শামীম ওসমানকে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ফোন

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৫৪ পিএম, ১৫ জুলাই ২০২০ বুধবার

শামীম ওসমানকে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ফোন

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেছেন, ‘আমার সাহসের উৎকর্ষ হচ্ছে শেখ হাসিনা। আমি তার (স্বাস্থ্যমন্ত্রী) জায়গায় থাকলে জনগণের কাছে সমস্ত জবাব দিতাম। আর যদি না পারতাম আমি খোদা হাফেজ করতাম যদি আমার আত্মসম্মানবোধ থাকে। একটি টেলিভিশনে কথা বলার পর তিনি আমাকে ফোন করেছিলেন। তিনি বললেন এভাবে বলতে পারলেন। আমি তাকে প্রচন্ড সম্মান করি। আমি বললাম আমার এলাকার মানুষের চিকিৎসা দেয়ার দায়িত্ব আমার। আপনি বলেন না কেন। আপনি জনগণের কাছে জওয়াব দেন।

১৪ জুলাই বেসরকালি টেলিভিশন চ্যানেল আইয়ের সাম্প্রতিক বিষয় নিয়ে বিশেষ অনুষ্ঠান টু দ্যা পয়েন্ট অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখতে তিনি এসব কথা বলেন।

শামীম ওসমান বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের চেয়ে বেশি ক্ষমতা হচ্ছে যারা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সাপ্লাই করে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় চালায় সাপ্লায়ার্স এবং কিছু ওষুধ কোম্পানী। সুতরাং আমাকে বলতে হবে। আলটিমেটলি সবশেষে জনগণের কাছে জবাব আমাকে দিতে হয়। প্রো অ্যাকটিভ মেডিকেল কলেজ আর আল বাকারা তাদের কাছে ১০টি আইসিইউ আছে। ৪ মাস ধরে চেষ্টা করে চেষ্টা করেছি এগুলো চালু করার জন্য। এই ভদ্রলোককে নিয়ে উনারা কাজ করবে না।

তিনি বলেন, ‘আামি ডিসি সিভিল সার্জন ফোকাল পার্সনকে দিয়ে তাদেরকে ডাকলাম। আমি শামীম ওসমান হিসেবে হাতজোড় করে বললাম আপনারা ভর্তি নিবেন কিনা?। উনারা বললেন এই মুহূর্ত থেকে করবো। আমার কোনো লজ্জা নাই এটা বলতে আমি ছোট হয় নাই। আমি আমার মানুষের জোরে রাজনীতি করি। আমি জানি আমাকে মরতে হবে। কিন্তু এ ধরনের লোকেরা মনে করে করোনার পরে তারা মরবে না। স্বাস্থ্যমন্ত্রীই কন্ট্রোল করতে পারবেন। উনি লজিক দেখিয়েছেন। আমি বলছি আমাদেরকে ডাকেন। আমাদেরকে সাথে নিয়ে বসেন। আমি উনাকে দায়ী করছি না। এখানে সর্ষের ভিতর ভূত আছে। শুধু এখানে না সর্ষের ভিতরে ভূত অনেক জায়গায় আছে।’

শামীম ওসমান বলেন, ‘এখন করোনা হয়েছে এজন্য সবাই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় নিয়ে বলছে। কালকে আরেক জায়গায় ভূমিকম্প হোক সবাই গনপূর্ত মন্ত্রণালয় নিয়ে বলবে। আমি পূর্বাচল দিয়ে যাচ্ছিলাম এক বছর আগে রাস্তা হয়েছে নতুন ঝকঝকে চকচকে রাস্তা। এখন গিয়ে দেখেন পুরো রাস্তা কেটে নাই করে দেয়া হয়েছে। নতুন করে সংস্কার করছে। আমি কর্তৃপক্ষকে জিজ্ঞাসা করেছি কেন? আমি বুঝলাম না কেন কেটে দেয়া হয়েছে। বোধহয় আন্ডাপাস করা হবে। তাহলে আগে কেন প্ল্যান করেননি কেন? এই যে একশ দেড়শ কোটি টাকা খরচ হবে এটা কার টাকা?’

তিনি বলেন, জনগণকে কারণ বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার চাইতে গিয়ে এবং শেখ হাসিনার রাজনীতি করতে গিয়ে ৪৯ জন মানুষকে এই হাত দিয়ে দাফন করেছি। এই লাশগুলোকে কবরস্থানে নিতে পারি নাই কবরস্থানে নিয়ে যাওয়ার সময় গুলি করা হয়েছিল ওই লাশের ভিতর থেকে ৭৫টা গুলি বের করা হয়েছিল। সুতরাং আমরা এই চোরের দায়িত্ব নিব না। নিব না এখানে বলবো নেত্রীর কাছে বলবো। আমরা অথেনটিক খবর চাই। আমরা কোনো পদ পদবির রাজনীতি করতে আসি নাই। আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান এ দেশ আমার।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও