রাসেল পার্কে করোনা সংক্রমণ ও লক্ষণভিত্তিক হোমিওপ্যাথি ক্যাম্প

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৩৬ পিএম, ৪ জুলাই ২০২০ শনিবার

রাসেল পার্কে করোনা সংক্রমণ ও লক্ষণভিত্তিক হোমিওপ্যাথি ক্যাম্প

করোনা ভাইরাস বা কোভিড-১৯ প্রতিরোধে নারায়ণগঞ্জ শহরের হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা সেবা ক্যাম্প শুরু হয়েছে। এখান থেকে সন্দেহভাজন রোগীরা যেমন চিকিৎসা পাবেন তেমনি করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য আগে থেকে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির কার্যকারী হোমিও ওষুধও নিতে পারবেন। ফলে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত নিয়ে ভয় কমে যাবে এমনটাই আশা করছেন ডাক্তাররা। কিন্তু সেই সঙ্গে সচেতন থাকার কোন বিকল্প নেই বলেও মন্তব্য করেন তারা।

‘করোনা ভাইরাস’ প্রতিরোধে হোমিওপ্যাথিক প্রতিপাদ বিষয়ে ৪ জুলাই শনিবার সকালে শহরের দেওভোগ শেখ রাসেল নগর পার্কের মুক্ত মঞ্চে হোমিওপ্যাথিক ডক্টরস্ লিগা বাংলাদেশ সোসাইটি (এইচডিএলবিএস) আয়োজিত কোভিড-১৯ সংক্রমণ এবং লক্ষন ভিত্তিক হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা সেবা ক্যাম্প উদ্বোধনী আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

এর আগে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিও) আবুল আমিন ১৫দিন ব্যাপী হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা সেবা ক্যাম্প উদ্বোধন ঘোষণা করেন। এছাড়াও এ ক্যাম্পের সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন।

আবুল আমিন বলেন, ‘এলোপ্যাথিক ওষুধের পাশাপাশি আপনারা হোমিওপ্যাথিক ওষুধের মাধ্যমে করোনা মোকাবেলায় যে প্রচেষ্টা তা অবশ্যই প্রশংসনীয়। আশা করছি এতে মানুষ উপকৃত হবে।’

তিনি বলেন, হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা দীর্ঘকাল থেকে চলে আসছে। এখনও কোভিড-১৯ মোকাবেলায় কাজ করে যাচ্ছে। এ ক্যাম্পের মাধ্যমে এ চিকিৎসার সেবার গতি আরো বাড়বে।

এইচডিএলবিএস এর সভাপতি অধ্যাপক ডা. মো. আশরাফুর রহমানের সভাপতিত্বে ও মহাসচিব ডা. মো. নজরুল ইসলাম খাঁনের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হোমিও প্যাথিক বোর্ড এর চেয়ারম্যান ডা. দিলীপ কুমার রায়, প্রধান আলোচক রেজিস্টার কাম সেক্রেটারী ডা. মো. জাহাঙ্গীর আলম।

তত্ত্বাবধানে ছিলেন সহকারী অধ্যাপক ডা. মো. সাইদ হাসান, এইচডিএলবিএস এর যুগ্ম মহাসচিব ডা. তারিকুল ইসলাম, হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক ঐক্য ফোরাম নারায়ণগঞ্জ এর সভাপতি ডা. দেলোয়ার হোসেন, হোমিওপ্যাথিক ডক্টরস সোসাইটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডাঃ মোঃ মোজাফরউদ্দিন বাবু, ডাঃ রোজি আক্তার, লিগারের মহিলা সম্পাদক ডা. রোকেয়া বেগম, চিকিৎসক কল্যাণ সম্পাদক ডা. মো. ইয়াদ উল্লাহ, সদস্য ডা. হারুনুর রশিদ, ডা. কাজী ইব্রাহীম।

আরো উপস্থিত ছিল ডাঃ মোঃ রায়হান মাহমুদ, ডাঃ মোঃ ফরহাদ, ডাঃ উওম চন্দ্র রায়, হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক ঐক্য ফোরামের সিনিয়র সহ-সভাপতি ডাঃ পারভীন আক্তার জুথি, ডাঃ জোসনা আক্তার, ডাঃ আশরাফুর রহমান ভুইয়া, ডাঃ আসমা কবীর, ডাঃ উম্মে কুলসুম, ডাঃ আশরাফুল, ডাঃ তাবাসুম, ডাঃ আসমা খন্দকার, ডাঃ সুমন ভট্টাচায, ডাঃ মোঃ আশরাফুল আলম, ডাঃ শিউলি আক্তার, রোকেয়া ও মোঃ মামুন, ডাঃ মোঃ সাইফুদ্দিন মিলন, ডাঃ মোঃ আব্দুর রহমান, ডাঃ আবদুল্লাহ মোঃ জাহিন।

ভিডিও কনফারেন্সের বক্তব্যে প্রধান অতিথি দিলীপ কুমার রায় বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ একটি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা। এখানে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য সহযোগিতায় সিটি করপোরেশনের মেয়র, সিওকে ধন্যবাদ জানাই।’

তিনি বলেন, ‘হোমিওপ্যাথিক ওষুধ কার্যকারী ভূমিকা রাখছে। ফলে মানুষের মধ্যে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হলে আতঙ্কা হওয়ার ভয় কমে যাবে। কারণ হোমিওপ্যাথিক ওষুধ সেবনের ফলে এখন অনেক মানুষ সুস্থ হয়েছে। তবে অবশ্যই মানুষকে সচেতন থাকতে হবে। মাস্ক ব্যবহার, হাত ধোয়া সহ সরকারি নির্দেশনা মেনে চলতে হবে। আক্রান্ত হওয়ার চেয়ে মানুষ সচেতন থেকে এর থেকে মুক্তি পাওয়ায় শ্রেয়। সবাই স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলবো।’

এইচডিএলবিএস এর সভাপতি অধ্যাপক ডা. মো. আশরাফুর রহমান বলেন, ‘প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত করোনা প্রতিরোধে ওষুধ বিক্রির পাশাপাশি ডাক্তাররা চিকিৎসা সেবা দিবে। এর মধ্যে ওষুধ কিনতে ৫০টাকা দিতে হবে। আর চিকিৎসা সেবা নেওয়ার জন্য ১০০ টাকা। আমাদের কার্যক্রম ২০ জুলাই পর্যন্ত চলবে। পরবর্তী সিটি করপোরেশনের অন্যান্য এলাকায় ক্যাম্প করা হবে। আমাদের কার্যক্রম ধারাবাহিক ভাবে চলবে।’



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও