নিয়মিত কোর্টের দাবীতে টানা ষষ্ঠ দিনে মানববন্ধন

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৩৭ পিএম, ৬ জুলাই ২০২০ সোমবার

নিয়মিত কোর্টের দাবীতে টানা ষষ্ঠ দিনে মানববন্ধন

স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে নিয়মিত কোর্ট চালু করার দাবীতে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ায় টানা ৬ষ্ঠ দিনের মতো সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় ৬ জুলাই সোমবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সাধারণ আইনজীবীদের উদ্যোগে সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সদস্য অ্যাডভোকেট রফিক আহমেদের সভাপতিত্বে এদিনের কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সদস্য অ্যাডভোকেট আওলাদ হোসেন, অ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদ ভাষানী, অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম মোল্লা, অ্যাডভোকেট জালাল উদ্দিন আহমেদ, অ্যাডভোকেট মোঃ কাউসার আলী শেখ, নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবু আল ইউসূফ খান টিপু, অ্যাডভোকেট আজিজ আল মামুন, অ্যাডভোকেট শরীফুল ইসলাম শিপুল, অ্যাডভোকেট জিল্লুর রহমান মুকুল, অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম ও অ্যাডভোকেট রঞ্জিত চন্দ্র দে ও অ্যাডভোকেট রইস উদ্দিন স্বপন সহ অন্যান্য আইনজীবীরা।

মানবন্ধনে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সদস্য অ্যাডভোকেট আওলাদ হোসেন বলেন, নিয়মিত কোর্ট চালু না করে ভার্চুয়াল কোর্টের মাধ্যমে আইনজীবীদের সুনাম নষ্ট করা হয়েছে। একজন আইনজীবীকে মামলা করলে পিয়নের কাছে যেতে হয়, পুলিশের কনস্টেবলের কাছে যেতে হয়। এর মাধ্যমে আইনজীবীদের মর্যাদা সুনাম বিনষ্ট হচ্ছে। বাংলাদেশের সমস্ত প্রতিষ্ঠান খোলা শুধু আইনাঙ্গন বন্ধ। দেওয়ানী মোকদ্দমা দায়ের করতে মানুষ আসে না। দেওয়ানী মোকদ্দমার শুনানীর সময় অনেক লোক উপস্থিত হয় না। শুধু আইনজীবীরা আইনজীবীরা শুনানী করে। অতএব নিয়মিত কোর্ট চালু করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের আন্দোলন সরকারী বিরোধী কিংবা সরকার পরিবর্তনের আন্দোলন নয়। এখানে মানবাধিকার আইনের শাসন আইনজীবীদের অধিকার। মর্যাদা রক্ষার আন্দোলন। বিগত দিনে আমরা দলীয় স্লোগান ব্যবহার করি নাই ভবিষ্যতেও করবো না।

অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম মোল্লা বলেন, আমরা আইনের শাসন ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সাধারণ আইনজীবীদের অ্যাকচুয়াল কোর্টের দাবী আদায়ের লক্ষ্যে আমরা আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছি। সে সংগ্রামের আংশিক সফল হিসেবে আত্মসমর্প করার ব্যবস্থা করেছেন। আমরা আশা করি আগামী দিনে অ্যাকচুয়াল কোর্ট চালু হবে।

অ্যাডভোকেট জালাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, ভার্চুয়াল কোর্ট বন্ধ করে অ্যাকচুয়াল কোর্ট চালু করা হোক। বাংলাদেশের ৬০ হাজার আইনজীবীদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হোক। আইনজীবী ও তাদের সহকারীদের পথে বসার উপক্রম হয়েছে। এই পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের জন্য ভার্চুয়াল কোর্ট বন্ধ করে অ্যাকচুয়াল কোর্ট চালু করা হোক।

প্রসঙ্গত, গত ২৮ জুন থেকে ভাচুয়াল কোর্ট বন্ধ করে অ্যাকচুয়াল কোর্টের দাবীতে নারায়ণগঞ্জের আদালতপাড়ায় সাধারণ আইনজীবীদের উদ্যোগে সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়ে আসছে।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও