এবার সর্ববৃহৎ ঈদের জামাত করতে চাই

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৪৬ পিএম, ২২ মে ২০১৯ বুধবার

এবার সর্ববৃহৎ ঈদের জামাত করতে চাই

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একে এম শামীম ওসমান বলেছেন, আইনজীবীদের ভেতর কে কোন দল করেন সেটি ব্যাপার না। ঈদের পরে আপনাদের নিয়ে বসবো। আমাদের এখন বয়স হয়ে গেছে। উই ওয়ান্ট টু চেঞ্জ। কোন একটি জায়গা থেকে ঘণ্টা বাজানো দরকার। আমি অনুরোধ করবো আইনের স্বার্থে আপনারা সকল আইনজীবী একসাথে থাকবেন। আমার বিপরীত দলের কোন আইনজীবী যদি বিনা অপরাধে ফেঁসে যান আমি অনুরোধ করবো আপনারা সকলে তার পক্ষে গিয়ে দাঁড়ান। আমরা আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করতে চাই। নায়ক খলনায়ক অনেকেই হয়, খলনায়কের চাকচিক্য বেশী থাকে। মিথ্যা মিথ্যাই আর সত্য সত্যই। একটা সময়ে সত্য প্রতিষ্ঠিত হয়ই।

তিনি বিচারকদের প্রশংসা করে বলেন, আমি মনে করি জজ সাহেবরা দুনিয়াতে আল্লাহর প্রতিনিধিত্ব করেন। আর সেই কারণে আমি তাদেরকে আলাদা ভাবে সন্মান করি। যতটা পারি তাদের থেকে দূরে থাকি কারণ তাদের কোণ ভাবেই প্রভাবিত করতে চাইনা। আল্লাহ তাদের বিশেষ একটি অধিকার দিয়েছেন। মানুষের ভুল ত্রুটি হবেই, তার পরেও উনারা চেষ্টা করেন প্রাপ্য ন্যায় বিচার করতে। ১০০% ন্যায় বিচার করার ক্ষমতা আল্লাহ ছাড়া আর কারও নেই। আমিও আইন পাশ করেছিলাম কিন্তু প্র্যাকটিস করার সুযোগ হয়নি। আজ আমরা আইন প্রনেতা আর আপনারা সেটা প্রয়োগ করেন। বর্তমানে অনেক মামলায় অপরাধ করেও আসামী পার পেয়ে যায় সাক্ষ্যের অভাবে। একই ভাবে বিনা অপরাধে যাতে কেউ সাজা ভোগ না করে সেটিও মাথায় রাখবেন আইনজীবী ও বিজ্ঞ জজশীপরা।

বুধবার (২২ মে) নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতি কর্তৃক আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। আইনজীবী সমিতির সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েলের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি মোহসীন মিয়ার সঞ্চালনায় এসময় আরও বক্তব্য রাখেন জেলা ও দায়রা জজ আনিসুর রহমান, পিপি ওয়াজেদ আলী খোকন, জেলা আওয়ামীলীগের সেক্রেটারি আবু হাসনাত শহীদ মোঃ বাদল, মহানগর আওয়ামীলীগের সেক্রেটারি খোকন সাহা।

শামীম ওসমান সাংবাদিকদের কাছে অনুরোধ করে বলেন, আমরা গতবার জেলার সর্ববৃহৎ ঈদের জামাতের আয়োজন করেছিলাম যা দেশের তৃতীয় বৃহত্তম ঈদের জামাত। এবারও সেই ধারবাহিকতা বজায় রাখতে চাই। আপনারা সাংবাদিকরা এই ব্যাপারটি প্রচার করবেন। এবার সবচেয়ে সুন্দর ও আকর্ষনীয় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। আমার ইচ্ছা পবিত্র মদিনা শরীফের আদলে এমন একটি এনভায়রনমেন্ট তৈরী হবে যাতে নামাজীরা সন্তষ্ট হবে।

জেলা ও দায়রা জজ আনিসুর রহমান বলেন, রমজান হচ্ছে সংযমের মাস, রমজান হচ্ছে সিয়াম সাধনার মাস, রমজান হচ্ছে আত্মশুদ্ধি, মানবিক মূল্যবোধ ও মনুষ্যত্ব বোধ উন্নত করার মাস। আসুন এই পবিত্র মাসে নিজেদের মানবিক মূল্যবোধ ও মনুষ্যত্ব বোধ আরও উন্নত করার সর্বোচ্চ চেষ্টা করি।

দোয়া ও ইফতারে অন্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন, অ্যাডভোকেট মাহমুদা মালা, অ্যাডভোকেট আব্দুর রশীদ ভূইয়া, খালেদ হায়দার খান কাজল, শাহ নিজাম, অ্যাডভোকেট ভাষানী ভুঁইয়া, অ্যাডভোকেট আনোয়ার প্রধান সহ প্রমুখ।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও