স্ত্রীর পরকীয়ায় জিডি করায় স্বামীকে মারলো পুলিশ

সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৪৫ পিএম, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার



স্ত্রীর পরকীয়ায় জিডি করায় স্বামীকে মারলো পুলিশ

নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের এক এসআইয়ের সঙ্গে তারই সোর্সের স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করেছেন ওই সোর্স। এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপারের বরাবর লিখিত অভিযোগও করেছেন সোর্স জাকির নামে একজন।

স্ত্রী পালিয়ে যাওয়ার পর সোর্স জাকির তার স্ত্রী কোথায় আছে এসআই সাইফুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে গ্রেপ্তার করে মিথ্যা মামলা ফাঁসিয়ে দেয়ার হুমকি দেয়। এ ঘটনায় স্ত্রীর উদ্ধারসহ নিজের নিরাপত্তা চেয়ে নারায়ণঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মঈনুল হকের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগকারী জাকির জানান, ফতুল্লার পুলিশ লাইনস্থ এলাকায় বসবাসরত হানিফ মিয়ার ছেলে পুলিশের সোর্স জাকির হোসেন। সে গত এক বছর আগে ফতুল্লার খোসপাড়া এলাকার মাদক ব্যবসায়ী হেলালের স্ত্রীকে বিয়ে করে সোর্স জাকির। বিয়ে করার পর তাদের সংসার ভাল ভাবে চলছিল। জাকির ফতুল্লা মডেল থানার বিভিন্ন পুলিশ অফিসারের সাথে সোর্সের কাজ করে আসছিল। একপর্যায়ে থানার এসআই সাইফুর রহমানের কাজও করে। সেই সুবাধে তাদের মধ্যে ভাল সম্পর্ক তৈরি করে। এমনকি জাকিরের স্ত্রীর সাথেও সাইফুর রহমানের পরিচয় হয়। সেই থেকে জাকিরের স্ত্রীর দিকে নজর দেয় সাইফুর। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে ভাল সম্পর্কও গড়ে উঠে। তাদের মধ্যে ফোন আলাপও হয়। সম্প্রতি জাকিরের স্ত্রী সীমা বেগম জাকিরের ঘর থেকে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় সোর্স জাকির গত ২০ ডিসেম্বর ফতুল্লা মডেল থানায় একটি সাধারন ডায়েরী যার নং-৯৩২ দায়ের করে।

তিনি আরও জানান, জিডি করার পর গোপন সংবাদে জাকির জানতে পারে তার স্ত্রী সীমাকে সাইফুর রহমান ভাগিয়ে নিয়ে অন্যত্র রেখে দেয়। পরে সাইফুর রহমানকে জিজ্ঞেস করলে তাকে নানা ধরনের ভয়ভীতি ও গ্রেপ্তার করার হুমকি দেয়। যার কারনে সোর্স জাকির ভয়ে সাইফুর রহমানকে কিছু বলতে সাইহ পায় না। গত ২১ ফেব্রুয়ারী ফতুল্লার বিসিক এলাকায় জাকিরকে দেখে এসআই সাইফুর রহমান তাকে গাড়িতে তুলে নিয়ে গ্রেপ্তারের চেষ্টাসহ মারধর করে। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে ধস্তাধস্তি হলে কোন ভাবে ছুটে চলে আসে। পরে নিজের জীবন রক্ষাসহ স্ত্রীকে ফিরিয়ে পেতে জেলা পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করে জাকির।

ফতুল্লা মডেল থানার এসআই সাইফুর রহমান তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, জাকির কিছুদিন আমার সাথে সোর্সের কাজ করেছে। তার বউয়ের সাথে আমার সম্পর্ক হওয়ার দুর থাক তার বউকে তো আমি চিনি না। কাদের ইন্ধনে জাকির আমার ইজ্জত নিয়ে খেলা করছে আমি তা বুজতে পারছি না। জাকিরের অভিযোগ সত্যতা হলে আমার কর্তৃপক্ষ আমার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবে। এতে আমার কোন আপত্তি থাকবে না।



নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও