স্বাভাবিক কোর্ট চালুর দাবীতে মানববন্ধন

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:০১ পিএম, ২৯ জুন ২০২০ সোমবার

স্বাভাবিক কোর্ট চালুর দাবীতে মানববন্ধন

ভিডিও কনফারেন্সসহ অন্যান্য ডিজিটাল মাধ্যমে আদালতের কার্যক্রম চালানোর সুযোগ রেখে জাতীয় সংসদে উত্থাপিত ‘আদালত কর্তৃক তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার বিল, ২০২০’ পাসের সুপারিশের প্রত্যাহারের দাবী জানিয়ে মানববন্ধন করেছে নারায়ণগঞ্জের সাধারণ আইনজীবীরা।

সেই সাথে অতি শীঘ্রই স্বাভাবিক কোর্ট চালুরও দাবী জানিয়েছেন তারা। ২৯ জুন সোমবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ার সাধারণ আইনজীবীদের উদ্যোগে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট রফিক আহমেদ, অ্যাডভোকেট আওলাদ হোসেন, অ্যাডভোকেট মোঃ খলিলুর রহমান, অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট কাজী আব্দুল গাফ্ফার, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি আলী আহমেদ ভূইয়া, অ্যাডভোকেট মশিউর রহমান শাহীন, অ্যাডভোকেট জালাল উদ্দিন আহমেদ, অ্যাডভোকেট মোঃ কাউসার আলী শেখ, অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম মোল্লা, অ্যাডভোকেট নারায়ণগঞ্জ চন্দ্র ঘোষ, অ্যাডভোকেট মোঃ হাবিবুর রহমান হাবিব, অ্যাডভোকেট আব্দুর রউফ মোল্লা, অ্যাডভোকেট মোঃ হারুন অর রশিদ, অ্যাডভোকেট কাজী রাশিদা আক্তার, অ্যাডভোকেট মাসুদা বেগম সম্পা, অ্যাডভোকেট হামিদা খাতুন লিজা, অ্যাডভোকেট শামীমা আক্তার, অ্যাডভোকেট সোনিয়া আক্তার, অ্যাডভোকেট আসমা হেসেন বিথী, অ্যাডভোকেট মোঃ শাহাদাত হোসেন, অ্যাডভোকেট হুমায়ুন কবির, অ্যাডভোকেট মোঃ হাবিবুর রহমান মাসুম, অ্যাডভোকেট রফিকুল ইলসাম রতন, অ্যাডভোকেট মোঃ মোহসিন প্রধান রানা, অ্যাডভোকেট মিল্টন, অ্যাডভোকেট মোঃ ইউসুফ আলী, অ্যাডভোকেট মোঃ হাসান তারেক, অ্যাডভোকেট গোলাম সারোয়ার ও অ্যাডভোকেট মনির হোসেন সহ অন্যান্য আইনজীবীরা।

এসময় বক্তরা বলেন, ভার্চুয়াল কোর্টের মাধ্যমে আদালতের কার্যক্রম চালানোর সুযোগ রেখে সংসদীয় কমিটি জাতীয় সংসদে উত্থাপিত ‘আদালত কর্তৃক তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার বিল, ২০২০’ পাসের সুপারিশ করেছে আমরা এর প্রত্যাহারে দাবী জানাচ্ছি। আমরা সাধারণ আইনজীবীদের পক্ষে স্বাভাবিক কোর্ট চাই। এজন্য আমরা মানববন্ধন করেছি। ভার্চুয়াল কোর্টের কার্যক্রম চালু রাখার জন্য সংসদে যে বিল উত্থাপনের যে প্রক্রিয়া চালাচ্ছে সেটার বিরুদ্ধে আমরা অবস্থান নিয়েছি।

তারা আরও বলেন, আমরা চাই ভার্চুয়াল কোর্ট বন্ধ করে স্বাভাবিক কোর্ট চালু করা হোক। আইনজীবীদের বাঁচার অধিকার দেয়া হোক। ভার্চুয়াল কোর্টে শুধুমাত্র কয়েকজন আইনজীবী সুবিধা ভোগ করছেন। বাকীরা সকলেই মানবেতর জীবন যাপন করছেন। তাই সরকারের কাছে আমাদের দাবী থাকবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে স্বাভাবিক কোর্ট চালু করে আমাদের রুটি রোজগারের ব্যবস্থা করা হোক।

প্রসঙ্গত, ২৮ জুন সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১১তম বৈঠকে ভিডিও কনফারেন্সসহ অন্যান্য ডিজিটাল মাধ্যমে আদালতের কার্যক্রম চালানোর সুযোগ রেখে জাতীয় সংসদে উত্থাপিত ‘আদালত কর্তৃক তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার বিল, ২০২০’ পাসের সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি।

এর আগে কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যে ভিডিও কনফারেন্সসহ অন্যান্য ডিজিটাল মাধ্যমে আদালতের কার্যক্রম চালানোর সুযোগ রেখে গত ৭ মে মন্ত্রিসভা এ-সংক্রান্ত অধ্যাদেশের খসড়ায় অনুমোদন দেয়ার পর তার ভিত্তিতে ভার্চুয়াল আদালতের কাজ ইতোমধ্যে চলমান হয়েছে।

নিয়ম অনুযায়ী অধ্যাদেশ জারির পর তা সংসদে তোলা হয় গত ১০ জুন। অধ্যাদেশটি আইনে পরিণত করতে হলে চলমান অধিবেশনের প্রথম বৈঠকের তারিখ থেকে পরবর্তী ৩০ দিনের মধ্যে প্রশাসনিক মন্ত্রণালয়কে জাতীয় সংসদে উপস্থাপন করে অনুমোদন করাতে হবে। না হলে অধ্যাদেশটির কার্যকারিতা লোপ পাবে।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও