শামীম ওসমানের দিকে তাকিয়ে বিএনপি

|| নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০১:৫৫ পিএম, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৬ রবিবার



শামীম ওসমানের দিকে তাকিয়ে বিএনপি

আগামী ২২ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটকে কেন্দ্র করে এখনো প্রভাবশালী এমপি শামীম ওসমানের দিকে তাঁকিয়ে আছেন বিএনপি নেতারা। তাঁরা এখনো নিশ্চিত ও ধারণা পোশষ করছেন শেষদিকে এসে শামীম ওসমান ও তার লোকজন পরোক্ষভাবে বিএনপির লোকজনদের সুযোগ দিবে।

যদিও শামীম ওসমান প্রথম আলোকে বলেছেন, আমরা সবাই মিলে একসঙ্গে কাজে নেমেছি। ও (আইভী) আমাকে হাইলি রেসপেক্ট দেখিয়েছে। সে তো আমার দলের প্রার্থী, নৌকার প্রার্থী। আমাদের মধ্যে অভ্যন্তরীণ কোনো কোন্দল নাই। শি ইজ মাই ইয়ংগার সিস্টার। আমরা ভাইবোনে কী ঝগড়াঝাঁটি হয়েছে, সেটা আমাদের ব্যাপার। বাট, যখন প্রতীক নৌকা, সেখানে কোনো এক্সকিউজ নাই। আমরা আপ্রাণ চেষ্টা করব ফ্রি অ্যান্ড ফেয়ার ইলেকশনের মাধ্যমে নৌকাকে জয়লাভ করাতে এবং আমরা সেটা করছি।’

তবে ইতোমধ্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির প্রভাবশালী নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায় যিনি সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির প্রধান সমস্বয়ক তিনি শামীম ওসমানকে ইঙ্গিত করে বলেছেন, এবার নারায়ণগঞ্জের বাঘ আর থাবা দিবে না।

গয়েশ্বরের সেই বক্তব্যে বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে আবারও প্রাণ ফিরিয়ে আনছে। এর মধ্যে আবার শনিবার সকালে জেলা বিএনপি কার্যালয়ে বসে গয়েশ্বর বক্তব্যে শামীম ওসমানের ছেলে অয়ন ওসমানের ফেসবুকে দেওয়া আইভীকে নিয়ে একটি স্ট্যাটাস নিয়েও কথা বলেছেন। তিনি বলেন, ‘শামীম ওসমানের ছেলে নাকি ফেসবুকে লিখেছেন আইভী আন্টিকে ভোট দিলে ভালো না দিলে আরো ভালো’।

এদিকে সম্প্রতি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াও দলের সিনিয়র নেতাদের বলেছেন, কোনভাবেই যেন শামীম ওসমানের বিরুদ্ধে বিরূপ মন্তব্য না করে তাকে খেপানো না হয়।

খালেদা জিয়ার ওই বক্তব্যের পর বিএনপির কেউ আর শামীম ওসমানকে নিয়ে গত কয়েকদিনে কোন ধরনের মন্তব্য করেনি। নামও উচ্চারণ করেনি কেউ। অথচ কয়েক বছর আগেও কাঁচপুরে শ্রমিক সমাবেশ খালেদা জিয়া বক্তব্যে শামীম ওসমানকে ইঙ্গিত করে ‘গডফাদার’ উল্লেখ করে নেতিবাচক বক্তব্য দিয়েছিলেন।

বিএনপির নেতারা শামীম ওসমানকে নিয়ে বিরূপ মন্তব্য না করলেও প্রতিনিয়ত আইভী ও নৌকা প্রতীক নিয়ে নিয়মিত বক্তব্য রেখে আসছেন। শীতলক্ষ্যায় নৌকাকে ১০ হাতা নিচে ডুবিয়ে দেওয়া হবে বলেও ঘোষণা দিচ্ছেন। অন্যদিকে সাখাওয়াত হোসেন খানও সম্প্রতি আইভীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের বক্তব্য দিচ্ছেন। অতীতে আইভীর বিরুদ্ধে উত্থাপিত শামীম ওসমানের দুর্নীতির অভিযোগের ফাইলও দেখা মিলছে সাখাওয়াতের হাতে। তাছাড়া বিগত দিনে আইভীর বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ তুলেন শামীম ওসমান পন্থীরা সেসব অভিযোগ এখন হুবহু উচ্চারিত হচ্ছে সাখাওয়াতের কণ্ঠে। আর সে কারণে আইভীও সম্প্রতি একটি বেসরকারী টিভি চ্যানেলের টক শো অনুষ্ঠানে সাফ বলেছেন, ‘আমার তো মনে হচ্ছে সাখাওয়াত হোসেন এমপি শামীম ওসমানের শেখানো তোতা পাখির মত কথা বলছেন। সাখাওয়াতের বক্তব্য সব শেখানো।’

এদিকে গত শুক্রবার জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমূর আলম খন্দকারের মাসদাইরের বাসায় বিএনপি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে গয়েশ্বর বলেছেন, ২২ তারিখের নির্বাচনে আপনাদের কাউকেই বাঘে থাবা দিবে না। তাই বলে বাড়ালের খামচিতে ভয় পাবেন না। আমরা নির্বাচনে কমপক্ষে ৬০ থেকে ৭০ হাজার ভোটে জিতবো। সে পরিস্থিতি ইতোমধ্যে হয়ে গেছে। নেতাকর্মীদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসছে সর্বত্র গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। ‘বাঘে থাবা দিবেন না’ এমন কথা তিনবার বলেন গয়েশ্বর। তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে প্রতিটি কেন্দ্রে আমাদের ফলাফল বুঝে নিয়ে আসতে হবে।’

এরই মধ্যে গত ৯ ডিসেম্বর শামীম ওসমান সংবাদ সম্মেলন করে সাফ ও দ্ব্যার্থহীন কণ্ঠে বলেছেন, আমি কিংবা আইভী না থাকলেও নৌকা চলবে জিতবে। নৌকা কখনো ডুববে না। আর বিএনপি নেতাদের মনে রাখতে হবে নৌকার একটি বৈঠা শামীম ওসমানের হাতেও আছে। আইভী আমার ছোট বোন সে যে নৌকায় উঠেছে সে নৌকা শুধু আমাদের না সে নৌকা বঙ্গবন্ধুর, শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের নৌকা।

শামীম ওসমানের ওই বক্তব্যের পরেও বিএনপির ভেতরে চলছে নানা সমীকরণ। নেতাদের কয়েকজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, শামীম ওসমানের লোকজন যদি পূর্বের রূপের মত শহরে থাকতো তাহলে হয়তো বিএনপি এখানে নামারই সুযোগ পেত না। আওয়ামী লীগের দুর্বলতার সুযোগেই বিএনপির নেতারা এসে নারায়ণগঞ্জ দাপট দেখাচ্ছে। এখন সে জোয়ারে যদি কেন্দ্র কেন্দ্র বিএনপির নেতাকর্মীরা থাকতে পারে তাহলে ধানের শীষের পক্ষেই জয় আসবে।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও