সরব হাট সন্ত্রাসীরা কঠোর পুলিশ

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১০:০০ পিএম, ২৮ জুলাই ২০২০ মঙ্গলবার

সরব হাট সন্ত্রাসীরা কঠোর পুলিশ

প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের মধ্যেও নারায়ণগঞ্জে গরুর হাটের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সেই সাথে জমে উঠতে শুরু করেছে হাটগুলো। আর এই হাটকে কেন্দ্র করে সরব হয়ে উঠছেন হাট সন্ত্রাসীরা। পাশাপাশি নদী পথে গরু রশি নিয়ে টানাটানি করা নদীর মাঝখানে প্রস্তুত রাখা হয়েছে তাদের কর্মী বাহিনী। প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের মধ্যেও তারা থামছে না। তবে পুলিশ প্রশাসন এ ব্যাপারে বেশ কঠোর।

আসন্ন ঈদ উল আযহা উপলক্ষে কোরবানীর হাটে আইনশৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা বিষয়ে হাট ইজারাদারদের সাথে পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে ২৫ জুলাই মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়। নারায়ণগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলমের সভাপতিত্বে নারায়ণগঞ্জ সদর, ফতুল্লা ও বন্দর থানা এলাকার পশুর হাট ইজারাদারগণ উপস্থিত ছিলেন। সভায় হাট ইজারাদারগণ আইনশৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা বিষয়ে তাদের মতামত প্রদান করেন। সভায় পুলিশ সুপার হাট ইজারাদারদের স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণের তাগিদ দেন। কোন হাটে স্বাস্থ্য বিধি, মাস্ক ব্যবহার না করলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানান। সেই সঙ্গে পশুবাহী ট্রলার, ট্রাক বা কোন ধরনের গাড়ি না আটকাতে ইজারাদারদের নির্দেশ দেন। এ ব্যাপারে অভিযোগ পাওয়া গেলে পুলিশ প্রশাসন জিরো টলারেন্স অবস্থান গ্রহণ করবে।

জানা যায়, প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে অন্যবছরের চেয়ে এবার নারায়ণগঞ্জে গরুর হাটের সংখ্যা কমিয়ে আনা হয়েছে। সেই সাথে নারায়ণগঞ্জ শহরে কোনো হাট রাখা হয়নি। এবার নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৯টি, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ১১টি, বন্দর উপজেলায় ১টি, সোনারগাঁ উপজেলায় ১৭ টি, সোনারগাঁ পৌরসভা ১টি, রূপগঞ্জ উপজেলায় ১০টি, তারাবো পৌরসভা ২টি, আড়াইহাজার উপজেলা ১৬ টি, গোপালদী পৌরসভায় ২টি এবং আড়াইহাজার পৌরসভায় ২টি সহ মোট ৭১ টি গরুর হাট রয়েছে।

আর এসকল হাটগুলোতে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে গরু আসা শুরু করেছে। ধীরে ধীরে গরু দ্বারা পূর্ণ হয়ে উঠছে হাটগুলো। সেই সাথে হাটগুলোকে কেন্দ্র করে সরব হতে শুরু করেছে হাট সন্ত্রাসীরা।

প্রশাসনের অনুমোদন দেয়া হাটগুলোর বাইরে গিয়ে হাট সন্ত্রাসীরা অবৈধভাবে হাট গড়ে তোলার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এরই মধ্যে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার গোগনগরের বাড়িরটেক এলাকায় আওয়ামীলীগের এই নেতা দেলোয়ারের অবৈধভাবে গড়ে তুলা গরুর হাটটি বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। ইজারা পাওয়ার আগেই অবৈধভাবে হাটের কার্যক্রম শুরু করাতে হাটটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এই হাটের দরপত্রও বাতিল করা হয়েছে। ওই স্থানে এবার কোন হাট বসবে না বলে জানিয়েছেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিক।

এদিকে বিনা বাধায় ইজারা ছাড়াই সদর উপজেলার কাশীপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিস সংলগ্ন একটি গরুর হাট গড়ে তোলা হয়েছিল। আর ওই হাটটি পরিচালনা করছেন কাশীপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৮নং ওয়ার্ড সদস্য ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আইয়ুব আলী। পরে সেটা ৪০ হাজার টাকায় ইজারা দেওয়া হয়।

অন্যদিকে নদীবেষ্টিত নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন নদীর তীর ঘেঁসে গড়ে তোলা হাটগুলোতে বেশি গরু উঠানোর লক্ষ্যে নদীর মাঝপথে তৈরী রাখা হয়েছে ইজারাদারদের কর্মী বাহিনী। নদী দিয়ে গরুর ট্রলার নিয়ে যাওয়ার পথে এসকল কর্মীবাহিনীর সদস্যরা ট্রলার আটকিয়ে জোর করে নিজেদের হাটে গরু উঠানোর চেষ্টায় রয়েছেন। সুযোগ পেলেই গরুর রশি নিয়ে টানাটানি করে ব্যবসায়ীদের পছন্দের হাটে যেতে না দিয়ে নিজেদের হাটে নিয়ে আসবেন।


বিভাগ : মহানগর


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও