আতঙ্কিত নয়, নিজে বাঁচুন অপরকে বাঁচান : আইভী

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৪৪ পিএম, ২৩ জুন ২০২০ মঙ্গলবার

আতঙ্কিত নয়, নিজে বাঁচুন অপরকে বাঁচান : আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ‘করোনা থেকে একমাত্র মানুষের সচেতনতায় পারেই রক্ষা করতে। জরুরী প্রয়োজনে যারাই ঘর থেকে বের হচ্ছেন তাদের অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। হ্যান্ড স্যানিটাইজার, গ্লাভস ও অন্যান্য স্বাস্থ্য সুরক্ষার নির্দেশনা মানতে হবে। তবেই করোনাকে পরাজয় করা সম্ভব। তাই বলছি, আতঙ্কিত না হয়ে শুধু মাত্র সচেতন হয়ে করোনা থেকে নিজে বাঁচুন, পরিবার ও আশে পাশের মানুষকেও বাঁচান।’

২৩ জুন মঙ্গলবার বেলা পৌনে ১২টায় শহরের ডিআইটি আলী আহম্মদ চুনকা পাঠাগার ও নগর মিলনায়তনের সামনে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে স্বাস্থ্য সুরক্ষার সাইনবোর্ড দেখিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।’

তিনি বলেন, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও সরকার বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দিয়েছেন। এগুলো সবাইকে মানতে হবে। একটু সচেতন হলেই আমরা সবাই সুস্থ থাকতে পারি। আসুন সবাই নিয়মগুলো মেনে চলি।’

মেয়র আইভী বলেন, ‘সাইনবোর্ডে বলা আছে কিভাবে কি করলে করোনা ভাইরাস থেকে নিজে ও নিজের পরিবারকে সুরক্ষিত রাখা যায়। এগুলো পড়তে না পারলেও শুধু মাত্র ছবি দেখেই মানুষ সচেতন হতে পারবে। যার জন্য এগুলো আমরা শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে ও ওয়ার্ডগুলোতে বড় করে টানানোর উদ্যোগ নিয়েছি। ইতোমধ্যে কয়েকটি স্পটে এ সুরক্ষার সচেনতার সাইনবোর্ড টানানো হয়েছে।

এসময় তিনি সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা ও কাউন্সিলরদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের সচেতনতার ব্যানার প্রতিটি ওয়ার্ডে লাগাতে হবে। মানুষকে সচেতন করতে হবে।’

সাইনবোর্ডে উল্লেখ রয়েছে, ‘আতঙ্কিত নয় সচেতন হয়ে নভেল করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে নিজেকে এবং অপরকে রক্ষা করুন। করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি মাস্ক ছাড়া হলে আর সুস্থ ব্যক্তি মাস্ক পড়লে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা শতকার ৭০ ভাগ। করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি মাস্ক পরিহিত আর মাস্ক বিহীন সুস্থ ব্যক্তি তাহলে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা শতকার ৫ ভাগ। আর করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি ও সুস্থ ব্যক্তি উভয় মাস্ক পরিহিত হালে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা শতকরা দেড় ভাগ। ঘরের বাহিরে গেলে মাস্ক ব্যবহার করুন। পুরো হাতে সাবান মেখে ভালো করে হাত ধুয়ে নিন। নিয়মিত পুষ্টিসমৃত খাবার গ্রহণ করুন। শরীর চর্চা অথবা শারীরিক পরিশ্রম করুন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন (এক মিটার বা তিন মিটার)। হাচি কাশি শিষ্টাচার মেনে চলুন। অপরিস্কার হাত দিয়ে চোখ, নাক ও মুখ স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকুন। পরিচিত বা অপরিচিত ব্যক্তির সাথে হাত মেলানো বা আলিঙ্গন করা থেকে বিরত থাকুন। করোনা মহামারী সংক্রমণ রোধে সরকারের নির্দেশিত বিধি নিষেদ এবং স্থানীয প্রশাসনের নির্দেশনা মেনে চলুন।’

একই সঙ্গে চিকুনগুনিয়া বা ডেঙ্গু প্রতিরোধ আপনার হাতে : আপনার ঘরে এবং আপনার আশে পাশে যেকোন পাত্রে বা জায়গায় জমে থাকা পানি তিন দিন পরপর ফেলে দিলে এডিস মশার লার্ভা মরে যাবে। ব্যবহৃত পাত্রের গায়ে লেগে থাকা মশার ডিম অপসারণ পাত্রটি ঘরে ঘরে পরিস্কার করতে হবে। ফুলের টব, প্লাস্টিক পাত্র, পরিত্যক্ত টায়ার, প্লাস্টিকের ডাম, মাটির পাত্র, বালতি, টিনের কোটা, ডাবের খোসা, নারিকেলের মালা, কন্টেইনার, মটকা, নির্মাণাধীন বাড়ীর চারপাশ, ব্যাটারী স্পেস ইত্যাদি এডিস মশার ডিম পড়ে। অব্যবহৃত পানির পাত্র ধ্বংসে অথবা উল্টো রাখতে হবে যাতে পানি না জমে। দিনে অথবা রাতে ঘুমানোর সময় অবশ্যই মশারী ব্যবহার করতে হবে।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও