ট্যাক্সেস বারে পাল্টা গ্রুপের নির্বাচন কমিটি গঠন

৫ ভাদ্র ১৪২৫, সোমবার ২০ আগস্ট ২০১৮ , ১২:৪০ অপরাহ্ণ

ট্যাক্সেস বারে পাল্টা গ্রুপের নির্বাচন কমিটি গঠন


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৫৭ পিএম, ২২ জুলাই ২০১৮ রবিবার | আপডেট: ০২:৫৭ পিএম, ২২ জুলাই ২০১৮ রবিবার


ট্যাক্সেস বারে পাল্টা গ্রুপের নির্বাচন কমিটি গঠন

নারায়ণগঞ্জ ট্যাক্সেস বার অ্যাসোসিয়েশনের আসন্ন ২০১৮-২০১৯ সালের কার্যকরি কমিটির নির্বাচন উপলক্ষে ৩সদস্য বিশিষ্ট নির্বাচন কমিটির ঘোষনা করেন সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক খান।

রোববার ২২ জুলাই নারায়ণগঞ্জ ট্যাক্সেস বার এসোসিয়েশনের মিলনায়তনে তিন সদস্য কমিটির ঘোষনা প্রধান নির্বাচন কমিশনার নির্বাচিত হন মো. আজিজুর রহমান মিঠু, কমিশনার মোঃ হাবিবুর রহমান ও কমিশনার মো. জিয়াউল হক শান্ত। উক্ত নির্বাচন কমিশনার অচিরেই নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা করবেন বলে গঠনকল্পে জানানো হয়।

জানা যায়, ১৪ জুলাই এক সাথে সকল নির্বাচন কমিশানর পদত্যাগ করার কারণেই নতুন করে এই নির্বাচন কমিশনার গঠন করা হয়।

এর আগে নারায়ণগঞ্জ ট্যাক্সেস বার এসোসিয়েশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে সেক্রেটারীর নেতৃত্বাধীন গ্রুপের তিন সদস্য বিশিষ্ট নির্বাচন কমিশন। ১৯ জুলাই বৃহস্পতিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ ট্যাক্সেস বার এসোসিয়েশনের কার্যকরী কমিটি ২০১৮-২০১৮ বর্ষের নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার অ্যাডভোকেট নূরুল হুদা।

সূত্রে জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ ট্যাক্সেস বার এসোসিয়েশেনের নির্বাচন নিয়ে জটিলতার অবসান ঘটেনি। বারের বর্তমান সভাপতি ঘোষিত নির্বাচনের তফসিলের পর তিনজন নির্বাচন কমিশনার পদত্যাগের কারণে নির্বাচন নিয়ে অচলাবস্থার সৃষ্টি ঘটে। বিপরীতে বর্তমান সেক্রেটারীর একটি গ্রুপ আবার সিলেকশনের মাধ্যমে তাঁকে সভাপতি করে গঠিত কমিটির বাস্তবায়ন নিয়েও নানামত দেখা দিয়েছে। এ অবস্থায় সভাপতি ও সেক্রেটারী মুখোমুখি। সেক্রেটারীর একক স্বাক্ষরে ১৮ জুলাই বুধবার জরুরী সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। যদিও আগের দিন বর্তমান সভাপতি বলেছিলেন, এই সভা আহ্বান করার এখতিয়ার সেক্রেটারীর নেই। এটা অবৈধ সভা। ফলে এ সভায় যা সিদ্ধান্ত হবে তা সবই অবৈধ।

আরও জানা গেছে, নির্বাচন সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনার জন্য বারের বর্তমান সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক খান গত ১২ জুলাই ট্যাক্সেস বারের সকল সদস্যদের আহবান করেন। সে সময় তিনি জানান, প্রতিবারের মত এবারও সাবেক সভাপতি ও সিনিয়র আয়কর উপদেষ্টা নিয়ে একটি সিলেকশন কমিটি গঠন করা হবে। যারা ১৪ জুলাই আগ্রহী প্রার্থীদের মধ্য থেকে যোগ্য প্রার্থীদের নিয়ে একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা দিবেন এবং এরাই ১৫ জুলাই রবিবার প্রার্থী হিসেবে নমিনেশন পেপার জমা দেবেন।

যদিও সেদিন সভায় উপস্থিত অনেকেই ভোটের মাধ্যমে নির্বাচনের প্রস্তাব দেন। সেদিন ১০ সদস্যের সিলেকশন বোর্ড গঠন করা হয়। তখন সাবেক সকল সভাপতি ও সিনিয়র আয়কর উপদেষ্টাগণ সিলেকশন কমিটিতে উপস্থিত না থাকায় উপস্থিত আয়কর আইনজীবীদের একটি অংশ প্রতিবাদ জানিয়ে চলে যান।

জরুরী সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার আগে সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুর রাজ্জাক খান বলেছিলেন, ‘সেক্রেটারীর সভা ডাকার কোন এখতিয়ার নাই। যেহেতু আমি সভাপতি সেহেতু আমার অবর্তমানে সেক্রেটারী কোনভাবেই সভা ডাকতে পারে না। সভা ডাকার এখতিয়ার হলো সিনিয়র সহ সভাপতি কিংবা সহ সভাপতির। আর বুধবার যে সভা ডাকা হয়েছে সে সভাটি সম্পূর্ণ অবৈধ। ফলে সভার মধ্যে যেসব সিদ্ধান্ত হবে সেটাও হবে অবৈধ। একটি গ্রুপ গায়ের জোরে সবকিছু করতে চাচ্ছে। আমরা তো আর মারামারি করতে পারি না। আমরা বিষয়টি গঠনতান্ত্রিক ও আইনগতভাবেই মোকাবেলা করবো।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

সংগঠন সংবাদ -এর সর্বশেষ