১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, শুক্রবার ২৫ মে ২০১৮ , ৪:৪০ অপরাহ্ণ

যেসব কারণে মহাসড়কে তীব্র যানজট


স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৮:১০ পিএম, ১৬ মে ২০১৮ বুধবার | আপডেট: ০১:৫৩ এএম, ১৭ মে ২০১৮ বৃহস্পতিবার


যেসব কারণে মহাসড়কে তীব্র যানজট

কুমিল্লার দাউদকান্দিতে অবস্থিত মেঘনা গোমতী সেতু এলাকায় সৃষ্ট যানজটের রেশ ছিল ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জের প্রায় ২০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে।

১৬ মে  বুধবার ভোর ৪টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত ১১ ঘন্টাব্যাপী ২০ কিলোমিটার রাস্তা জুড়ে তীব্র যানজটে যাত্রীদের দুর্ভোগ ছিল চরমে। ভোরবেলায় গন্তব্যের উদ্দেশ্যে বাসে রওয়ানা হলেও বিকেল অবধি অর্ধেক রাস্তা অতিক্রম করতে পারেনি বেশীরভাগ যাত্রীরা। তবে দুপুরের পর থেকে যানজট কিছুটা কমেছে।

জানা গেছে, ঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে চলাচল করা ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা গণপরিবহনগুলো মূলত নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড হতে শিমরাইল মোড় হয়ে কাঁচপুর সেতুতে উঠে। যাত্রাবাড়ী হতে কাঁচপুর সেতুর পূর্ব দিকে ৮লেনের সড়ক। কিন্তু কাঁচপুর সেতু আবার ৪ লেনের। ফলে রাজধানী থেকে যেভাবে যানবাহনগুলো আসে সে ধারাতে সেতুর উপর উঠতে পারে না। এতে করে কাঁচপুর সেতুর পশ্চিম পাশে দেখা দেয় যানজট। এছাড়া সেতুর পূর্ব ঢালে গিয়ে ঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে ভাগ হয়ে যায় যানগুলো। ফলে দুটি মহাসড়কের যান একসঙ্গে আসার কারণে সাইনবোর্ড ও শিমরাইল এলাকাতেই সবচেয়ে বেশী যানজটের সৃষ্টি হয়। এ দুটি স্থানে রয়েছে আবার বিভিন্ন যানবাহনের কাউন্টারগুলো। তার মধ্যে সবচেয়ে বেশী কাউন্টার ও বাস স্টপেজ হলো শিমরাইলে। এ স্থানে সড়কের মধ্যে এলোপাথাড়িভাবে গাড়ি থামিয়ে যাত্রী উঠানোর কারণে দেখা দেয় দীর্ঘ যানজট।

এছাড়া দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতুর নির্মাণ কাজ চলায় সেতুর পূর্ব ঢালে গাড়ি চলাচলে ধীরগতি থাকে। এর প্রভাব পড়তে থাকে সবগুলো সড়কেই।

ট্রাফিক পুলিশের একজন কর্মকর্তা জানান, গোমতী ও মেঘনা সেতু টোলপ্লাজায় ওজন স্কেলে একটি মালবাহী যানবাহন কমপক্ষে ১০ থেকে ১৫ মিনিট আটকে রাখা হয়। এতে করে টোলপ্লাজায় মালবাহী ও যাত্রীবাহী যানবাহনের ভিড় জমতে থাকে। তাছাড়া কুমিল্লা এলাকাতে রেলপাস, আলাদা বাইপাস সড়ক নির্মাণের কারণে সেখানে যানজট হচ্ছে। এর প্রভাব পড়ে কাঁচপুর পর্যন্ত।

শিমরাইল এলাকাতে নিয়োজিত ট্রাফিকের উপ পরিদর্শক কামরুল ইসলাম জানান, কাঁচপুর সেতুর পশ্চিম পাশে ও শিমরাইল মোড়ে মূলত যানজট নাই। তবে যান চলাচলে ধীরগতি আছে। কুমিল্লা ও মেঘনা সেতুর এলাকার যানজটের প্রভাব ক্রমশ কাঁচপুর পর্যন্ত আসছে। সে কারণে কাঁচপুর এলাকায় যান চলাচলে ধীরগতি হচ্ছে। এটা মূলত ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে। তবে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক আছে। কিন্তু কাঁচপুর সেতুর পশ্চিম ঢালে যান চলাচলের ধীরগতির কারণে সিলেটের গাড়িগুলো পূর্ব ঢালে যেতে বেগ পাচ্ছে।

কাঁচপুর হাইওয়ে থানা পুলিশের ওসি আব্দুল কাইউম জানান, ভোর ৪টার দিকে বৃষ্টির কারণে কুমিল্লার দাউদকান্দিতে অবস্থিত মেঘনা গোমতী সেতুর উপরে সড়কে ট্রাফিক বিভাগের লোকজন ছিলনা। তখন কিছু গাড়ি একজন আরেকজনের আগে যাওয়ার প্রতিযোগিতা করতে গিয়ে যানজট বাঁধিয়ে ফেলে। সেই যানজট ছাড়াতে না ছাড়াতেই কিছুক্ষণ পরে একটি গাড়ি বিকল হয়ে পড়ে। ওই যানজটের রেশ নারায়ণগঞ্জের অনেকদূর পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়ে। তবে দুপুরের পর থেকে গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। এতে করে যানজটের তীব্রতা কমতে শুরু করেছে বলে তিনি জানান।

কাঁচপুর হাইওয়ে থানা পুলিশের ওসি আব্দুল কাইউম জানান, ভোর ৪টার দিকে বৃষ্টির কারণে কুমিল্লার দাউদকান্দিতে অবস্থিত মেঘনা গোমতী সেতুর উপরে সড়কে ট্রাফিক বিভাগের লোকজন ছিলনা। তখন কিছু গাড়ি একজন আরেকজনের আগে যাওয়ার প্রতিযোগিতা করতে গিয়ে যানজট বাধিয়ে ফেলে। সেই যানজট ছাড়াতে না ছাড়াতেই কিছুক্ষণ পরে একটি গাড়ি বিকল হয়ে পড়ে। ওই যানজটের রেশ নারায়ণগঞ্জের অনেকদূর পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়ে। তবে দুপুরের পর থেকে গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। এতে করে যানজটের তীব্রতা কমতে শুরু করেছে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

শহরের বাইরে -এর সর্বশেষ