চাষাঢ়ায় প্যারাডাইজে তিন ফ্লোরে মদের বার

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১১:২৭ পিএম, ১৩ অক্টোবর ২০১৯ রবিবার

চাষাঢ়ায় প্যারাডাইজে তিন ফ্লোরে মদের বার

নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় শহরের চাষাঢ়ায় একটি মদের বার কঠোর সমালোচনা করেন প্রেস ক্লাবের সভাপতি মাহাবুবুর রহমান মাসুম যাঁর অভিযোগ ওই ক্লাবের পেছনেই এ বারটির লাইসেন্স রয়েছে। তিনি এ লাইসেন্স নিরিক্ষা সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের পাশাপাশি সরকারী তোলারাম কলেজে সাংবাদিককে মারধরের প্রতিকার ও টর্চার সেল গড়ে উঠেছে অভিযোগ তুলেন। সেই সঙ্গে নারায়ণগঞ্জ আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি থেকে কাউন্সিলর আবদুল করিম বাবুর অপসারণ দাবী করেন।

১৩ অক্টোবর রোববার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে দুপুরে প্রায় দেড় ঘণ্টার ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক জসিমউদ্দিন।

জেলা প্রশাসনের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরামের ওই সভাতে জেলার এমপিরা উপদেষ্টা হিসেবে থাকলেও জেলার ৫টি আসনের কোন এমপি উপস্থিত ছিলেন না।

সভায় ১৪ অক্টোবর অনুষ্ঠিতব্য রূপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে প্রশাসন ও পুলিশ তাদের প্রস্তুতির বিষয়টি তুলে ধরেন। এখন পর্যন্ত কোন প্রকার অপ্রীতির ঘটনা ঘটেনি জানানো হয় সভায়। ভোটের পরিবেশও সুষ্ঠু থাকবে আশাপ্রকাশ করেন তারা।

আইনশৃঙ্খলা কমিটির সদস্য নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি সম্প্রতি সরকারী তোলারাম কলেজ সাংবাদিম সিয়াম হোসেন সৌরভকে মারধরের বিষয়টি তুলে ধরেন। ঘটনার পর প্রেস ক্লাব সভাপতি কোন বিবৃতি বা নিন্দা না দিলেও আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় তিনি এ বিষয়টিকে বেশ গুরুত্ব সহকারে তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, বার বার আলোচনায় আসছে সরকারী তোলারাম কলেজ। এখানে টর্চার সেল গড়ে উঠেছে কিনা খতিয়ে দেখতে হবে। কয়েকদিন আগে একজন সাংবাদিককে মারধর করা হয়েছে। এর আগেও মারধরা করা হয়। এ ঘটনায় আইনীপন্থা অবলম্বন করতে মামলা করতে গেলে প্রিন্সিপাল দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবেন জানালেও কিছুই হয়নি। কোন বিচার হচ্ছে না। এসব ব্যাপারে প্রশাসনেরও নজরদারী বাড়াতে হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নজর দিতে হবে। যেমন নারায়ণগঞ্জ আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি হলেন একজন বিতর্কিত ব্যক্তি। আবদুল করিম বাবু যিনি ডিশ বাবু হিসেবে পরিচিত তিনি এর ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি। কিছুদিন আগে নানা মামলায় জেল খেটেছেন।

শহরের চাষাঢ়ায় বঙ্গবন্ধু সড়কে অবস্থিত নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাব ভবন। এর পেছনেই বালুর মাঠ তথা ভাষা সৈনিক সড়ক। ওই সড়কে একটি অভিজাত শপিং মলে সম্প্রতি মদের বারের লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে শহরময় গুঞ্জন আছে।

আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় এ নিয়েও কথা বলেন মাহাবুবুর রহমান মাসুম যিনি একই সঙ্গে দৈনিক খবরের পাতার সম্পাদক। তিনি বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের পেছনেপ্যারাডাইজ ভবনে তিনটি ফ্লোরে মদের বারের লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে শুনেছি। কে দিয়েছে সেটা দেখতে হবে। আদৌ লাইসেন্স আছে নাকি নাই সেটা বড় কথা না। বড় কথা হলো এখনো কোন মদের বার থাকতে পারবে না। প্রশাসন যদি ব্যবস্থা না দেয় তাহলে সাংবাদিকেরাই সেটা গুড়িয়ে দিবে।’

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দীন ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মনিরুল ইসলাম বারের বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দেন।

আরও উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন ইমতিয়াজ মাহমুদ, সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিক, উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, নারায়ণগঞ্জ আদালতের পিপি ওয়াজেদ আলী খোকন প্রমুখ।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও