সুইপারদের মানবেতর জীবন যাপন (ভিডিও)

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:২৩ পিএম, ৩০ জুন ২০২০ মঙ্গলবার

সুইপারদের মানবেতর জীবন যাপন (ভিডিও)

নারায়ণগঞ্জ শহরের টানবাজার এলাকার সিটি কলোনীতে নিম্ন শ্রেনি পেশার মানুষের বসবাস যেখানে আয়তনের চেয়ে জনসংখ্যা বেশি হওয়ায় এক ঘরে ৪ থেকে ৫জন বসবাস করেন। তাছাড়া রান্নাঘর, গোসলখানা, রাস্তা সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জিনিসের অভাব রয়েছে। ফলে তাদের জীবন যাপনে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। তবে খুব শিঘ্রই দুর্ভোগ দূর করতে বহুতল ভবন নির্মাণের কাজ শুরু করতে যাচ্ছেন সিটি করপোরেশন। আগামী ২ থেকে ৩ মাসের মধ্যেই ১০ তলার দুটি ভবন নির্মাণকাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন সিটি করপোরেশনের সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলী।

সরেজমিনে সিটি কলোনীতে গিয়ে দেখা গেছে, অনেকেই বাইরে মাটির চুলায় কিংবা গ্যাসের চুলায় রান্না করছেন। আবার অনেকেই ঘরের বাইরে গোসল করছেন। কেউ চলার পথে রান্নার আসবাবপত্র পরিষ্কার করছেন। এর পাশেই নোংরা পরিবেশে শিশুরা খেলাধুলা করছেন। তাছাড়া পাশেই ময়লা আবর্জনা ফেলে রাখা হয়েছে। এছাড়া কলোনীর একটি মাত্র প্রাথমিক স্কুলের ভবনও ঝুঁকিপূর্ণ। তাছাড়া ওই কলোনীর ঘরগুলো একটা অরেকটার সঙ্গে লগোয়া হওয়ায় যেকোন দুর্ঘটনার ঝুঁকিও রয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী এসব মানুষের জীবন মান উন্নয়নে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। এখানে বাচ্চাদের পড়ালেখার মান উন্নয়নে স্কুলে মিড ডে মিল চালু করেছেন। এখানকার বাসিন্দাদের জন্য উন্নতমানের পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা, বিশুদ্ধ পানি, বিদ্যুৎ সহ বিভিন্ন কিছুর ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। তবে এখানকার মানুষের বসবাসের জন্য ২০১৭ সালের বহুতল ভবন নির্মাণের আশ্বাস দেন। ২০১৭ সালের বাজে ঘোষণা করা হয় এখানে ১০ তলা বিশিষ্ট দুটি ভবন নির্মাণ করে ১৮০টি পরিবারকে ফ্লাট দেয়া হবে। এর পরেই শুরু হয় কার্যক্রম।

সিটি কলোনীর বাসিন্দা মামুন নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘এখানকার মানুষ খুব কষ্টে জীবন যাপন করছে। এক ঘরে গাদাগাদি করে মানুষ বসবাস করে। বর্তমানে করোনার যে মহামারী চলছে তাদের সরকার বলছে দূরত্ব বজায় রাখতে। কিন্তু এ এলাকায় সেই সুযোগ নেই। আমরা মেয়র আইভীর কাছে প্রার্থনা জানাই যাতে দ্রুত আমাদের উন্নত বাসস্থানের ব্যবস্থা করেন। যাতে আমরা সুন্দর জীবন যাপন করতে পারি।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের পরিচ্ছন্ন কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি করা হোক। আমাদের উৎসব ভাতা দেয়া হোক। কর্মরত অবস্থায় মারা যাওয়া পরিচ্ছন্নকর্মীদের জন্য অনুদান বৃদ্ধি করা হোক। এছাড়া এখনকার ছেলে মেয়েদের পড়ালেখার জন্য সু ব্যবস্থা করা হোক।’

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা আলমগীর হিরণ নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘মেয়র সব সময় পরিচ্ছন্ন কর্মীদের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। তাদের যেকোন সমস্যা সমাধান করে যাচ্ছেন। সেই সঙ্গে তাদের চাহিদা পূরণ করছেন। তারই ধারবাহিকতায় ভবন নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত বলতে পারবেন প্রকৌশলী আজগর হোসেন।’

সিটি করপোরেশনের প্রকৌশলী আজগর হোসেন নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘সিটি করপোরেশনের আওতায় ঋষিপাড়া কলোনী, ইসদাইর কলোনী ও টানবাজার কলোনীতে বহুতল ভবন নির্মাণের কাজ চলমান। ২০১৭ সালে ৯৯ কোটি ৬৬ লাখ টাকা ব্যয়ে এ তিন কলোনীতে ৫৪৯টি ফ্ল্যাট নির্মাণের সিদ্ধান্ত হয়। যার মধ্যে ঋষিপাড়ায় ৩টি ভবনে ২৬১টি ফ্ল্যাট, ইসদাইরে একটি ভবনে ১০৮টি ফ্ল্যাট ও টানবাজার সিটি কলোনীতে ২টি ভবনে ১৮০টি ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হবে। যার ধারাবাহিকতায় তিনটি এলাকায় ভবন নির্মাণ প্রকল্পের ম্যাপ ও ডিজাইন তৈরিতেই সব থেকে বেশি সময় চলে যায়। তাছাড়া প্রথমে ঋষিপাড়া, পরবর্তীতে ইসদাইর কলোনীর কাজ শুরু হয়। ঋষিপাড়া দুটি ভবনের পাইলিংয়ের কাজ শেষ আর একটি শুরু হবে। ইসদাইরেও একই অবস্থায় আছে। ২৫ মার্চের পরে টানবাজার কলোনীর টেন্ডার হয়ে ভবন নির্মাণের কাজ শুরু হওয়ার কথা ছিল কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে সেটা পিছিয়ে গেছে। আগামী ৮ জুলাই টেন্ডার হলে ২ থেকে ৩ মাসের মধ্যেই ভবন নির্মাণ কাজ শুরু হয়ে যাবে। আর পরবর্তী এক বছরের মধ্যে তাদের ফ্ল্যাট বুঝিয়ে দেয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, ‘ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করতে হলে এখানকার বাসিন্দাদের ইসদাইরে অস্থায়ীভাবে বসস্থান করা হবে। যেহেতু এখন কাজ শুরু হয়নি তাই আগে থেকে আমরা তাদের সরিয়ে নিচ্ছি না। যখন কাজ শুরু হবে তখনই তাদের সরিয়ে নেওয়া হবে।’


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও