৩ আশ্বিন ১৪২৫, মঙ্গলবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ৮:২৪ অপরাহ্ণ

ডিসি এসপি সহ অনেকের বিরুদ্ধে লিখছে না সাংবাদিকেরা : আইভী


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৫:৩৫ পিএম, ৫ এপ্রিল ২০১৮ বৃহস্পতিবার


ডিসি এসপি সহ অনেকের বিরুদ্ধে লিখছে না সাংবাদিকেরা : আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ‘বাংলাদেশে আইভী নামে যতটা পরিচিত তেমনি আমার বিরুদ্ধে যত অপপ্রচার হয়েছে তা আর কারো বিরুদ্ধেই হয় নাই। এসব মেনে নিয়েও টিকে আছি। একজন মানুষকে সবাই ভালোবাসতে পারে না। সব মানুষের দোষ ত্রুটি আছে। সাংবাদিকের কাজ হলো দুটি দিকই তুলে ধরা বস্তুনিষ্টতা বজায় রাখা। সংবাদ প্রকাশের ক্ষেত্রে ব্যক্তি পছন্দ আর অপছন্দের বিষয়টি উহ্য ও ভুলে রাখা প্রয়োজন।’

৫ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে নারায়ণগঞ্জে ২দিন ব্যাপী শিশু ও নারী উন্নয়ন বিষয়ক রিপোর্টিং প্রশিক্ষণের সমাপণী দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রশিক্ষণের সনদপত্র বিতরণে পিআইবি’র মহাপরিচালক শাহ আলমগীরের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও সাংবাদিক রুবায়েত ফেরদৌস, নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমান মাসুম, জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুস সালাম, প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শরীফউদ্দিন সবুজ, সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন পন্টি সহ প্রমুখ।

দুই দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণে হাতে কলমে সাংবাদিকতার উপরে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। এবং বিষয়ভিত্তিক নানা দিক নিয়ে আলোচনা করা হয়।

আইভী অভিযোগ করেন, প্রায়শই আমি অনেক সাংবাদিকের ফোন ধরি না। কারণ অনেক সময়ে আমার বক্তব্য যা নেওয়া হয় সেটা যথার্থভাবে প্রকাশ করা হয় না। কখনো কখনো সেটা টুইস্ট করা হয়। কারো বিরুদ্ধে কিংবা কোন নিউজ করতে হলে প্রয়োজন বক্তব্য নেওয়া প্রকৃত বিষয়টি জেনে নেওয়া। তবে কখনো সেটা হয় না।

তিনি বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জবাসী ভয় না পেয়ে যে এগিয়ে যাচ্ছে কাজ করছে ফলে যারা ভয় দেখাতো এখন সেটা দূর হতে শুরু করেছে। যারা ভয় দেখাতো তারা এখন উল্টো ভয় পায়। এক সময়ে আমাদের উপর সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেওয়া হতো। এখন কিন্তু এখন আর সেটা হচ্ছে না।’

শহরের ফুটপাতে হকার বসা নিয়ে আইভী বলেন, ‘আমি নারায়ণগঞ্জ শহরকে হকারমুক্ত করার ঘোষণা দেই নাই। আমি বলেছি শুধু বঙ্গবন্ধু সড়কে হকার বসবে না। কিন্তু অন্য সড়কে কিন্তু ঠিকই বসছে। তাছাড়া আমি ৬শ হকারদের জন্য মার্কেট করে দিয়েছি।’

‘নারায়ণগঞ্জ শহরে অনেকে অবৈধ স্ট্যান্ড সহ অনেক কিছুই আছে কিন্তু এর বিরুদ্ধে অনেক সাংবাদিক লিখছে না। হয়তো অনেক সাংবাদিক ভয় পায়। কিংবা শক্তি নাই।’ বক্তব্যে যোগ করে আইভী বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড থেকে যখন চলে এসেছি তত্ত্বাবধায়কের সময়ে যেহেতু যাই নাই তাই আর কখনো যাবোও না। আমি একজন নারী হয়েও প্রতিবাদ করে যাচ্ছি। অথচ বিষয়টি এমন না যে আপনাদের কোন সমস্যা হয়েছে কিন্তু মেয়র আসে নাই। আমি সব সময়ে আছি। ভয়ে চুপচাপ থাকা ঠিক না। ভবিষ্যতে আপনাদের কাছে না পেলে আর প্রতিবাদ করবো না।’

আইভী বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ একটি ধনী জেলা। তেমনি অনেকে এ ধনী জেলাতে আসার জন্য ওৎ পেতে থাকে। প্রধানমন্ত্রী নিশ্চয় কাউকে বলে দেয় নাই যে নারায়ণগঞ্জ গিয়ে অবৈধ স্ট্যান্ড বসাও। এখানে যারাই আসছে তারাই সেসব কাজ করে যাচ্ছে। আর অনেক সাংবাদিকও এ ব্যাপারে লিখছে না। জেলা প্রশাসক ও জেলা পুলিশ সুপার কী করছে তা কেউ লিখে না। শুধু পারে মেয়রের চরিত্র হনন করতে। শহরের অনেক স্থানে স্ট্যান্ড বসানো হচ্ছে। অনেক গাড়ি রাস্তার উপর রাখা হচ্ছে। সেখানে গাড়িতে এমপির নাম লেখা। কিন্তু এসব নিয়ে কেউ কোন ধরনের প্রতিবাদ করছে না। এসব পরিবহন ও স্ট্যান্ডের কারণে শহরে যানজট হচ্ছে। কোন ব্যক্তি বিশেষের নাম ব্যবহার করে পরিবহন দিয়ে সড়ক দখল করা রোধ করতে হবে।  নারায়ণগঞ্জ শহরকে জাগাতে হলে সাংবাদিকদের দায়িত্ব বেশী। পজেটিভ যেমন লেখা উচিত তেমনি সমস্যার নিউজও লেখা উচিত।’

তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জের বন্দরে অনেক খাসের জায়গার মাটি বিক্রি হয়ে যাচ্ছে অনেক প্রভাবশালীর সহায়তায়। এর পেছনেও প্রশাসনও দায়ী। এগুলো সংবাদ করা উচিত।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

সংগঠন সংবাদ -এর সর্বশেষ