ করা হয়। রাস্তাটির অর্ধেকের বেশি আরসিসি করা হয়েছে। আর বাকি অংশটিতে ইটের সলিং দেওয়া হয়েছে। ফলে এখনই রিকশা সহ ছোট ছোট যানবাহ চলাচল করতে পারছে। সাধারণ মানুষ একই রাস্তাটা ব্যবহার করতে শুরু করেছে। রাস্তার দুই পাশে গড়ে উঠেছে ছোট ছোট চায়ের টঙ দোকানও। আর এ রাস্তার পূর্ব দিকে বয়ে গেছে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রেল লাইন।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ঠিকাদারদের সূত্রে জানা গেছে, নারায়গঞ্জ সিটি করপোরেশনের ব্যক্তিগত অর্থায়নে ১ কোটি ৪০ হাজার টাকা ব্যয়ে ৩৯০ মিটার রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে রাস্তায় ইটের সলিং বসানো শেষ। এছাড়াও রাস্তাটি দুই পাশে বাঁশ দিয়ে বাঁধ দেওয়া হয়েছে। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান মেসার্স হাসিব এন্টারপ্রাইজ প্রায় এক বছর ধরে কাজ করে রাস্তাটি চলাচলের জন্য প্রস্তুত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাসেন শকু সহ সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা রাস্তাটি পরিদর্শন করেন।

স্থানীয় বাসিন্দা আবু তালেব বলেন, অল্প বৃষ্টি হলেই ইসদাইর থেকে বের হওয়ার দুটি রাস্তায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে বন্ধ হয়ে যায়। বৃষ্টি ও ড্রেনের নোংরা পানিতে গন্ধ বের হয়। আর সেই পানি পারিয়ে চলাচল করতে হয়। এজন্য দীর্ঘদিন ধরে এমপি, মেয়র সহ জনপ্রতিনিধিদের দাবি জানিয়ে আসছিল রেল লাইনের পাশে বিকল্প রাস্তা তৈরি করার জন্য।

তিনি বলেন, ‘আমাদের দীর্ঘদিনের সেই স্বপ্নের রাস্তা করে দিয়েছেন মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। আমরা তাকে শুধু ধন্যবাদ জানাই না, তাঁর জন্য দোয়া করি। আল্লাহ যেন তাকে সুস্থ ও ভালো রাখে। তিনি যেন প্রতিবার মেয়র হয়ে আসে। আমাদের গরীব মানুষের পাশে থাকে। তার কারণেই এ রাস্তা হয়েছে। তিনিই এ গরীব মানুষের দুঃখ কষ্ট বুঝেছেন।’

ইসদাইর এলাকার সিদ্দিকুর রহমান বলেন, এ রাস্তা হওয়ায় আমরা মাত্র ৫ মিনিটে চাষাঢ়া যেতে পারবো। এরজন্য আমাদের এতো ঘুরে যেতে হবে না। ভাড়াও কম লাগবে। আগে কেউ একজন অসুস্থ হলে ইসদাইর যাওয়া আসার জন্য যানবাহন পাওয়া যেতো না। দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া যেতো না। এ রাস্তা হওয়ায় আমাদের সেই দুঃখ দূর হয়েছে। কম খরচে দ্রুত চাষাঢ়া পৌছানো যাবে।’

তিনি বলেন, আমরা ইসদাইরবাসী মেয়র আইভীর এ মহান কাজের জন্য ধন্যবাদ জানাই। তিনি সত্যিই গরিব বন্ধু। গরীব অসহায় মানুষের পাশে থাকেন ও কাজ করে যাচ্ছেন।’

কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু বলেন, ‘নতুন সড়কের জন্য ফুল আমাকে নয় মেয়র মহোদয় পাবেন। ১২নং ওয়ার্ডের মানুষের জন্য উন্নয়নমূলক কাজ আমার দায়িত্বে পড়ে। সেই কারণে রাস্তা তুলে ধরে ছিলাম মেয়র ডা. আইভীর কাছে। মেয়র তোমাদের মত কোমলমতি শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীদের সুবিধার্থে রাস্তা করার জন্য টেন্ডার তুলে দেন। সেই ঠিকাদার এই জঙ্গল পরিবেশকে মিটিয়ে সুন্দর রাস্তা করে দিয়েছে। দ্রুত এই পার্শ্ব দিয়ে ড্রেন নির্মাণ করা হবে। রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণ শেষ হলে নাসিক মেয়র নিজে এটা উদ্বোধন করবেন। সেই সাথে তোমাদের এই ফুল তাকে দেয়ার অনুরোধ রইলো।’

ফুলের শুভেচ্ছা জানান রাবেয়া হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ের গভর্নিংবডি সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, শিক্ষক বশির হোসেন, হালিম, নির্মাণাধীন হাসিব এন্টারপ্রাইজের ঠিকাদার গোলাম সারোয়ার বাদল।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও