৪ আষাঢ় ১৪২৫, সোমবার ১৮ জুন ২০১৮ , ৩:০৯ অপরাহ্ণ

১৮ হাজার টাকার দাবিতে গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্টের মানব বন্ধন


প্রেস বিজ্ঞপ্তি || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৬:৫৪ পিএম, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ১২:৫৪ পিএম, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার


১৮ হাজার টাকার দাবিতে গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্টের মানব বন্ধন

পোশাক শিল্পে ন্যূনতম মজুরি ১৮০০০ টাকা করার দাবিতে গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট কাঁচপুর শিল্পাঞ্চল শাখার উদ্যোগে বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারি বিকাল ৪ টা থেকে ৫ টা কাঁচপুর পেট্রোল পাম্পের সামনে মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট কাঁচপুর শিল্পাঞ্চল শাখার সভাপতি আমানুল্লাহ আমানের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি সেলিম মাহমুদ, বাসদ সোনারগাঁ উপজেলার সমন্বয়ক বেলায়েত হোসেন, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম গোলক, সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম শরীফ, হাসনাত কবীর, রূপগঞ্জ উপজেলার সভাপতি মোঃ সোহেল, সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমীন সোহাগ, ফতুল্লা থানার সহ-সভাপতি কামাল পারভেজ মিঠু, রি-রোলিং স্টিল মিলস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক এস,এম,কাদির, কাঁচপুর শিল্পাঞ্চল শাখার নেতা সাইফুল ইসলাম, আসমা, শাকিল।

বক্তারা বলেন, সরকার গার্মেন্টস শ্রমিকদের নতুনভাবে মজুরি নির্ধারণের জন্য নি¤œতম মজুরি বোর্ড গঠন করেছে। ন্যূনতম কত টাকা মাসে আয় করলে মানসম্মত জীবনযাপন করা যায়, তার একটা মাপকাঠি না থাকলে শ্রমিকদের মজুরি নির্ধারণ করা মালিক এবং সরকারের দয়ার ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। মজুরি কোন দয়া বা করুণা নয়। মজুরি শ্রমিকের অর্জিত অধিকার। দেশের প্রবৃদ্ধি বাড়ছে বলে সরকার গর্ব করে প্রচার করছে। সরকারের দাবি মাথাপিছু আয় বেড়ে দেশ এখন নি¤œমধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশ পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম গার্মেন্টস পণ্য রপ্তানিকারক দেশ কিন্তু শ্রমিদের মজুরি সব দেশের তুলনায় কম। তাই জাতীয় আয় এবং মাথাপিছু আয় বৃদ্ধির ক্ষেত্রে প্রধান ভূমিকা পালনকারী শ্রমিকদের মজুরি তার সাথে সঙ্গতি রেখে নির্ধারণ হবে এটা একটি যুক্তিসঙ্গত প্রত্যাশা।

বক্তারা বলেন, মজুরি নির্ধারণের ক্ষেত্রে বিশ্ব মানবাধিকারের ঘোষণায় বলা হয়েছে ‘প্রত্যেক কর্মীর নিজের ও পরিবারের মানবিক মর্যাদা রক্ষায় সক্ষম এমন ন্যায্য পারিশ্রমিক পাওয়ার অধিকার রয়েছে।’আইএলও কনভেনশন ১৩১ এ বলা হয়েছে‘সর্বনিম্ন মজুরি অবশ্যই আইন দ্বারা নিশ্চিত করতে হবে। শ্রমিক ও তার পরিবারের প্রয়োজন, জীবনযাত্রার ব্যয়, সামাজিক নিরাপত্তা সুবিধা ইত্যাদিকে বিবেচনায় নিয়ে ন্যূনতম মজুরি নির্ধারণ করতে হবে।’বাংলাদেশের সংবিধানের ১৫ নং অনুচ্ছেদে নাগরিকদের যুক্তিসঙ্গত মজুরির বিনিময়ে কর্মসংস্থানের নিশ্চয়তার বিষয়টি রাষ্ট্রের অন্যতম মৌলিক দায়িত্ব হিসেবে বলা হয়েছে। মজুরি নির্ধারণের ক্ষেত্রে শ্রম আইনের ১৪১ ধারায় আছে‘জীবনযাপন ব্যয়, জীবনযাপনের মান, উৎপাদন খরচ, উৎপাদনশীলতা, উৎপাদিত দ্রব্যের মূল্য, মুদ্রাস্ফীতি, কাজের ধরন, ঝুঁকি ও মান, ব্যবসায়িক সামর্থ্য, দেশের ও সংশ্লিষ্ট এলাকার আর্থ-সামাজিক অবস্থা এবং অন্যান্য প্রাসঙ্গিক বিষয় বিবেচনা করতে হবে।’

বক্তারা বলেন, গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিপিডি দেখিয়েছে কাক্সিক্ষত পুষ্টি অর্জন করতে হলে বর্তমান বাজার দর অনুযায়ী কমপক্ষে ১৭ হাজার ৮৩৭ টাকা মাসিক আয় থাকতে হবে। আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান অক্সফাম গবেষণা ও জরিপ করে দেখিয়েছে বাংলাদেশের শ্রমিকদের শোভন মজুরি হতে হলে তা ২৫২ ডলার বা ২০ হাজার ৬৬৪ টাকা হতে হবে।

বক্তারা বলেন, আমাদের দেশের জীবনযাপন ব্যয় হিসাবে নিলে একজন কর্মক্ষম মানুষ, শিশু-বৃদ্ধ, সন্তান সম্ভবা মা সবার কথা বিবেচনা করে গড়ে ২৮০০ থেকে ৩০০০ কিলো ক্যালরি তাপ উৎপাদনের জন্য সবচেয়ে সস্তা খাদ্য গ্রহণ করতে হলে দিনে ১০৬ টাকার কমে সম্ভব হয় না। ৫ সদস্যের একটি পরিবারে মাসে খাদ্যবাবদ খরচ ১৫ হাজার ৯০০ টাকা । জীবনযাপন ব্যয়ের ৫০ শতাংশ খাদ্য ও অন্যান্য ব্যয় ৫০ শতাংশ ধরলে মাসে পরিবারের খরচ ৩১ হাজার ৮০০ টাকা। পারিবারিক ব্যয়ের অন্তত ৬০ শতাংশ প্রধান উপার্জনকারীর আয় থেকে আসতে হবে এই নীতি অনুযায়ী এবং মালিকদের সক্ষমতা, মালিকদের প্রতি সরকারের সহযোগিতার কথা বিবেচনা করে গার্মেন্টস শ্রমিকদের নিম্ন তম মজুরি ১৮ হাজার টাকা নির্ধারণ করা দরকার।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

সংগঠন সংবাদ -এর সর্বশেষ