৮ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, বুধবার ২২ নভেম্বর ২০১৭ , ৩:১৭ অপরাহ্ণ

লিংক রোডে ভয়ংকর সিএনজি


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:৩৯ পিএম, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ বুধবার


লিংক রোডে ভয়ংকর সিএনজি

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে সিএনজি চালিত অটো রিকশার মধ্যেই একের পর এক ছিনতাই ও খুনের ঘটনা ঘটছে। এ রোডে সিএনজি চালিত অটো রিকশার সংখ্যাও জানা নেই পুলিশের। তবে এ সড়কের প্রতিটি এলাকায় রয়েছে একটি করে অবৈধ স্ট্যান্ড। আর এসব স্ট্যান্ডে যারা চাঁদাবাজী করে থাকে তারাই জানে এ সড়কে কয়টি সিএনজি অটো রিকশা চলাচল করে থাকে। আর এসব অবৈধ ওই স্ট্যান্ডগুলোতে বসে ছিনতাই ও হত্যার পরিকল্পনা করে থাকে সিএনজি চালকেরা। সবশেষ হত্যাকান্ডের শিকার হন তোলারাম কলেজের ছাত্র শাহরিয়াজ মাহমুদ শুভ্র। চার ছিনতাইকারী শুভ্রর সঙ্গে থাকা মোবাইল ও ৬শ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে তাকে হত্যা করে।

এনিয়ে প্রশাসনের তৎপরতা না থাকায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডটি ছিনতাইকারীদের অভয়ারণ্যে একের পর এক প্রাণ হারাচ্ছে বিভিন্ন বয়সী লোকজন।

নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়া থেকে সাইনবোর্ড পর্যন্ত লিংক রোডের দৈর্ঘ্য ৮ দশমিক ৪ কিলোমিটার। এর মধ্যে ফতুল্লার শিবু মার্কেট থেকে সাইনবোর্ডের দূরত্ব প্রায় ৫ কিলোমিটার। এই সড়কেই সবচেয়ে বেশি সিএনজি ও যাত্রীবাহী বাসে অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে। সম্প্রতি গত ৮ সেপ্টেম্বর সকাল থেকে সরকারি তোলারাম কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র শাহরিয়ার মাহমুদ শুভ্র (২১) ফতুল্লার লালপুর এলাকার নিজ বাড়ি থেকে নিখোঁজ ছিল। ৯ সেপ্টেম্বর সকালে ফতুল্লার ভুইগড় এলাকার ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশের ডোবা থেকে তার লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। নিহতের পরিবার হত্যাকা-ের কোন কারণ তাৎক্ষনিক জানাতে না পারলেও পুলিশের তদন্তে বেরিয়ে আসে হত্যাকান্ডটি সিএনজিতে ছিনতাইকারীদের হাতে সংগঠিত হয়েছে।

এর আগে ২২ মে সকালে সাড়ে ১০টার দিকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডস্থ ভূইগড় বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সিঙ্গার প্লাসের ব্রাঞ্চ ম্যানেজের নুর আহম্মেদ সোহেল তার শোরুমে প্রবেশ করার সময় মুখোশধারী দুই ছিনতাইকারী মোটরসাইকেলে এসে তাকে গুলি করে ১ লাখ ৭৪ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এছাড়া গত বছরের সেপ্টেম্বরে ফতুল্লার ভূইগড়ে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে রূপায়ন টাওয়ারের সামনে ছিনতাইকারীদের ছুরিকাঘাতে রাজু মিয়া (৪৫) নামের এক ভ্যানগাড়ি চালকের মৃত্যু হয়। ওই সময় আহত হয়েছে কবির নামের অপর একজন যুবক। তাছাড়াও চলন্ত সিএনজিতে প্রায় সময় ঘটছে ছিনতাইয়ের ঘটনা। এতে কেউ থানায় অভিযোগ করে আবার অনেকেই জামেলা ভেবে এড়িয়ে যায়।

জানাযায়, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের সাইনবোর্ড, দেলপাড়া, ভূইগড়, জালকুড়ি, খান সাহেব স্টেডিয়ামের সামনে, শিবুমার্কেট ও চাষাঢ়া এলাকায় ট্রাফিক পুলিশ ও সন্ত্রাসীরা যৌথ সিএনজি, বেটারী চালিত অটোরিকশা ও ফিটনেসবিহীন যানবাহন থেকে মাসোহারা আদায় করে থাকে। আর উল্লেখিত এলাকা গুলোতে অবৈধভাবে ষ্ট্যান্ড তৈরী করে সেখানে বসেই লিংক রোডে অপরাধের ছক আকে ছিনতাইকারীরা।

সিএনজি চালকরা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জানিয়ে বলেন, সড়কে গাড়ি চলুক আর নাই চলুক মাসোহারা ভোরে এসেই দিতে হয়। এরপর সড়কে যাতায়াত করতে হয়। গাড়ির জমা আর গ্যাসের টাকা উঠাতে কেউ ব্যস্ত হয়ে উঠে আবার কেউ স্থানীয় অপরাধীদের সঙ্গে পরামর্শ করে। লিংক রোডের প্রতিটি সিএনজি ও বেটারী চালিত অটোরিকশা পুলিশের নিয়ন্ত্রনে থাকলে অপরাধ অনেকটা কমে যাবে বলে মনে করেন চালকরা।

এই সড়কে যাতায়াতকারীদের অভিযোগ, ফতুল্লা ও সিদ্ধিরগঞ্জ দুটি থানার আওতাধীন এই সড়কে পুলিশের টহল অপ্রতুল। রাতে ঘরমুখো যাত্রীরা অভিযোগ করেন, লিংক রোডের ৩টি স্পটে পুলিশের চেক পোস্ট থাকলেও তারা ব্যস্ত থাকেন যাত্রী হয়রানিতে। বিশেষ করে প্রাইভেটকারে মহিলা যাত্রী থাকলে হয়রানির শিকার একটু বেশি হতে হয়।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ শরফুদ্দিন জানান, ছিনতাইকারীরা লিংক রোডের নিরব স্থান গুলোতে সময় বুঝে অপরাধ করে থাকে। আমরা পর্যাপ্ত টহলের ব্যবস্থা করেছি। পুলিশ চেক পোস্টে কোনো পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে অন্যায় কাজের অভিযোগ পেলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হয়। যানবাহনে আমাদের পুলিশ চাঁদাবাজী করে না। তবে চাঁদাবাজীর বিষয়ে কেউ অভিযোগ করলে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। সম্প্রতি লিংক রোড থেকে উদ্ধার করা কলেজ ছাত্র শুভ্র’র মৃত্যুর কারণ জানতে পেরেছি। তাকে ছিনতাইকারীরা হত্যা করেছে। এ হত্যাকান্ডে যারা জড়িত তাদেরকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

ফিচার -এর সর্বশেষ