শীতল বন্ধন উৎসব বন্ধ হলেও চলছে বিআরটিসি বন্ধু মৌমিতা

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৪:৩৭ পিএম, ২৫ মার্চ ২০২০ বুধবার

শীতল বন্ধন উৎসব বন্ধ হলেও চলছে বিআরটিসি বন্ধু মৌমিতা

নারায়ণগঞ্জে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রাখতে উদাত্ত আহ্বান করেছিলেন আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা ও নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান। তাঁর সেই আহ্বানকে অবজ্ঞা করে এখনো সড়কে দাপড়ে বেড়াচ্ছে বেশ কয়েকটি গণপরিবহন। যে কারণে করোনার মত মরণঘাতি ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা তৈরী হচ্ছে।

২৫ মার্চ বুধবার সকাল থেকে দেখা যায় এই চিত্র। ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ চলাচলকারী বাসগুলোর মধ্যে সড়কে দাপড়ে বেড়াচ্ছে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বিআরটিসি এসি বাস ও ডাবল ডেকার বাস, বন্ধু ও মৌমিতা বাস। এছাড়া বেশ কয়েকটি লোকাল বাস নারায়ণগঞ্জের সড়কে চলাচল করছে। ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পথে শুধুমাত্র শীতল, উৎসব ও বন্ধন বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

যদিও ২৬ মার্চ থেকে গণপরিবহন বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে সরকার।

গত ২৩ মার্চ নিউজ নারায়ণগঞ্জের সাথে আলাপকালে নারায়ণগঞ্জে করোনা ভাইরাস ঠেকাতে জনসমাগম রোধ করতে গণপরিবহন চলাচল ও রেস্টুরেন্ট সাময়িক বন্ধ রাখতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান রেখেছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান।

আলাপকালে নিউজ নারায়ণগঞ্জকে তিনি বলেছিলেন, ‘আমি অনুরোধ আহবান আবদার করবো যেন ২৪ মার্চ মঙ্গলবার থেকেই নারায়ণগঞ্জ থেকে ঢাকা সহ বিভিন্ন রুটে যাতায়াত করা সকল গণপরিবহন, লঞ্চ বন্ধ রাখতে। এতে সংশ্লিষ্ট পরিবহন ব্যবসায়ীরা আর্থিক ক্ষতি হলেও দেশের ও জনগণ সামগ্রিকভাবে উপকৃত হবেন, ভাইরাস ছড়ানো থেকে আমরা কিছুটা হলেও রেহাই পাবো। যেহেতু এ রোগের কোন ওষুধ নেই সেহেতু ভাইরাস রুখতে পারাটাই বড় চ্যালেঞ্জ। স্বাস্থ্যবিদদের মতে একমাত্র জনসমাগম না করা, সংঘবদ্ধ না হওয়াটা বড় উপায়।’

তিনি আরো বলেছিলেন, ইতোমধ্যে বিশ্বের অনেক দেশে লকডাউন করা হয়েছে। যেসব এলাকা, প্রদেশ, অঞ্চল লকডাউন করা হয়েছে সেখানে ভাইরাসের সংক্রামন কমে গেছে। নেপালে মাত্র ২জন আক্রান্তের খবরে দেশে লকডাউন করা হয়েছে। সেখানে আমাদের এখন থেকেই ত্বরিৎ ব্যবস্থা নিতে হবে। ইতোমধ্যে আমাদের সরকার জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় অনেক কিছু করা হচ্ছে। ২৬ মার্চ থেকে ১০ দিনের সাধারণ ছুটি ঘোষণা, সেনাবাহিনী মোতায়েন, মার্কেট বন্ধ করে দেওয়া সহ অনেক কার্যকরী উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।’

‘সরকারের পাশাপাশি আমাদের সচেতন হতে হবে। যেহেতু নারায়ণগঞ্জ একটি বাণিজ্য নগরী সেখানে প্রতিনিয়ত লাখ লাখ মানুষ যাতায়াত করছে। ফলে বড় ধরনের একটি ঝুঁকি থেকে যাচ্ছে। এখন মানুষের জীবন বাঁচানো ফরজ ও মুখ্য। সেহেতু ব্যবসা বাণিজ্যের কথা আপাতত বাদ দিয়ে আর্থিক মুনাফা বাদ দিয়ে দেশের স্বার্থে জনগণের স্বার্থে আপনার আমার সকলের স্বার্থে গণপরিবহন বন্ধ করা অতিব জরুরী। সেই সঙ্গে নারায়ণগঞ্জের সকল রেস্টুরেন্ট, রেস্তরা বন্ধ রাখা উচিত। শুধুমাত্র বাজার, ওষুধের দোকান খোলা রাখতে হবে শুধুমাত্র মানিবক দিক বিবেচনায়।’ আহবানে যোগ করেন শামীম ওসমান।

সাংসদ শামীম ওসমান বলেছিলেন, ‘এটি একটি বৈশ্বিক সমস্যা। আমাদের দেশে এখনো মহামারী ছড়ায়নি। আমরা যদি শুধুমাত্র নিজেরা সচেতন হই, সেই সঙ্গে আশেপাশের প্রতিবেশী বন্ধুদের সতর্ক করি সচেতন করে তুলি তাহলেই এটাকে রোধ করা সম্ভব। কারণ এ করোনা ভাইরাস কখন কার উপর আসবে সেটা বলা যাবে না। ফলে আমাদের এখনই উচিত স্ব উদ্যোগে কাজ করা।’

নারায়ণগঞ্জবাসীর প্রতি আহবান রেখে শামীম ওসমান বলেছিলেন, ‘আপনারা সরকারের নির্দেশনা মেনে চলুন। অতি জরুরী কাজ ছাড়া বাড়ি থেকে বের হবেন না। বাসায় থাকুন, নিজেকে নিরাপদে রাখুন। কোথাও অহেতুক আড্ডা দেওয়া সমাগম থেকে বিরত থাকুন। আমি বিশ্বাস করি বাড়িতে সবাই থাকলে অন্যদের উৎসাহ দিলে ইনশাল্লাহ আমরা মহামারী থেকে রক্ষা পাবো। বাড়িতে বসে অন্তত অন্য কিছু না করতে পারি যে যার সৃষ্টিকর্তাকে ডাকি।’


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও