১০ আশ্বিন ১৪২৫, বুধবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ৭:৪৬ পূর্বাহ্ণ

সরকার উৎখাত চেষ্টা নাশকতা মামলার আসামী আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায়!


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:০২ পিএম, ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ রবিবার


সরকার উৎখাত চেষ্টা নাশকতা মামলার আসামী আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায়!

নারায়ণগঞ্জে পুলিশের দায়ের করা একটি নাশকতা মামলায় অভিযুক্ত এক আসামীকে জেলা প্রশাসনের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় উপস্থিত থাকতে দেখা গেছে। তাকে দুষ্কৃতিকারী এবং দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য পরিকল্পনাকারী হিসেবে মামলায় উল্লেখ করে পুলিশ। তবে ওই সভায় উপস্থিত সদস্যদের দাবী মামলা সম্পর্কে তারা জানতেন না। আর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার দাবী তিনি আসামীকে চিনেন না।

৯ সেপ্টেম্বর রোববার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত কয়েক ঘণ্টা ব্যাপী নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আইন শৃঙ্খলা কমিটির ওই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতিত্ব করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া।

ওই সভায় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম, নারায়ণগঞ্জ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট ওয়াজেদ আলী খোকন, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি ও ফতুল্লা থানা কমিটির সেক্রেটারী আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস প্রমুখ।

আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় জেলার এমপিরা উপদেষ্টা থাকলেও তাঁদের মধ্যে শুধুমাত্র সংরক্ষিত নারী এমপি হোসনে আরা বেগম বাবলী উপস্থিত ছিলেন।

মামলার বরাত দিয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম জানান, শনিবার সকালে সন্ত্রাসী দুষ্কৃতিকারীরা সরকারকে উৎখাতের লক্ষ্যে রেলপথ, সড়ক পথ, নৌপথ সমূহ অচল, মিল কারখানার উৎপাদন বন্ধ করিয়া দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য মিলিত হয়। আসামীরা সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করে নারায়ণগঞ্জ জেলাকে ঢাকা সহ অন্যান্য জেলা থেকে বিচ্ছিন্ন করার মানসে গোপন পরিকল্পনা করিতেছিল। সেখানে যাওয়ার পর পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দুস্কৃতিকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরন করে পালানোর চেষ্টা করলে চারজনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের কাছ থেকে ২টি স্কচটেপ মোড়ানো ককটেল ও ৬টি ভাঙ্গা ইটের টুকরো উদ্ধার করে। এছাড়াও পালিয়ে যায় ৩৫ থেকে ৪০ জন। পালাতকদের মধ্যে ২০ জনের নাম উল্লেখ করা হয় এবং ১৫ থেকে ২০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়।

বক্তব্য রাখছেন আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস

উল্লেখকৃত নামের তালিকার মধ্যে ৬ নাম্বার হলেন অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস (৫৫)। তিনি ফতুল্লা কাশিপুর খিলমার্কেট এলাকার বাসিন্দা।

তিনি আরো জানান, শনিবার রাতে পুলিশ সুপারে অনুমতি নিয়েই ওই মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সভায় উপস্থিত নারায়ণগঞ্জ আদালতের পিপি ওয়াজেদ আলী খোকন বলেন, মামলায় এজাহারে কারো নাম আসলে তিনি ১০০ ভাগ আসামী। তাকে আদালতে হাজির হয়ে জামিন নিতে হবে। তবে তিনি যেকোন অনুষ্ঠানে যেতে পারবেন নাকারণ সে পলাতক আসামী।

আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় আজাদ বিশ্বাস সভায় উপস্থিত থাকার বিষয়ে তিনি বলেন, আমি মামলার বিষয়টি জানি না। জানলে অবশ্যই বাধা দিতাম। আর এএসপি যিনি উপস্থিত ছিলেন তিনি হয়তো জানেন না কিংবা ওভারলুক করেছেন মনে হয়। এ বিষয়ে ডিসি ও এসপির সঙ্গে আমি আলোচনা করবো।

আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত থাকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম জানান, মামলার বিষয়ে তিনি অবগত আছেন। তবে সভায় উপস্থিত আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাসকে তিনি চিনতেন না।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

সংগঠন সংবাদ -এর সর্বশেষ